সাম্প্রতিক হালচাল

উত্তর করেছেন : Maya Apa

  3 দিন পূর্বে

আমি একজন উনিশ বছর বয়সী মেয়ে।আমি একটি মেডিকেল কলেজের ১ম বর্ষের ছাত্রী।আমার গত ২-৩ বছর ধরে পূর্বের+বর্তমানে ঘটে যাওয়া সম নেগেটিভ কাহিনী প্রতিদিন প্রায়ই মনে পড়ে।আর এ স্মৃতিগুলো এমন যেগুলো আমাকে বিরক্ত করে যদিও বিষয়গুলো সিরিয়াস কিছুনা অন্যের কাছে।যেমনঃহঠাৎ করেই মনে পড়বে অমুক দিনে আমি কারো থেকে অপমানিত হয়েছিলাম বা আমি আমার শিক্ষক এর সামনে বোকার মতো উল্টাপাল্টা উত্তর দিয়েছি বা আমার এমন কিছু ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র ভূল যার জন্য নিজেই নিজের কাছে অস্বস্তিকর হয়ে গেছি(যেমনঃআমার বন্ধু দের ভুল ডেমো দিয়েছি না জেনেই,বোকার মতো অনেক কাজ করেছি<বাজে ভাবে কোণ আইসক্রিম খেয়েছি প্রথম যেদিন খাই>ইত্যাদি।আমি দেখতে ভালোনা, মানুষ আমাকে দেখলে ৫মিনিট বেশি তাকিয়ে থাকে,মনে মনে হয়ত আমাকে নিয়ে অনেক কিছু নেগেটিভ ভাবে।এমনকি আমার প্রতিবেশী বলেছিলো,আমাকে দেখে নাকি বাড়ির মেয়ে মনে হয়না,মনে হয় কাজের মেয়ে।আমার তেমন বেশি ফ্রেন্ডও নেই।নিজের লুকের জন্য অনেকবার বর্ণবাদের শিকার হয়েছি এবং হই।তবে আল্লাহর রহমতে আমার বাবা মা ভাই বোন তাদের সবটা দিয়ে আমাকে ভালোবাসে।আমি অনেক ডিপ ইন্ট্রোভার্ট। তার মধ্যে জীবনে প্রথম আমাকে থাকতে হচ্ছে হোস্টেলে অনেক মানুষের মাঝে।এত মানুষের মাঝে ফ্রি হতে পারিনা।এখন লকডাউনে বাসায় তবে হোস্টেলে যাওয়ার কথা ভাবলেই আমার বিরক্ত আর কষ্ট হয়। বিষয়গুলো অন্যের কাছে খুবই তুচ্ছ কিন্তু এই বিষয়গুলোই আমাকে পীড়া দেয়।এবং আমি অনেকটা জোরেই শব্দ করে আমার মনকে বলি,"চুপ,বিরক্ত করোনা,ভাল্লাগেনাআবার নিজের নাম ধরে নিজেই ডাকি"এটা সম্পূর্ণ আমার মনকে থামানোর জন্য করি।কিন্তু আমার পাশের কেউ আমার এসব দেখে আমাকে পাগল ভাবাটাই স্বাভাবিক।আমি এসবের জন্য পড়াশুনায় মনযোগ দিতে পারিনা মাঝেমধ্যে।আগে এত বেশি ছিলোনা।দিন যত যাচ্ছে তত তীব্র হচ্ছে।আমি যখন বিজি থাকি তখন মনে পড়েনা।এমনকি আজ থেকে ৫বছর বা ৬/৭ বছরের আগের ঘটনাও মনে পড়া বাদ যায়না।পজিটিভ কিছু মনে পড়েনা পড়লেও আনন্দ আসেনা,দায়িত্ববোধ বেড়ে যায় এবং চাপে পড়ে যাই দায়িত্ববোধ থেকে(ভাবি যে চান্স পাইলাম এখন যদি ডাক্তার না হতে পারি?আমার লুকের কারণে আমার বিয়ে হবে কিনা আল্লাহ জানে।আমি বোঝা হয়ে যাবোনা তো?আরো ডিপ্রেসনে পড়ে যাই।তবে হ্যাঁ, আমি ছাত্রী খুবই মেধাবী না হলেও চেষ্টা করতে ক্লান্ত হইনা।আগে থেকেই আমার ফলাফল অনেক ভালো কিন্তু আমি পেসসিমস্টিক।আমার এখন কি করা উচিত,স্যার/ম্যাডাম?

উত্তর করেছেন : T.Moon

  4 দিন পূর্বে

আমি খুব অস্থিরতায় থাকি কোনো কিছু ভালো লাগে না কোনো মানুষের সাথে বেশি সময় কথা বলতে ভালো লাগে না আবার একা বেশি সময় ভালো লাগেনা আমি খুব অবহেলায় বড়ো হয়েছি যারা আমার সাথে খুব খারাপ ব্যবহার করেছে তাদের ভুলে যেতে চাই ভুলতে পারিনা তাদের কিছু বলতেও পারিনা কারন সেই ক্ষমতা নেই আমার মাঝে মাঝে খুব কান্না করি তখন শরীর খারাপ হয়ে যায় নিজে নিজে অনেক কথা বলি যারে যা বলতে চাই একা একা বলে চিত্কার করি  আমার এমন কোন আপন মানুষ নেই যাকে বলতে পারি আর এমনিতে কেউ নেই যার সাথে আমি গল্প করতে পারি সময় কাটাতে পারি আমার টিভি দেখতে ভালো লাগে না কোন বিনোদন ভালো লাগে না সুন্দর কোনো গল্প দেখলে মনে হয় আমার জীবন কেন এমন হলো না খারাপ কিছু দেখলে মনে হয় মানুষ কেন এতো নির্মম হয় তখন বুকের মধ্যে অস্থির লাগে সাশ নিতে কষ্ট হয়

উত্তর করেছেন : AR Rahman

  ১ সপ্তাহ পূর্বে

আমি একজন উনিশ বছর বয়সী মেয়ে।আমি একটি মেডিকেল কলেজের ১ম বর্ষের ছাত্রী।আমার গত ২-৩ বছর ধরে পূর্বের+বর্তমানে ঘটে যাওয়া সম নেগেটিভ কাহিনী প্রতিদিন প্রায়ই মনে পড়ে।আর এ স্মৃতিগুলো এমন যেগুলো আমাকে বিরক্ত করে যদিও বিষয়গুলো সিরিয়াস কিছুনা অন্যের কাছে।যেমনঃহঠাৎ করেই মনে পড়বে অমুক দিনে আমি কারো থেকে অপমানিত হয়েছিলাম বা আমি আমার শিক্ষক এর সামনে বোকার মতো উল্টাপাল্টা উত্তর দিয়েছি বা আমার এমন কিছু ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র ভূল যার জন্য নিজেই নিজের কাছে অস্বস্তিকর হয়ে গেছি(যেমনঃআমার বন্ধু দের ভুল ডেমো দিয়েছি না জেনেই,বোকার মতো অনেক কাজ করেছি<বাজে ভাবে কোণ আইসক্রিম খেয়েছি প্রথম যেদিন খাই>ইত্যাদি।আমি দেখতে ভালোনা, মানুষ আমাকে দেখলে ৫মিনিট বেশি তাকিয়ে থাকে,মনে মনে হয়ত আমাকে নিয়ে অনেক কিছু নেগেটিভ ভাবে।এমনকি আমার প্রতিবেশী বলেছিলো,আমাকে দেখে নাকি বাড়ির মেয়ে মনে হয়না,মনে হয় কাজের মেয়ে।আমার তেমন বেশি ফ্রেন্ডও নেই।নিজের লুকের জন্য অনেকবার বর্ণবাদের শিকার হয়েছি এবং হই।তবে আল্লাহর রহমতে আমার বাবা মা ভাই বোন তাদের সবটা দিয়ে আমাকে ভালোবাসে।আমি অনেক ডিপ ইন্ট্রোভার্ট। তার মধ্যে জীবনে প্রথম আমাকে থাকতে হচ্ছে হোস্টেলে অনেক মানুষের মাঝে।এত মানুষের মাঝে ফ্রি হতে পারিনা।এখন লকডাউনে বাসায় তবে হোস্টেলে যাওয়ার কথা ভাবলেই আমার বিরক্ত আর কষ্ট হয়। বিষয়গুলো অন্যের কাছে খুবই তুচ্ছ কিন্তু এই বিষয়গুলোই আমাকে পীড়া দেয়।এবং আমি অনেকটা জোরেই শব্দ করে আমার মনকে বলি,"চুপ,বিরক্ত করোনা,ভাল্লাগেনাআবার নিজের নাম ধরে নিজেই ডাকি"এটা সম্পূর্ণ আমার মনকে থামানোর জন্য করি।কিন্তু আমার পাশের কেউ আমার এসব দেখে আমাকে পাগল ভাবাটাই স্বাভাবিক।আমি এসবের জন্য পড়াশুনায় মনযোগ দিতে পারিনা মাঝেমধ্যে।আগে এত বেশি ছিলোনা।দিন যত যাচ্ছে তত তীব্র হচ্ছে।আমি যখন বিজি থাকি তখন মনে পড়েনা।এমনকি আজ থেকে ৫বছর বা ৬/৭ বছরের আগের ঘটনাও মনে পড়া বাদ যায়না।পজিটিভ কিছু মনে পড়েনা পড়লেও আনন্দ আসেনা,দায়িত্ববোধ বেড়ে যায় এবং চাপে পড়ে যাই দায়িত্ববোধ থেকে(ভাবি যে চান্স পাইলাম এখন যদি ডাক্তার না হতে পারি?আমার লুকের কারণে আমার বিয়ে হবে কিনা আল্লাহ জানে।আমি বোঝা হয়ে যাবোনা তো?আরো ডিপ্রেসনে পড়ে যাই।তবে হ্যাঁ, আমি ছাত্রী খুবই মেধাবী না হলেও চেষ্টা করতে ক্লান্ত হইনা।আগে থেকেই আমার ফলাফল অনেক ভালো কিন্তু আমি পেসসিমস্টিক।আমার এখন কি করা উচিত,স্যার/ম্যাডাম?

উত্তর করেছেন : T.Moon

  ১ সপ্তাহ পূর্বে

আমি একজন উনিশ বছর বয়সী মেয়ে।আমি একটি মেডিকেল কলেজের ১ম বর্ষের ছাত্রী।আমার গত ২-৩ বছর ধরে পূর্বের+বর্তমানে ঘটে যাওয়া সম নেগেটিভ কাহিনী প্রতিদিন প্রায়ই মনে পড়ে।আর এ স্মৃতিগুলো এমন যেগুলো আমাকে বিরক্ত করে যদিও বিষয়গুলো সিরিয়াস কিছুনা অন্যের কাছে।যেমনঃহঠাৎ করেই মনে পড়বে অমুক দিনে আমি কারো থেকে অপমানিত হয়েছিলাম বা আমি আমার শিক্ষক এর সামনে বোকার মতো উল্টাপাল্টা উত্তর দিয়েছি বা আমার এমন কিছু ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র ভূল যার জন্য নিজেই নিজের কাছে অস্বস্তিকর হয়ে গেছি(যেমনঃআমার বন্ধু দের ভুল ডেমো দিয়েছি না জেনেই,বোকার মতো অনেক কাজ করেছি<বাজে ভাবে কোণ আইসক্রিম খেয়েছি প্রথম যেদিন খাই>ইত্যাদি।আমি দেখতে ভালোনা, মানুষ আমাকে দেখলে ৫মিনিট বেশি তাকিয়ে থাকে,মনে মনে হয়ত আমাকে নিয়ে অনেক কিছু নেগেটিভ ভাবে।এমনকি আমার প্রতিবেশী বলেছিলো,আমাকে দেখে নাকি বাড়ির মেয়ে মনে হয়না,মনে হয় কাজের মেয়ে।আমি কালো এবং ট্যারা।মানুষের দিকে তাকালে তারা বুঝতে পারেনা কোন দিকে তাকিয়ে আছি এটা খুবই বিব্রতকর।আমার তেমন বেশি ফ্রেন্ডও নেই।নিজের লুকের জন্য অনেকবার বর্ণবাদের শিকার হয়েছি এবং হই।তবে আল্লাহর রহমতে আমার বাবা মা ভাই বোন তাদের সবটা দিয়ে আমাকে ভালোবাসে।আমি অনেক ডিপ ইন্ট্রোভার্ট। তার মধ্যে জীবনে প্রথম আমাকে থাকতে হচ্ছে হোস্টেলে অনেক মানুষের মাঝে(২৮জন এক রুমে)।এত মানুষের মাঝে ফ্রি হতে পারিনা।এখন লকডাউনে বাসায় তবে হোস্টেলে যাওয়ার কথা ভাবলেই আমার বিরক্ত আর কষ্ট হয়। বিষয়গুলো অন্যের কাছে খুবই তুচ্ছ কিন্তু এই বিষয়গুলোই আমাকে পীড়া দেয়।এবং আমি অনেকটা জোরেই শব্দ করে আমার মনকে বলি,"চুপ,বিরক্ত করোনা,ভাল্লাগেনাআবার নিজের নাম ধরে নিজেই ডাকি"এটা সম্পূর্ণ আমার মনকে থামানোর জন্য করি।কিন্তু আমার পাশের কেউ আমার এসব দেখে আমাকে পাগল ভাবাটাই স্বাভাবিক।আমি এসবের জন্য পড়াশুনায় মনযোগ দিতে পারিনা মাঝেমধ্যে।আগে এত বেশি ছিলোনা।দিন যত যাচ্ছে তত তীব্র হচ্ছে।আমি যখন বিজি থাকি তখন মনে পড়েনা।এমনকি আজ থেকে ৫বছর বা ৬/৭ বছরের আগের ঘটনাও মনে পড়া বাদ যায়না।পজিটিভ কিছু মনে পড়েনা পড়লেও আনন্দ আসেনা,দায়িত্ববোধ বেড়ে যায় এবং চাপে পড়ে যাই দায়িত্ববোধ থেকে(ভাবি যে চান্স পাইলাম এখন যদি ডাক্তার না হতে পারি?আমার লুকের কারণে আমার বিয়ে হবে কিনা আল্লাহ জানে।আমি বোঝা হয়ে যাবোনা তো?আরো ডিপ্রেসনে পড়ে যাই।তবে হ্যাঁ, আমি ছাত্রী খুবই মেধাবী না হলেও চেষ্টা করতে ক্লান্ত হইনা।আগে থেকেই আমার ফলাফল অনেক ভালো কিন্তু আমি পেসসিমস্টিক।আমার এখন কি করা উচিত,স্যার/ম্যাডাম?

উত্তর করেছেন : T.Moon

  ১ সপ্তাহ পূর্বে

প্রশ্ন করুন আপনিও