প্রিয় গ্রাহক, আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। আপনি জানিয়েছেন আপনার স্বামীর শারীরিক চাহিদা আপনার তূলনায় অনেক কম। ব্যাপারটা নিয়ে আপনি মানসিক ভাবে অশান্তিতে আছেন তা আমি বুঝতে পারছি গ্রাহক। নিজের ভালো থাকার প্রতি সচেতন হয়ে এখানে সাহায্য চেয়েছেন তারজন্য আন্তরিক সাধুবাদ জানাচ্ছি আপনাকে। যৌন সম্পর্ক যেকোন স্বাভাবিক ও সুস্থ মানুষের জীবনেই অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। এবং এটি শুধু শারীরিক নয়, বরং মানসিক ভাবেও যুক্ত থাকার মতোই একটা ব্যাপার। মানুষ হিসেবে শারীরিক চাহিদা কম বেশিও হতে পারে, যা খুবই স্বাভাবিক। যেহেতু শারীরিক সম্পর্কে মানসিক সংযুক্তি বা বন্ধনও জড়িত, তাই চেষ্টা করুন ব্যাপারটা পুরোপুরি শারীরিক ভাবে না করতে। ফোরপ্লে ও আফটার প্লের প্রতি আরও মনোযোগী হতে পারেন। এগুলোও কিন্তু সেক্স টাইমের আওতায় পড়ে তাই এইগুলো গুরুত্ব সহকারে নিন। আপনার স্বামীর পছন্দ অনুযায়ী ফোর প্লে ও আফটার প্লে করতে পারেন। স্বামীর সাথে এগুলো নিয়ে খোলাখুলি আলোচনা করে নিতে পারেন। তিনি কিভাবে আপনাকে চাইছেন, বা আপনিও কিভাবে চাইছেন তা নিয়ে আলোচনা করে নিতে পারেন। সেক্সুয়াল ইন্টারকোর্স ছাড়া আর কি কি সেক্সুয়াল আচরণ আপনার পছন্দ এগুলো তাকে জানাতে পারেন। সেইসাথে তার পছন্দ ও অপছন্দ গুলোও জেনে রাখুন। এবং সেভাবেই দুইজন মিলে সবকিছু করতে চেষ্টা করতে পারেন। এছাড়া আপনি কোন দুশ্চিন্তা না করতে চেষ্টা করুন। অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা মানুষের মনোযোগ নষ্ট করে দেয় ফলে তা পারফরম্যান্স এর উপর প্রভাব ফেলতে পারে। আপনার স্বামীকেও দুশ্চিন্তা করতে মানা করতে পারেন। তার অপারগতা নিয়ে কোন কথা না বলে তার সাথে আপনার কাটানো সুন্দর ও উপভোগ্য যে সময় গুলো ছিলো, সেগুলো নিয়ে বেশি করে কথা বলতে পারেন। এতে সে নিজের মধ্যে আত্মবিশ্বাস পাবে। আপনি নিজেও নিজের প্রতি যত্নশীল হতে চেষ্টা করতে পারেন। পরিমিত ঘুম ও বিশ্রাম নিশ্চিত করুন, দুজনের জন্যই সঠিক খাদ্যাভ্যাস গড়ে তুলতে পারেন। আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি। আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন, রয়েছে পাশে সবসময়, মায়া।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও