প্রিয় গ্রাহক গুরুত্বপুর্ন প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। ছাত্র জীবন জিবনের গুরুত্বপুর্ন সময় আর এই সময়ের গুরুত্ব বুঝে নিজেকে পড়াশোনার মাধ্যমে প্রস্তুত করতে চাচ্ছেন যা খুবি ইতিবাচক। কতদিন থেকে পড়ায় মনোযোগ দিতে সমস্যা হচ্ছে তাকি জানানো যায় ? পড়ায় মনোযোগ দিতে না পারাই আপনি কেমন অনুভব করে থাকেন তা কি আমার শেয়ার করা যায়? এতে করে আপনাকে সাহায্য করা সহজ হত। পরীক্ষই ভালো করার জন্য সর্বপ্রথম যেটা দরকার তা হলো নিজের শারীরিক ও মানুষিক স্বাস্থ্যের যত্ন নেওয়ার চেষ্টা করা। কারন আপনি যখন শারীরিক ও মানুষিক ভাবে সুস্থ্য থাকবেন তখন পড়াশোনাই আগ্রহ বেশি থাকবে ও পড়া দ্রুত মুখস্থ হবে। তাই নিজেকে শারীরিক ভাবে সুস্থ্য রাখার জন্য নিয়মিত সময় অনুযায়ী খাওয়া, গোসল করা ও নূন্যতম ৬/৭  ঘণ্টা ঘুমানো। রাত ১১/১২ মধ্যে ঘুমিয়ে পড়া। অনিয়মিত ঘুম পড়ায় মনোযোগ কমিয়ে দেয়। তাই রাতে নিয়ম করে ১২ টার মধ্যে ঘুমিয়ে পড়ার অভাস করুন।মানুষিক স্বাস্থ্য শারীরিক স্বাস্থ্যেরমত গুরুত্বপুর্ন। মানুষিক স্বাস্থ্যে যত্ন নিতে নিয়মিত খেলাধুলা, বিভিন্ন প্রতিযোগিতামূলক খালাই অন্যকোন অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করতে পারেন। এতে করে আপনার সামাজিক দক্ষতা বাড়বে, যা আপনা মাঝে পড়াই উৎসাহ উদ্দীপনা তৈরি করতে সাহায্য করতে পারে। এর দ্বারা আপনি ধর্য্য, সহিষ্ণুতা ও অধ্যাবসায় অর্জন করতে পারবেন যা আপনার জিবনের সফলতা অর্জনে সাহায্য করতে পারে। পড়াকে জমিয়ে না রেখে প্রতিদিনের পড়া প্রতিদিন সম্পূর্ন করে ফেলতে পারেন। ফলে পরীক্ষর প্রস্তুতিও ভালো হবে। সহজ বিষয়গুলো দিয়ে আগে পড়া শুরু করতে পারেন, এতে করে পড়াই উৎসাহ তৈরি হবে যা পরবর্তী পড়ায় অনুপ্রেরণা হিসাবে কাজ করতে পারে। যে বিষয়গুলো কঠিন সেই বিষয়গুলো বারবার চর্চা করুন তাহলে কঠিন পড়াও সহজ মনে হবে। এছাড়া কঠিন পড়াগুলো বন্ধুদের সাথে আলোচনা করে পড়লে ভালো মনে থাকে।প্রিয় গ্রাহক পড়াই যে বিষয়গুলো মনোযোগ ব্যহত করে সে বিষয়গুলো কি খুজার চেষ্টা করা যাই?  পড়ার সময় কোন বিষয়গুলো মাথাই আসে তা খাতাই লিখে রাখতে পারেন, সমস্যা নির্নয় হলে তা সমাধানের চেষ্টা করে দেখতে পারেন। শব্দ মনোযোগ কমিয়ে দিয়ে থাকে তাই পরার সময় শব্দহীন পরিবেশ তৈরী করতে পারেন এতে মনোযোগ  বাড়তে পারে।  পরার টেবিল পরিষ্কার ও বই গুছিয়ে রাখতে পারেন, এতে পড়ার পরিবেশ সুন্দর হবে ও মনোযোগ বাড়তে পারে। পড়ার সময় টিভি,ট্যাব, মোবাইল ফোন, ও কম্পিউটারের ব্যবহার পড়াই মনোযোগ কমিয়ে দিয়ে থাকে তাই পড়ারর সময় এগুলোর ব্যবহার না করা ভালো কিনা ভাবে দেখতে পারেন। সামগ্রিক ভাবে এই টিপসগুলো পরীক্ষায় ভালো ফল করতে সাহায্য করতে পারে। আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি।আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন,রয়েছে পাশে সবসময়,মায়া আপা ।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও