প্রিয় গ্রাহক,আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ।সিজার এর সময় কোমড়ে একটি ইঞ্জেক্সান দেয়া হয় আপনার নিচের অংশ অবশ করার জন্য, এটি থেকে এমন ব্যাথা হতে পারে। আবার আপনার অন্য কোন কারনেও ব্যাথা হতে পারে। ৯০ শতাংশের বেশি কোমরব্যথার কারণ তেমন কোনো জটিল রোগ নয়, বরং ভুল ও মন্দ অভ্যাসের কারণেই হয়ে থাকে৷ দৈনন্দিন কাজকর্মে মেরুদণ্ডের ওপর অতিরিক্ত ও অসম চাপের কারণে বেশির ভাগ কোমরব্যথার শুরু৷ তাই এই কোমরব্যথা এড়াতে পাল্টে ফেলতে হবে কিছু অভ্যাস: ১. শক্ত ও সমান বিছানায় ঘুমাবেন, একটা মাঝারি পাতলা বালিশ ব্যবহার করবেন৷ ফোমের বিছানা, সোফা ইত্যাদিতে শোয়ার অভ্যাস ত্যাগ করুন৷ ২. মেঝে থেকে কিছু তোলার সময় কোমর বাঁকিয়ে নয়, সোজা হয়ে বসে তুলবেন৷ ৩. চেয়ারে বসার সময় ঘাড় ও পিঠ সোজা রেখে বসবেন৷ ৪. টানা বেশিক্ষণ দাঁড়িয়ে অথবা বসে থাকবেন না৷ ৫. ঝুঁকে কাজ করবেন না৷ কোনো ব্যথায় আক্রান্ত ব্যক্তিরা ভারী জিনিস, যেমন বেশি ওজনের থলি, হাঁড়ি, পানিভর্তি বালতি ইত্যাদি বহন করবেন না৷৬. পিঁড়িতে বসে কাজ যেমন মাছ কাটা, শাকসবজি কাটা ঠিক নয়৷ এগুলো দাঁড়িয়ে বা বসে টেবিল ব্যবহার করে করবেন৷ ৭. সিঁড়িতে ওঠার সময় মেরুদণ্ড সোজা রেখে ধীরে ধীরে উঠবেন ও নামবেন৷ ৮. হাইহিল জুতা পরিহার করুন৷ ৯. ওজন কমান৷ ১০. ঘুম থেকে ওঠার সময় যেকোনো একদিকে কাত হয়ে উঠবেন।বেশি করে পানি খাবেন যদি এটি অপারেশনের ব্যাথা হয়ে থাকে যাতে করে তা সেরে যায়।আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি।আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন,রয়েছে পাশে সবসময়,মায়া আপা ।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও