গ্রাহক আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ ।গ্রাহক আপনার সম্পর্কে কিছু জানতে পারি? আপনি ছেলে না মেয়ে? আপনার বয়স কত? আপনি এই বিষয়ে কি নিজের জন্য জানতে চাচ্ছেন? নাকি আপনার পরিচিত কারো জন্য ?প্রতি মাসে একজন মেয়ের শরীর বিশেষ করে জরায়ু গর্ভধারনের জন্য তৈরি হয়। জরায়ুতে কিছু আবরন তৈরি হয় যা পরবর্তীতে ভ্রুনের জন্য প্রয়োজন। কিন্তু ওইমাসে যদি গর্ভধারণ না হয় তাহলে জরায়ুর এই আবরন এবং তার সাথে রক্ত বের হয়ে আসে একেই মাসিক বলে। মাসিক সাধারনত ১২থেকে ১৫ বছর বয়সে হয়ে থাকে তবে এই সময়ের আগে এবং পরেও হতে পারে। মাসিক প্রতিমাসে হয় এবং ৩থেকে ৭দিন পর্যন্ত চলে এইসময় অনেকের তলপেটে ব্যথা মাথাব্যথা এবং শারীরিক দুর্বলতা বোধ হয়। এই সময় যা করতে পারেনঃ বিভিন্ন পুষ্টিকর খাবার প্রচুর পানি খেতে হবে।মাসিকের সময়ে সেইসাথে প্রয়োজন মত বিশ্রাম নিতে হবে।ইনফেকশন এড়াতে পরিষ্কার পরিছন্ন থাকা জরুরি।এই সময় স্যানিটারি ন্যাপকিন বা কাপড় যেটাই ব্যবহার করা হোক তা প্রতি ৩থেকে৬ ঘণ্টা পর পর পাল্টাতে হবে।মাসিক শুরু হবার পর প্রথম ৫ থেকে ৭ বছর নিয়মিতভাবে নাও হতে পারে। যেহেতু মাসিক হরমোন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয় , তাই হরমোনের মাত্রা কম্ বেশি হলেই মাসিকের উপর প্রভাব পড়ে। এতে ভয়ের কিছু নাই। তবে মাসিক হঠাত বন্ধ হয়ে গেলে , অনিয়মিত হলে বা ৮ দিনের বেশি চললে ডাক্তার এর সাথে পরামর্শ করা উচিত। 

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও