গ্রাহক,সবার ক্ষেত্রে নরমাল ডেলিভারি করা যাবে এমন নয়, কিছু ক্ষেত্রে সিজার করার প্রয়োজনীয়তা হয়, এটি গাইনী ডাক্তারের পরামর্শে করবেন, সমস্যা হয় না এক্ষেত্রে। কয়েকদিনের মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠবেন। ৩৭ সপ্তাহের পর শারীরিক অবস্থা যাচাই করে, শিশুর গঠন পরিপূর্ন হলে ডাক্তার সিজারের তারিখ দিয়ে থাকবেন। কিছু ক্ষেত্রে অবস্থা অনুযায়ী আগে করার প্রয়োজন হলে সেটিও ডাক্তার জানাবেন। 

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও