প্রিয় গ্রাহক, আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। আপনার নাক কি বন্ধ হয়ে আছে? কোন আঘাত পেয়েছিলেন কি না? আমাদের বিস্তারিত জানাবেন। একদম গন্ধ না পাওয়াকে বলে এনোসমিয়া, কম গন্ধ পাওয়াকে বলে হাইপোসমিয়া আর বাজে গন্ধ পাওয়াকে বলে ক্যাকোসমিয়া। নাকের ভেতরে গঠনগত অথবা বিভিন্ন অসুখের জন্য প্যাথলজিক্যাল পরিবর্তনের প্রয়োজন। নাকের মধ্যবর্তী দেয়ালের জন্য গন্ধ না পাওয়ায় তেমন দেখা যায় না। বিভিন্ন প্যাথলজিক্যাল কারণগুলোর মধ্যে রয়েছে- সর্দি বা কমন কোল্ড, নাকের পলিপ, নাকের প্রদাহ (ক্রনিক), সাইনুসাইটিস, নাকের ভেতরের টিউমার, এন্ট্রাফিক রাইনাইটিস ইত্যাদি। নাকের ভেতরে ওপরের দিকে পার্শ্ব দেয়াল বা নাকের ছাদেও গন্ধ নির্ণয়ের জন্য সেনসিটিভ নার্ভ রিসিপ্টর রয়েছে। যেসব কারণে নাকের ভেতরে শ্বাসের সঙ্গে নেয়া বাতাস বাঁধাপ্রাপ্ত হবে বা উল্লিখিত স্থানে পৌঁছতে পারে না, সে কারণগুলো গন্ধ না পাওয়ার জন্য দায়ী। বেশ কিছুদিন যদি নাকে গন্ধ না পাওয়া যায় অথবা কম গন্ধ পাওয়া যায় অথবা পরিবর্তিত গন্ধ পাওয়া যায় তবে একজন নাক-কান-গলা বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নেয়া উচিত। তিনি রোগীর ইতিহাস নিয়ে পরীক্ষা করে প্রয়োজনে ইনভেস্টিগেশন করে রোগ নির্ণয় করতে চেষ্টা করেন। যদি সত্যিই কোনো অসুবিধা থাকে এর কারণ নির্ণয় করেন। প্রয়োজন মতো রোগীকে ওষুধ দিয়ে বা অপারেশনের প্রয়োজন হলে তিনি ব্যবস্থা করবেন। নাকের ভেতরের বেশির ভাগ অসুখের ওষুধ বা অপারেশন করে রোগীকে সুস্থ করা সম্ভব। তবে নাকের ভেতরের অনেক অসুখ যদি খুব বেশি দিন থাকে তবে তা দূর হলেও গন্ধ না পাওয়ার অসুবিধা থেকে যেতে পারে। নাকের ভেতরে যদি কোনো অসুবিধা না থাকে তবে প্রয়োজন অনুসারে এবং রোগের ধরন হিসেবে নিউরোসার্জন বা মানসিক রোগ বিশেষজ্ঞ প্রয়োজন মতো ব্যবস্থা নেবেন। আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি।আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন। রয়েছে পাশে সবসময় মায়া আপা 

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও