মায়া প্রশ্নের বিস্তারিত


Avatar

প্রিয় গ্রাহক, আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। গ্রাহক, এমন কোনো ঔষধ নেই যেটা খেলে আপনি মোটা হতে পারবেন।বাজারে কিছু ঔষধ বিক্রি হয় ওজন বাড়ানোর জন্য,সেগুলো খেলে নানা রকম পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া সহ সমস্যা দেখা দিতে পারে। আপ্নার ওজন আর উচ্চতা কত? আমাদের জানাবেন।শরীরের লম্বার সঙ্গে ওজনের একটা অনুপাত থাকে,এই অনুপাতকে বডি মাস ইনডেক্স বলে BMI . শরীরের লম্বার সঙ্গে ওজনের একটা অনুপাত থাকে,এই অনুপাতকে বডি মাস ইনডেক্স বলে BMI . যেমন ধরুন আপনার উচ্চতা আর আপনার ওজনে যদি আপনার BMI 18-24.9 হয় তালে এটা নরমাল। 18 এর কম হলে, আপনাকে ওজন বাড়াতে হবে। স্বাস্থ্যকর ভাবে ওজন বাড়ানোর কিছু পদ্ধতি ও উপায়: ১। চার ঘণ্টার বেশি না খেয়ে থাকবেন না: আপনার শরীর নিয়মিত খাবারের সাপ্লাই চায়। যা শরীরকে পর্যাপ্ত শক্তির যোগান দিবে। বেশি সময় খাবার না খেয়ে থাকলে শরীরে খাদ্য ঘাটতি দেখা দিতে পারে ফলে ওজন বাড়ার বদলে উল্টো কমে যেতে পারে । খালি পেটে তো কিছুতেই থাকবেন না বরং সময়মত বেশি করে খাবার খেয়ে শরীরে খাদ্য ঘাটতি পুষিয়ে ফেলুন। ২। ক্যালরি যুক্ত খাবার বেশি করে খান: প্রচুর পরিমাণে ক্যালরি যুক্ত খাবার গ্রহণ করুন। যেমন: বাদাম এবং শস্যদানা, চকোলেট, বাদামের মাখন, চিংড়ি, স্ট্রবেরী, কন্ডেনস্‌ড মিল্ক, ডিম, সয়াবিন, কিসমিস, খেজুর, নারকেল দুধ, বাদামী চাল, ওটমিল, বাটার বা তাহিনি, দই, কলা, অলিভ অয়েল, আঙুরের জুস, আনারস, আপেল, কমলা। দুগ্ধজাত খাবার এবং উচ্চ প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার যথা মাছ, মাংস ইত্যাদি থাকতে হবে প্রতি বেলার খাদ্য তালিকায়। ড্রিংক হিসাবে কলা, খেজুর এর সাথে একটু মাখন, দুধ অথবা আম, পেস্তা বাদাম, স্ট্রবেরি, কমলা ইত্যাদি শ্রেষ্ঠ পুষ্টিকর উপাদান দিয়ে জুস তৈরি করে হাতের কাছে রাখুন। এগুলো আপনার শরীরের মাংস পেশীগুলোকে সুগঠিত করতে যথেষ্ট প্রোটিন সরবরাহ করবে। ৫। ঘুমাবার ঠিক আগেই দুধ ও মধু খান: রাতের বেলা ঘুমাবার আগে অবশ্যই বেশ পুষ্টিকর কিছু খাবেন। ঘুমাবার আগে প্রতিদিন এক গ্লাস ঘন দুধের মাঝে বেশ অনেকটা মধু মিশিয়ে খেয়ে নিবেন। ৬। নিয়মিত ব্যায়াম শুরু করুন: আমাদের সবার ধারণা ব্যায়াম শুধু ওজন কমানোর জন্যই কাজ করে। কিন্তু এটি ঠিক নয়। ব্যায়াম করলে শরীর একটিভ হয় এবং পুষ্টি উপাদানগুলো ঠিক মতো কাজে লাগে। ঠিক সময়ে ক্ষুধা লাগে, এবং তখন খাদ্য গ্রহণের রুচিও বৃদ্ধি পায়। প্রতিদিন হালকা কিছু ব্যায়ামই এর জন্য যথেষ্ট। ৭। পর্যাপ্ত ঘুমান ও দুশ্চিন্তা মুক্ত থাকুন: আপনার খাদ্যাভ্যাস আর শরীর চর্চার পাশাপাশি যেই জিনিসটা লাগবে তা হলো পর্যাপ্ত ঘুম এবং দুশ্চিন্তা মুক্ত থাকা। দৈনিক ৮-৯ ঘণ্টা ঘুম এবং অন্যান্য বিষয়গুলো মেনে চললে আশা করা যায় আপনার ওজন বাড়ানোর লক্ষ্য পূরণ হবেই। ব্রেনের উপর কোনো চাপ নেবেন না। ৮। প্রচুর শাক সবজি ও ফল খান অনেক ফল আর সবজি আছে যারা কিনা উচ্চ ক্যালোরি যুক্ত। যেমন- আম, কাঁঠাল, লিচু, কলা, পাকা পেঁপে, মিষ্টি কুমড়া, মিষ্টি আলু, কাঁচা কলা ইত্যাদি। ফল ও সবজি খেলে স্বাস্থ্য জম্ন ভালো থাকবে, তেমনি ওজনও বাড়বে ওজন ধীরে ধীরে বাড়ানো উচিত।এরপরেওযদি ওজন না বারে অথবা ওজন কমে যায় তাহলে ডাক্তার দেখানো উচিত। আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি। আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন, রয়েছে পাশে সবসময়, মায়া আপা ।

উত্তর করেছেন : Dr. S Ara

  প্রশ্ন করা হয়েছে 4 months ago
To See It On App

সম্পর্কিত প্রস্নসমুহ

Internet Org


আমার বয়স ২২ বছর ৯ মাস ওজন ৫০+ কেজি উচ্চতা ৫ ফুট ৩-৪ ইঞ্চি ....
আরও দেখুন

Internet Org


amar ojon hothat kora koma  jassa ar shoril cikon hossa ki upai asa bolan ....
আরও দেখুন

বিশেষজ্ঞের সাথে কথা বলুন বিনামূল্যে - On Google Play