একটা সম্পর্কের কথা বলছি, বিয়ের শুরুর দিন থেকে যতদিন বা বছর একসাথে থাকা হবে  যদি দুজনের কেউ কাউকে সহ্য করতে না পারে তারপর ও একসাথেই থাকতে হবে ভেবে সময় পার করছে ,এটার নাম কি?ধয্য?? বিয়ের প্রথম দিন থেকে যে ব্যবহার যা accept করার মতন না সেটা পাঁচ বছরে ও চেঞ্জ করা গেলো না আধো  পসিবল? এই খারাপ ব্যবহারকারির সাথে থাকাটাকে কি sacrifice বলে এই সমাজ? মুখে তুলো পিঠে কুলো,এইটা ভেবে কথায় কথায় হাতের কাছে যা পাবে ছুড়ে মারবে কিছু বলা যাবে না।। হায় !! কতটা অসহায় বোধ করছি। সবদিকেই বাধা যেন অবাধ্য না হয়ে পড়ি সব সংঙ্গা গুলো আগে থেকেই রেডি করা  ! বিশেষত নারীর জন্য ।। না পারছি গিলতে না পারছি ফেলতে । সম্পকটা একতরফা ভাবেই চলছে বেবি হওয়ার পর আরও বেশি করে এই কথাটাই কেবল মাথায় আসছে । নিজের মা বাবা ভাই বোন ছাড়া এরা িনজের বউকে এতো টুকু সম্মান বা ভালো ভাবে রাখার কথা ভাবতেই পারে না।। আজকে ছয় বছর হতে চলেছে এখনো আমাকে বা আমার পরিবারকে এরা আপন ভাবতে পারেনি। এদের ঘাড়ে এক মহুইষী মা আছেন দীঘ চার বছর ধরে অসুস্ত হয়ে বিছানায় কেবল মাএ এই মায়ের দোহাই দিয়ে এরা ভাইরা সংসার,বউ,বাচ্চা িক জিনিস বুঝে না। মাঝখানে কতগুলো সম্পক খারাপ করে রাখার কি মানে আছে?একই ঘরে িনজের আপন বড় বোনকে রাখা হয়েছে মা/শাশুড়ীর দায়িত্ব পালন করার জন্য । যার কারনে ঘরের বউরা ও হয়ে পড়েছে পরের ঘরের মেয়ে।।খুবই অরাজগতা নাইনসাফ চলছে family টাতে।।।। বলে শেষ করা যাবে না। কিছু একটা বলেন আমাকে ।। এখন আমি কি করবো??

প্রিয় গ্রাহক, আপনি অত্যন্ত সুন্দর করে গুছিয়ে আপনার সাংসারিক অবস্থা বর্ননা করেছেন। ধন্যবাদ আপনার দুঃখ গুলি শেয়ার করার জন্য মায়া আপার সাথে। প্রতিটি মেয়েই যখন বউ হয়ে স্বামীর ঘরে যায়, সে নানান সপ্ন নিয়ে যায়। নিজের একটা সংসার হবে সে নিজের হাতে সাজাবে গোছাবে। ওই বাড়িতেও মেয়ে হয়েই থাকবে। কিন্তু সেই পরিবারের অনেকেই তাকে আপন করে নিতে বা সহজভাবে নিতে পারেন না।ওই দিকে আবার স্বামী বেচারাও বিপদে, মাকে সামলাবে না বউকে। বউ এর আরেকটু বেশি টেক কেয়ার করা দরকার, সে জানে, বুঝে। কিন্তু ছোটবেলা থেকে শুনে আসছে দেখবো বিয়ের পড় মায়ের কথা, বাবার কথা, ভাই বোনের কথা মনে থাকে কিনা? নাকি সারাদিন বউ এর আঁচল ধরে ঘুরে বেড়াও। স্বামী বেচারা তখন থাকেন মহা বিপদে। নিজের স্বামীর প্রতি হয়ত অনেক রাগ জমে আছে, সেটাই স্বাভাবিক। কিন্তু অবস্থার পরিবর্তন না হলে আপনি সুস্থ থাকতে পারবেন না। তাই স্বামীকে এক্টু বুঝিয়ে বলতে পারেন। আপনাকে স্ত্রী হিসেবে দেখার আগে একজন মানুষ হিসেবে যেন দেখেন। মানুষ হিসেবে যতটুকু মূল্যায়ন করা দরকার সেটা ঠিক মত করা হচ্ছে কিনা? আপনিও এই পরিবারের অংশ। সেটা যদি তিনি ভুলে গিয়ে থাকেন তাহলে সুন্দর করে তাকে আবার মনে করিয়ে দিতে পারেন। তাদের অবজ্ঞা, অবহেলা, আপন না করে নেয়া এই বিষয় গুলি আপনাকে কতটা পীড়া দেয় সেটা শান্ত ভাবে বুঝিয়ে বলতে পারেন। আমরা আপনার পাশেই আছি। মনের কথা গুলি গোপন না করে আমাদেরকে লিখুন। ধন্যবাদ।                                

পরিচয় গোপন রেখে ফ্রিতে শারীরিক, মানসিক এবং লাইফস্টাইল বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করতে পারেন Maya অ্যাপ থেকে। অ্যাপের ডাউনলোড লিঙ্কঃ http://bit.ly/38Mq0qn


প্রশ্ন করুন আপনিও