আমার দির্ঘদিন ধরে বেঁচে থাকার প্রতি অনিহা,কিছুই ভাল লাগে না, সব সময় অস্থির লাগে, কি যেন নেই, কিসের শূন্যতা বুঝতে পারিনা,প্রচন্ড রাগ হয়, শীতেও গা ঘামে। দুইবার আত্নহত্যার চেষ্টা করেছি, কিন্তু বেচেঁ গেলাম, হাসপাতালে ছিলাম। তারপর মানুষিক রোগের ডাক্তার দেখায় আব্বা আমাকে, ঔষধ খাই কিন্তুু পরির্তন বুঝিনা। ঔষধের নাম, ১.ট্যাব : সেট্রা ১০০ এম জি১+ ০+০ ২.ট্যাব :মিরটাজ৭. ৫,এম জি ০+০+১ ৩.ট্যাব :ইনডোভার ১০এম জি১+১+১ ৪.ট্যাব:রিভোট্রিল ০.৫ এম জি ০+০+১ গত তিন বছর ধরে ঔষধ গুলো খাচ্ছি, আমার আবার অাত্নহত্যার প্রতি ঝোক বাড়ছে, কি করবো বুঝতেছিনা। আমার বয়স ৩২। দয়াকরে কোন পরামর্শ কি পেতে পারি আপনার কাছে? যদি বেঁচে থাকতে পারি!!!

উত্তর করেছেন : NBA

  ১ মাস পূর্বে

আমি ১৯ বছরের একটা মেয়ে।আমার একটা step mother আছে।আসল মা ও আসে।আমি আমার stepmother  কে অনেক বেশি ঘৃণা করি।বলতে৷ গেলে দেখতেই পারি না।কারণ সে ছোটবেলা থেকে আমাকে নিয়ে অনেক কটু কথা বলতো আমাকে ক্ষ্যাত বলতো।অনেক ছোটবেলা থেকে আমাকে দেখতে বাজে,হিজরার মতো গলা এই সব বলতো আর মারতোও মাঝে মধ্য।আর বাবা আসলে বিচার দিতো।আমার বাবা বাচ্চার জন্য দ্বিতীয় বিয়ে করে।কিন্তু তবুও সে আমাকের থেকে সেই মহিলাকে বেশি priority  দিতো।তার খুব একটা দোষ দেখতো না।আর তার নামে খারাপ কথা বললে আমাকে মারতো।আর বলতো আমি কুটনী।আমার confidence  চলে গিয়েছিলো ওই মহিলার জন্য ছোটবেলা থেকে।আর আমি কারোর সাথে কথা বলতে পারতাম না।ওই মহিলা অনেক তুলনা করতো কিন্তু কেও আমাকে ছোটবেলায় বুঝতো না।আমার এক ভাই আছে যাকে ওই মহিলা নিজের নামে লিখে নেয়।এরপর থেকে প্রায় ৬ বছর আমি আমার আপন ভাই এর সাথে কথা বলি না।একই বাসায় থাকি আমরা।আমার এক টা বোন আছে যে মাঝেমধ্য আমাকে নিয়ে মজা করে অনেক তাচ্ছিল্য করে আমাকে,সে সবসময় ভাইয়ার সাথে থাকে।আমার মা সারাদিন কাজ করে বাসায়। বাবা আমার মা কে ঘুরতে বেশি নিয়ে যায় না।ওই বউ টাই সব জায়গায় যায়।ভাইয়া মাকে তার ফেন্ডদের সামনে পরিচ্য় দেয় না।বলে যে খালা হয়। আর stepmother  কে আপন মা বলে।আমার মা সারাদিন সবার জন্য রান্না করে,বাসার সব কাজ করে তবূও তাকে অনেক উচ্চস্বরে শুনতে হয় রান্না ভালো না একঘেয়েমি।ওই মহিলা কোনো কাজ করে না।কোনো রান্নাও করে না।ওই মহিলার রান্নাও আম্মু করে।এতো কিছুর পরও সকালে তাকে বলা হয় যে এতো দেরি হয় কেন নাস্তা দিতে।আম্মুকে নিয়ে কোথাও যেতে চাইলে বলে যে আমাদের খাবারের ব্যবস্তা কে করবে।আমার মনে হয় বাসায় সবাই তাকে বুয়ার মতো treat করে।আমার এই বাসায় থাকতে দম বন্ধ হয়ে আসে।আমাকে কেও বুঝে না। আমার আম্মু ওদেরকে কিছু বলে না উল্টা আমাকের উপর রাগ দেখায়। ছোটবেলা থেকে আমার দম বন্ধ হয়ে আসতো এইখানে।যদি suicide করা হারাম না হতো তাহলে আমি তাই করতাম।এখন আমার সকালে উঠতে ইচ্ছা করে না।বাসায় সারাদিন চিল্লাচিল্লি,তুলনাএটা কেন করিস ওমক তো করে না।আমার ছেলে তো করে নাই কোনোদিন।তোর জন্য আমি মারা যাব।তুই অনেক শয়তান একটা মেয়ে।ওমককে দেখ এই সব বলতে থাকে আমাকে।আমি বলেছি যে আমার depressed  লাগে। কিন্তু তাদের ধারণা  এই সব কিছুই না।তোর মনের দোষ।আমাকে কেও বুঝে না।আমার কোনো ফ্রেন্ড ও নেই।।আমার কোনো cousin ও নেই।আমার এই বাসায় থাকতে ভালো লাগে না।আমার দম বন্ধ হয়ে আসে।আমার নিজেকে মানসিক মনে হয়।আমার মনে হয় কেও আমার গলা টিপে রেখেছে।আমার মনে হয় এভাবে থাকার থেকে মরে যাওয়া ভালো।আমাকে এই বাসার কেও বুঝে না।কেও আমাকে বুঝে না কেও না আমার কিছু ভালো লাগে না।আমি পড়ালেখায় ও মন দিতে পারছি না।I want happiness..... আমি এইগুলো আর নিতে পারছি না।আপনি বলবেন না যে পরিবারের সাথে কথা বলো।কারণ আমার পরিবার বুঝবে না কিছু।ওই মহিলার নামে কথা বলায় আমাকে ঝাড়ু দিয়েও মার খেতে হয়েছে।আমি বিপথে যেতে চাই না।I Want happiness......

উত্তর করেছেন : NBA

  ১ মাস পূর্বে

প্রশ্ন করুন আপনিও