প্রিয় গ্রাহক,আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ।গ্রাহক ছুলি এমন একটি ছত্রাকজনিত চর্ম রোগ যা একবার হলে যদি দ্রুত চিকিৎসা নেয়া হয় তাহলে ভাল হয়ে যায়।তবে যদি অনেক দিন চিকিৎসা না করা হয়, সারা শরীরে ছড়িয়ে যায়, অনেক বড় জায়গায় হয়ে যায়, তখন শুধু মলমে এটি শেষ হয় না। সে ক্ষেত্রে  খাওয়ার জন্য একটি ওষুধ দিতে হয়। ওষুধটি এক থেকে দেড় মাস খেতে হয়। সঙ্গে মলম দিতে হয়। তখন পুরোপুরি রোগ নিরাময় হয়।তাই আপনি আপনার ডাক্তার এর পরামর্শ মত ওষুধ গ্রহন করতে থাকুন। কিন্তু কিছু বিষয় খেয়াল রাখার আছে। ক্ষতস্থান বা আক্রান্ত স্থানে সাবান বা শ্যাম্পু লাগানো যাবে না। সাধারণ সাবান, শ্যাম্পু এই রোগগুলো আরো বাড়িয়ে দেয়।এ রোগের ক্ষেত্রে ওষুধ দেওয়া আলাদা সাবান ও শ্যাম্পু পাওয়া যায়। সামগ্রিকভাবে এক মাস বা দুই মাসের জন্য ওই সময়ে অন্য সাবান, শ্যাম্পু বন্ধ রেখে, এইসব বিশেষ সাবান বা শ্যাম্পু ব্যবহার করতে হয় । এতে কোনো ক্ষতি করবে না। সাবান-শ্যাম্পুর কাজও হয়ে যায়।এধরণের কোন ক্রিমনেই যেটা ব্যবহার করে আপনার ত্বক ফর্সা হবে. বাজারে যে ত্বক ফর্সাকারী ক্রিম পাওয়া যায় সেগুলো কিছুদিনেরজন্য আপনার ত্বকের মেলানিন কমিয়ে দেয়, এতে কিছুদিনের জন্য আপনারত্বক ফর্সা দেখা যায়. এরপর আবার আগের মত হয়ে যায়, তাই এই ক্রিমগুলো ব্যবহার চালিয়ে যেতে হয়. এত লম্বা সময়ধরে এই ক্রিমগুলো ব্যবহার করার ফলে ত্বকের মেলানিন এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় উপাদান কমেযায়, এতে ত্বক ফর্সা হয় ঠিকই কিন্তু রোদের অতিবেগুনি রশ্মি ওঅন্যান্য ক্ষতিকর উপাদানের বিরুদ্ধে ত্বককে আর রক্ষা করতে পারে না, কারণ ত্বকের প্রয়োজনীয় মেলানিন তখন আর ত্বকে থাকে না. এতে ত্বকের ক্যান্সারসহ নানান ধরণের সমস্যা দেখা দেয়. তাই, গ্রাহক ফর্সা ত্বকের চেয়ে একটি সুস্থ ত্বক বেশিপ্রয়োজন. ঘরোয়া পদ্ধতিতে ত্বককে সুস্থ রেখে ত্বকের ঔজ্জ্বল্যবাড়ানো যায়। এর জন্য আপনাকে নিয়মিত ত্বক এবং মাথার ত্বকের যত্ননিতে হবে। প্রতিদিন ৬-৮ ঘণ্টা ঘুমান। ৮ গ্লাস করেপানি পান করুন। মাথার ত্বক এবং ত্বক দুইই পরিষ্কার রাখুন। সপ্তাহে একদিন আপনার বিছানা চাদর, বালিশের কভার, চিরুনি, তোয়ালে গরমপানি দিয়ে ধুয়ে দিবেন। আলাদা তোয়ালেব্যবহার করবেন। দিনে কমপক্ষে দুবার শুধু পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলবেন। দিনে অন্তত একবার ময়েশ্চারাইজিং ক্রিম ব্যবহার করবেন। আপনার ত্বকের ধরন অনুযায়ী ফেইসওয়াশ ব্যবহার করুন। কোষ্ঠকাঠিন্য থাকলে তা দূর করার জন্য কাজ করুন। পেট পরিষ্কার না থাকলেও ত্বক অনুজ্জ্বল দেখায়। শারীরিক পরিশ্রম করুন,এতে ত্বকেঅক্সিজেন এর সরবরাহ বাড়বে। এর ফলে ত্বকউজ্জ্বল হয়ে উঠবে।ত্বকের ঔজ্জ্বল্য বাড়াতে দুধ ১/২ চা চামচ + লেবুর রস ১/২ চা চামচ+আটা ১ চা চামচ + হলুদ ১চিমটি নিয়ে মিশ্রণটি ১৫মিনিট মুখে রাখবেন। এরপর মুখ ধুয়েফেলবেন। তবে, মুখে লাগানোরআগে দেখে নিবেন হলুদ এবং লেবুর রসে আপনার ত্বকে সংবেদনশীলতা বা অ্যালার্জি আছে কিনা। আশা করছি আপনার সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে। শুভকামনা রইল। ধন্যবাদ, মায়া আপা(লাইফ স্টাইল টিম)আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি।আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন,রয়েছে পাশে সবসময়,মায়া আপা ।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও