প্রিয় গ্রাহক, আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। আপনি যে লক্ষন গুলো আমাদের জানলেন তাতে মনে হচ্ছে ইনফেকশন ছড়িয়ে পরেছে।এমতাবস্থায় আপনাকে এন্টিবায়োটিক ঔষধ খেতে হবে। আপ্নার কান পরীক্ষা করতে এবং সেই রিপোর্ট অনুযায়ী আপনার চিকিৎসা চালাতে হবে।তবে এসব কিছুর জন্য কানের ডাক্তার এর পরামর্শ নিতে হবে অতি দ্রুত। এছাড়া যা করবেন >* কানের ব্যথা নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য পেইনকিলার হিসেবে প্যারাসিটামল, খেতে পারেন।>* গরম সেক দিলে কিছুটা উপকার পাবেন।* কানে কটন বাড, ম্যাচের কাঠি, পিন বা আঙুল দিয়ে চুলকাবেন না, খোঁচাবেন না।* যদি কান থেকে তরল বের হয় বা গায়ে জ্বর থাকে, তবে দেরি না করে ডাক্তারের কাছে যেতে হবে।কানে পানি যেন না জমে।পানি জমার অন্যতম কারণ গোসল করার সময় বা সাঁতার কাটতে গেলে অনেক সময়ই কানে পানি ঢুকে যায়। এ পরিস্থিতিতে অনেকেই অপর কানে ঝাঁকি দিয়ে পানি বের করার চেষ্টা করেন। অনেক সময় বের হয়ে যায়, অনেক সময় হয় না। কানে পানি ঢুকলে সঙ্গে সঙ্গে কানের লতি টেনে ধরে মাথাটা কাত করুন। তাতেও পানি বের না হলে পরিষ্কার তুলা দিয়ে সাবধানে পানি বের করে নিন। তবে কটন বাড ব্যবহার করবেন না। কটন বাড ব্যবহারে কানের পর্দার ক্ষতি হতে পারে।পানি ঢুকলে যা করবেন * যে কানে সমস্যা হচ্ছে সে কানটি শুকনা রাখুন* কানে পানি ঢোকার কারণে সমস্যা হলে সাঁতার কাটা বন্ধ রাখুন কিছু দিন* ব্যথা কমানোর জন্য কাপড় গরম করে সেক দিতে পারেন। আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি। আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন, রয়েছে পাশে সবসময়, মায়া আপা ।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও