প্রিয় গ্রাহক,

আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ।

আপনার খাদ্য এবং ত্বক ও শরীরের সামগ্রিক যত্ন সাথে ব্রন সম্পর্কিত ।আপনার যদি অনেক ব্রন হয় তাহলে চর্বিযুক্ত খাদ্য এবং দুগ্ধ পণ্য খাওয়া এড়াতে হবে। এছাড়াও চকলেট না খাওয়া ভাল। গরম মৌসুমে অনেক পানি পান করুন(৮ গ্লাস প্রত্যেকের জন্য নূন্যতম প্রয়োজন হয়)এবং সম্ভব হলে ডাবের পানি খাবেন। একটি তুলো ডাবের পানি তে ভিজিয়ে আপনার মুখ টা মুছে নিন, প্রতিদিন সকালে বা গোসল এর আগে। এটি প্রাকৃতিকভাবে ব্রন সম্পর্কিত দাগ দূর করতে সাহায্য করে। যদি সম্ভব হয়, নিম পাতা এবং তাজা কাঁচা হলুদ এবং কালো জিরা মিশিয়ে প্রতিদিন সকালে খুব অল্প পরিমান এ খাবেন ।
 এছাড়াও constipation ও হজমের সমস্যার ফলে ব্রন হতে পারে। নিম, কাঁচা হলুদ ও কালো জিরা আপনার পেট এর জন্য খুব ভাল এবং আপনার পরিপাকতন্ত্র কে পরিষ্কার রাখবে । নিয়মিত ব্যায়াম করলে আপনার ত্বক এর ছিদ্র গুলো খুলে যাবে এবং আপনার রক্তচলাচল বেরে যাবে। তবে ঘেমে গেলে আবার ত্বক এ ময়লা জমতে পারে তাই এক্সারসাইজ এর পর গোসল করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। 
গ্রাহক আপনার কি পর্যাপ্ত ঘুম হয়? ঘুম ঠিক মত না হলে ব্রন দেখা দিতে পারে। যদি অনেক ব্রন থাকে তাহলেDifferin (adapalene) এই ঔষধ টা মুখে লাগাতে পারেন দুই বেলা । তবে জেনে রাখা ভাল যে ঔষধ স্বল্পমেয়াদী সাহায্য করতে পারে,তবে যদি একটি দীর্ঘমেয়াদী সমাধান চান তাহলে আপনার জীবনধারা পরিবর্তনের চেষ্টা করুন।


ত্বকের স্বাস্থ্য ভালো থাকলে এধরণের সমস্যা কম হয়। নিয়মিত ত্বক পরিষ্কার রাখুন, ঘুমান, পর্যাপ্ত পানি পান করুন, ময়েশচারাইজার এবং সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন। কালো দাগ দূর করতে মধু+দারচিনির প্যাক ব্যবহার করুন। নখ দিয়ে খুছাবেন না। 

পায়খানা নিয়মিত করার উপায়ঃ

১. কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করার জন্য বেশি করে শাকসবজি, ফলমূল ও আঁশযুক্ত খাবার খেতে হবে;

২. বেশি করে পানি খেতে হবে;

৩.দুশ্চিন্তা দূর করতে হবে;

৪. যারা সারাদিন বসে কাজ করেন তাদের নিয়মিত ব্যায়াম করতে হবে এবং

৫. যেসব রোগের জন্য কোষ্ঠকাঠিন্য হয় তার চিকিৎসা করতে হবে। 
৬ নিয়মিত ভুসি খেতে হবে;

৭  পায়খানা কষা করে এমন খাবার থেকে আপাতত খাবেন না জেমন-পলাউর চাল, পরাটা, ঘি, আয়রন ও যিঙ্ক যুক্ত খাবার ইত্যাদি।


আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি।

আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন,

রয়েছে পাশে সবসময়,

মায়া আপা ।

সমস্যা নিয়ে বসে থাকবেন না !

পরিচয় গোপন রেখে ফ্রি বিশেষজ্ঞ পরামর্শ পেতে

প্রশ্ন করুন এখনই

মায়া অ্যাপে পড়ুন