ami akta cele k khub valobashi. aj theke around 5 years age amar tar shathe porichoy hoyesilo. 1 year par hote na hotei sele ti amak sere dey. after thats i lost my all hopes ami immature er moton kaj kori dariye thaktam rastay kanna kortam. after some times ami vabi i should focuse on my life. cele ta onno akjoner shathe rltn e jay r ai jonnei amader breakup hoy. amra ak e area te thaki tai rltn e na thakleo touch e chilam 2jon 2joner. er por 2 years chole jay mje amar akta celer shathe kotha hoy 4mash er moton amio notun rltn e chole jai kintu keno jeno ami 1st bf er jonno jemn feel kori 2nd bf er jonno kortam na amra akshathe onak time spent korteo amar 1st bf er jonno jemn feelings kaj kore oirokom kaj korto na but hae ami amar 2nd bf k o cheat korar chinta kori ni loyal chilam but se o amak cheat kore onno akjoner shathe rltn e chole jay. ami r amar 1st bf jehetu same area te thaki  kiso din por or shathe abar amar kotha hoy, amra friendly kotha bola start kori, kiso din por se amak abar propose kore. ami rltn e jai aigula amar friends na nite pere amader alakay akta jhamela kore dey and er por theke amar bf amak r trust kore na. se bole atto gulo manush amar name mittha kno bolbe, kintu ora amak amar bf er shathe abar relation e jete nished kore jar jonno ora amn kore. kiso din por por e amak amar bf mitthuk mitthabadi bole .se bole se r amak trust kore na. akn i need your help amar ki kora uchit ami ki tar shathe thakbo naki na? abar ami ta k chereo thakte pari na kosto hoy khub.

প্রিয় গ্রাহক আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। আমি অনুভব করতে পারছি যে ভালোবাসার মানুষের কাছ থেকে প্রতিনিয়ত এরকম আচরণ আপনাকে কতটা কষ্ট দিচ্ছে। আপনি বুঝতে পারছেন যে তার দিক থেকে আপনার কোনো প্রত্যাশা পূরণ হচ্ছে না। কিন্তু আপনি তাকে ছাড়তে পারছেন না।গ্রাহক এখন যে তিনি আপনার সাথে আছেন আপনি কি এখন ভালো আছেন? কিছুদিন পরপরই আপনাকে এই একই পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যেতে হবে, একই ঘটনা গুলো বারবার ঘটবে ও আপনাকে প্রতিবারই একই রকম কষ্ট পেতে হবে। ভালোবাসা থেকে আপনার এই ক্ষেত্রে কি অভ্যাসটা বেশি প্রভাব ফেলছে? সম্পর্ক টি থেকে বেরিয়ে আসতে কোন বিষয়গুলো আপনাকে বাধা দিচ্ছে তা ভালভাবে বোঝার চেষ্টা করতে পারেন। এই বাধাগুলোকে কোন উপায়ে দূর করা যায় তা ভেবে দেখতে পারেন। সম্পর্ক থেকে আপনার যেহেতু তার সাথে একটু অভ্যাস তৈরি হয়েছে তাই হঠাৎ করে তার সাথে কথা বলতে না পারলে আপনার কষ্ট হবেই। কিন্তু আপনি যে এই কষ্টকর পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে আসার জন্য পদক্ষেপ নিতে চাচ্ছেন ও আমাদের কাছে প্রশ্ন করেছেন এটা আপনার সচেতনতাই পরিচয় দেয়। যা আপনার খুবই একটি ইতিবাচক দিক। আমি বুঝতে পারছি যে আপনি নিজেকে গুরুত্ব দিচ্ছেন। ভালো থাকার জন্য নিজেকে গুরুত্ব দেয়াটা খুবই প্রয়োজন। আর আপনি নিজেকে গুরুত্ব দিচ্ছেন বলেই আপনি কিভাবে ভালো থাকতে পারবেন সেটা জানান চেষ্টা করছেন।নিজের মতো করে ভালো থাকার জন্য আপনি নিজেকে ব্যস্ত রাখতে পারেন। যে সময় গুলো আপনি তার সাথে কথা বলার জন্য রাখেন কিন্তু বলতে পারেন না সেই সময় গুলোতে আপনি নিজের শখের কাজগুলো বা ভাললাগার কাজগুলো বেশি বেশি করতে পারেন। নিজেকে বিভিন্ন রকম সৃজনশীল কাজে নিয়োজিত রাখার চেষ্টা করতে পারেন। নতুন কিছু শিখতে পারেন। এটা একদিকে যেমন আপনার স্কিল বাড়াবে তেমনি আপনাকে নিজের প্রতি অনেক বেশি আত্মবিশ্বাসী করে তুলবে।আপনি কি ভেবে দেখতে পারেন যে ভালবাসার মানুষকে সময় দিতে যেয়ে আপনি আপনার কাছের কোন মানুষ গুলোকে কম সময় দিয়েছেন।এবার একটু তাদের প্রতি মনোযোগী হওয়ার চেষ্টা করতে পারেন। তাদেরকে সময় দিতে পারেন। এভাবে আস্তে আস্তে আপনি অন্যের প্রতি নির্ভরশীলতা কমিয়ে আনতে সক্ষম হবেন ও নিজের মতো করে ভালো থাকতে পারবেন বলে আশা করছি।গ্রাহক একজনকে ভালো থাকার জন্য অবশ্যই বুঝতে হবে যে তিনি এমন কোন ব্যক্তির সাথে সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছেন কিনা যা তাকে প্রতিনিয়ত কষ্ট দিচ্ছে। বুঝতে হবে যে আপনার সম্পর্কটি টক্সিক কিনা। যদি সম্পর্কটি টক্সিক ও এবিউসিভ হয় তবে এর ভবিষ্যৎ কখনোই ভালো হবে না ও তা আপনাকে প্রতিনিয়ত কষ্ট দিতে থাকবে।গ্রাহক একটি কথা মনে রাখবেন যে সম্পর্কের সুতা কখনো কাটেনা। সম্পর্কের সুতা পচে যায়। সেই পচা সুতাতে আমরা যখন গিট দিতে চাই তখন তা ছিড়ে যায়। এরকম সম্পর্কের সুতা একদিন ছিড়বেই, আপনি যতই চেষ্টা করুন না কেন তা আপনি জোড়া লাগিয়ে রাখতে পারবেন না।তাই খারাপ পরিস্থিতিতে থাকলে নিজের ভালোর জন্য আবেগকে একপাশে সরিয়ে আমাদের অবশ্যই সেই পরিস্থিতি বা সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসার জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করতে হয়। আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি। ধন্যবাদ। মায়া।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও