গ্রাহক আপনাকে ধন্যবাদ। গ্রাহক আপনার বয়স কত ??  কতদিন ধরে আপনার এই সমস্যা হয়েছে ? আপনার কি জ্বর আছে সাথে ? আপনার  শরীরের  কোথায় ফোড়া উঠেছে ?আপনার কি ডায়াবেটিস আছে ?? আমাদের জানান ।  শরীরের কোন অংশে সংক্রমণের কারণে যদি একটি নির্দিষ্ট জায়গায় পুঁজ জমা হয়, তখন তকে ফোড়া বলে। ফোড়ার চারপাশের ত্বক গোলাপী বা লালচে বর্ণের হয়। ফোড়া হলে এর মাথা ফোঁটা আকারে দেখা দেয়। অনেক সময় এটা ব্রণের মত হয় এবং ফেটে যেতে পারে।আপনার ফোড়াতে কি এমন মুখ বের হয়েছে ? সঠিকভাবে কাটা অথবা পরিষ্কার করতে না পারলে এর অবস্থা আরও খারাপ হয়। এমনকি এর সংক্রমণ ত্বকের ভিতরের কোষে এবং রক্ত প্রবাহে ছড়িয়ে যেতে পারে।  ফোড়া হলে করনীয়ঃ প্রথমে জীবাণুনাশক সাবান দিয়ে আক্রান্ত স্থান পরিষ্কার করে নিতে হবে।জোর করে ফোড়া গলিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করবেন না। সে ক্ষেত্রে সংক্রমণ আশপাশে ছড়িয়ে যেতে পারে।  ফোঁড়ার জায়গায়  গরম সেঁক দিতে পারেন এবং ব্যাথা বেশী হলে ভরাপেটে প্যারাসিটামল খেতে পারেন ।  একটা সাধারণ বিষফোড়া সাধারণত ৭ থেকে ১৪ দিনের মাথায় আপনা আপনিই গলে যায়। গলে যাওয়ার পর একটা উষ্ণ এবং পরিষ্কার কাপড় বা তুলা বা গজ চেপে ধরে পুঁজ বের করে আনতে হবে। অথবা একটা পরিষ্কার কাপড় গরম পানিতে ভিজিয়ে, চিপে নিয়ে হালকাভাবে ফোড়ার ওপর চেপে ধরলে ফোড়াটি গলে যেতে পারে।তারপরে অ্যান্টিবায়োটিক মলম হালকাভাবে লাগিয়ে ব্যান্ডেজ দিয়ে হালকাভাবে ঢেকে দিন।ফোড়া ধরার পর হাত ভালোভাবে ধুয়ে পরিষ্কার কাপড় দিয়ে মুছে নিতে হবে। ব্যবহার্য টাওয়েল, পোশাক-আশাক, বিছানার চাদর ইত্যাদি গরম পানিতে ধুয়ে রোঁদে শুকিয়ে নিতে হবে।  আপনাকে যেহেতু আমরা পরীক্ষা করে দেখতে পারছিনা ,তাই আপনাকে কখন ডাক্তারের কাছে যেতে হবে তা জেনে নিন - -  যদি আপনার ফোড়াটি ১ সে. মি. অথবা এক থেকে আধা ইঞ্চি বড় হয় অথবা যদি  - আপনার বহুমূত্র, ক্যান্সার, লিউকেমিয়া, রক্তনালীর সমস্যা যেমন-পেরিফেরাল ভাসকুলার ডিজিজ (Peripheral Vascular disease), রক্তের রোগ যেমন- সিকেল সেল এনিমিয়া (Sickle-cell Anemia), এইডস থাকলে । - কুঁচকি অথবা মলদ্বারের কাছাকাছি ফোড়া হলে অতিদ্রুত একজন চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত ।- ১০৪ ডিগ্রী ফারেনহাইট অথবা এর বেশি জ্বর হলে   চিকিৎসা করানো হলে ফোড়া দ্রুত ভালো হয়ে যায় ।অধিকাংশ লোকেরই এ্যান্টিবায়োটিক সেবন করার প্রয়োজন পড়ে না ।ফোড়া কেটে পুঁজ বের করে দিলে ফোড়া দ্রুত ভালো হয় ।ফোড়া ভালো হওয়ার আগ পর্যন্ত প্রতিদিন আক্রান্ত স্থান পরিষ্কার করতে হবে।   আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি।আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন,রয়েছে পাশে সবসময়,মায়া আপা ।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও