গ্রাহক আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ । আপনার কয়দিন জাবত এ সমস্যা দেখা দিচ্ছে ? সাথে কি অন্য কোনো উপসর্গ রয়েছে ?  আপনার এখন কি কি শারীরিক সমস্যা দেখা দিচ্ছে ? প্রেগ্নেন্সিতে প্রথম থেকেই একজন ডাক্তারের পরামর্শে থাকতে হয় , একে antenatal checkup বলা হয় । যা মা ও শিশুর সুস্থতা নিশ্চিত করতে সহায়ক । প্রেগ্নেন্সির সাথে সৃতি শক্তি কমে যাওয়ার কোনো সম্পর্ক নেই । আপনি কি কোনো কিছু নিয়ে বেশি দুশ্চিন্তা করছেন ? ভুলে যাওয়ার সমস্যাটিকে dementia বলা হয় । যা বয়স্কদের জন্য অতি সাধারণ । বয়স হলে মস্তিষ্কের কিছু পরিবর্তনের জন্য বা মস্তিষ্কের অন্য কোনো সমস্যার জন্য এমনটি হয়ে থাকে ।তবে শুধু বয়স বারার কারনেই এটি হয়ে থাকে এমনটি নয় ।  এর অন্য কিছু কারনও রয়েছে । যেমন- বেশি দুশ্চিন্তা করা , সবসময় তাড়াহুড়া করা , একটানা ব্যস্ততার মধ্যে জিবন কাটানো, ব্রেনের রক্তনালীর কিছু রোগ , মাথায় কোনো আঘাত পাওয়া , মদপান বা নেসা জাতিয় কিছু সেবন এসব কারনেও হতে পারে । আপনি কিছু জিনিশ মেনে চলতে পারেন । জেমন - দুশ্চিন্তা কমিয়ে ফেলা , মাথা ঠাণ্ডা রেখে কাজ করা , কাজের ব্যস্ততার মধ্যেও একটি সময় পরিবারের সাথে কাটানো , নিজের কাছে একটা নোটবুক রাখা যেটাতে সবসময় নিজের কাজের তালিকা তৈরি করা এবং যে অনুযায়ী কাজ করা ।  আপনার বেশি সমস্যা দেখা দিলে নিক্টস্ত হাসপাতালে neurology ডাক্তারের পরামর্শে কিছু ব্রেনের টেস্টের মাদ্ধমে সঠিক চিকিৎসা গ্রহণ করতে পারেন ।এখন থেকে আপনি কিছু জিনিস মেনে চলবেন , যেমন - পুষ্টিকর খাবার খাবেন , আগে যা খেতেন তা থেকে ১ মুঠ বেশি খাবেন , দৈনিক ৮-১০ গ্লাস পানি পান করবেন, দুশ্চিন্তা করবেন না , দুপুরে ২ ঘণ্টা ও রাতে ৭-৮ ঘণ্টা ঘুমাবেন , ভারি কিছু উঠাবেন না , ভারি কিছু উঠাবেন না, দুরের যাত্রা যাওয়া থেকে বিরত থাকবেন । ভাত , রুটি , মাছ, মাংস , সবজি , ফল মুল , দুধ , ডিম খাবেন ।ডাক্তারের অনুমতি ছাড়া কোন ঔষধ গ্রহন করবেন না, তা আপনার ও বাচ্চার জন্য ক্ষতিকারক হবে । আপনার গর্ভ কালিন সময়  কোনো সমস্যা দেখা দিলে , নিক্টস্ত হাসপাতালে গাইনী ডাক্তারের  পরামর্শ গ্রহণ ক্রুন । ধন্যবাদ ।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও