প্রিয় গ্রাহক, আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ।অনাকাঙ্ক্ষিত বিলম্বের জন্য আমরা আন্তরিকভাবে দুঃখিত। অনুগ্রহপূর্বক আপনার বর্তমান অবস্থা জানিয়ে লিখুন।জানা প্রয়োজন আপনার বয়স কত? জ্বর কতদিন ধরে? সর্দি, কাশি বা গলাব্যাথা আছে কি? করোনা ঝুঁকিপূর্ণ এলাকায় অবস্থান করছেন কি বা কোনো বহিরাগত ব্যক্তির সংস্পর্শে এসেছেন কি? কাঁপুনি দিয়ে জ্বর আসার বিভিন্ন কারন থাকতে পারে। যেমন -করোনা সংক্রমণ , ডেঙ্গু, চিকুনগুনিয়া সংক্রমণ, টাইফয়েড ফিভার, শরীরে কোনো ইনফেকশন ইত্যাদি। তবে বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে কিছু পরামর্শ অনুসরন করুন :১। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া জনসমাগম পরিহার করা, বাহিরে বের হলে গনপরিবহন ব্যাবহার এড়িয়ে চলা২। বাহিরে বের হলে মাস্ক পরিধান করা ,মানুষের সাথে করমর্দন ,আলিঙ্গন , চুম্বন বন্ধ রাখুন৩। বারবার হাত মুখ ধৌত করা সাবান বা স্যানিটাইজার ব্যাবহার করে৪।হাত না ধুয়ে চোখ , মুখ , নাক স্পর্শ না করা৫। অসুস্থ পশুপাখির সংস্পর্শে না আসা৬। প্রচুর পানি পান করা এবং ভিটামিন সি যুক্ত ফলমূল , শাকসবজি , বেশি খাওয়া। জ্বর হলে প্রাথমিকভাবে স্পঞ্জিং করা উচিত। অনেক ক্ষেত্রেই পুরো শরীর ভেজা নরম কাপড় বা তোয়ালে দিয়ে একটানা কয়েকবার আলতো করে মুছে দিলে শরীরের তাপমাত্রা কমে যায় এবং খুব ভালো বোধ করে জ্বরের সময় যতটা সম্ভব বিশ্রামে থাকতে পারলে ভালো। স্বাভাবিক খাবারের পাশাপাশি প্রচুর পরিমাণে পানি খেতে হবে এছাড়াও লেবুর রস মুখে রুচি আনতে সাহায্য করে তাই লেবু বা লেবুর শরবত খাওয়া যেতে পারে। ফলের মধ্যে আনারস, পেয়ারা বা আমলকি জাতীয় খাবার খাওয়া যেতে পারে। কাশি থাকলে ঠাণ্ডা জাতীয় খাবার যেমন- আইসক্রিম, ফ্রিজের পানি, কোল্ড ড্রিঙ্কস একেবারেই পরিহার করতে হবে। কুসুম গরম পানিতে মধু মিশিয়ে খেলে উপকৃত হবেন।৭।হাঁচি কাশি দেয়ার পরে , রোগীর সেবা দেয়ার পরে , মলত্যাগের পরে , খাবার খাওয়ার আগে এবং রান্নার আগে হাত ধুয়ে নেয়াআর যদি আপনার জ্বর (১০০ ডিগ্রী ফাঃ বা বেশি), শুকনা কাশি, শ্বাসকষ্ট, করোনা ভাইরাসের কারণে লকডাউন হওয়া কোন এলাকায় বসবাস করেন, সম্প্রতি যদি গণপরিবহন ব্যবহার করেন, বা কোন গণজামায়েতে অংশগ্রহণ করেন, আপনার যদি ডায়াবেটিস, কিডনি রোগ বা অন্য কোন কমোরবিডিটি বা দীর্ঘমেয়াদী রোগ থাকে, যদি গর্ভধারণ করে থাকেন তাহলেই সহজেই করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি রয়েছে। সেক্ষেত্রে সরকার নির্ধারিত হটলাইনে যোগাযোগ করুন।                                       রয়েছে পাশে সবসময়মায়া

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও