প্রিয় গ্রাহক, প্রশ্নটির জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। এক্ষেত্রে কিছু বিষয় জানা জরুরী। আপনার এই সমস্যাটি কতদিন যাবৎ? কোন ধরনের আঘাত পেয়েছিলেন কি? বাতজনিত কোন সমস্যা আছে? আপনার কি দীর্ঘক্ষণ এক জায়গায় বসে কাজ করতে হয়? আপনার ঘুম কি নিয়মিত হয়? আপনি কি 8 ঘণ্টার বেশি ঘুমান? ঘুমানোর পর সকাল বেলা উঠে কি ব্যথা বেশি বোধ হয়, এবং কাজ করলে কি তা আস্তে আস্তে কমে আসে? নাকি কাজ বেশি করলে মনে হয় যে ব্যথা বেড়ে যাচ্ছে? দীর্ঘক্ষন এক জায়গায় বসে জার্নি করতে হয় কি? আপনার কি কোন পজিশনে ব্যথা কম মনে হয়? অনুগ্রহপূর্বক জানাবেন। আপাতত ব্যথা কমানোর জন্য ব্যথার স্থানে কিছুক্ষণ ঠান্ডা এবং গরম সেঁক দিতে পারেন। ঠান্ডা প্রয়োগ করলে জায়গাটির স্নায়ুতন্তু কিছুটা অবশ হয়ে আসে এতে ব্যথা কমে যায়। আর গরম প্রয়োগ করলে রক্ত চলাচল বৃদ্ধি পায় ফলে জায়গাটি দ্রুত সেড়ে আসার সম্ভাবনা বৃদ্ধি পায়। সাথে সাথে আরও কিছু নিয়ম মেনে চলবেন। খুব শক্ত বা নরম বিছানায় ঘুমাতে নেই, সব সময় সমান বিছানায় ঘুমানোর চেষ্টা করবেন। অনেক সময় মাংসপেশিতে টান লাগার কারণে ব্যথা হতে পারে, এ ধরনের ব্যথা যদি অসহনীয় হয়ে ওঠে তবে সেক্ষেত্রে মাসেল রিলাক্সেন্ট দরকার হতে পারে। এক্ষেত্রে জায়গাটিকে যথাযথ বিশ্রাম দিতে হবে। এবং চলাফেরার সময় প্রয়োজনে লাম্বার করসেট কিনে তা ব্যবহার করবেন। অনেক সময় ক্যালসিয়ামের ঘাটতির কারণে এ ধরনের ব্যথা হতে পারে। এজন্য আলাদা করে ক্যালসিয়াম ট্যাবলেট খাওয়ার দরকার নেই। দৈনিক সকালে এবং বিকেলে মুখ ঢেকে 15 থেকে 20 মিনিট শরীরে রোদ লাগানোর চেষ্টা করবেন, সূর্যালোকের আল্ট্রাভায়োলেট রে প্রত্যক্ষভাবে ক্যালসিয়াম বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। খাদ্যতাালিকায় বেশি বেশি ভিটামিন-ডি’সমৃদ্ধ খাবার রাখতে হবে। এমন অনেক খাবার আছে, যেগুলো ব্যথা কমাতেও সহায়তা করে। যেমন: মধু, খেজুর, কালিজিরা, অলিভ অয়েল, তরমুজ ইত্যাদি। লাল আটার রুটি, লাল চালের ভাত এবং বেশি বেশি পানি পান করুন। গরু, খাসি ও মহিষের মাংস, অর্থাৎ লাল মাংস এড়িয়ে চলার চেষ্টা করবেন। সাথে সাথে ধুমপানের অভ্যাস থাকলে তাও ধীরে ধীরে বর্জন করুন। আশা করি এতে অনেকটাই উপকৃত হবেন। তবে যদি বিশ্রাম নেওয়ার পর ব্যথা বেশি হয়, তবে খুব সম্ভবত সেটি বাতের ব্যথা এবং এক্ষেত্রে অবশ্যই একজন রিউম্যাটোলজি বা বাত রোগ বিশেষজ্ঞের শরণাপন্ন হয়ে প্রয়োজনীয় ঔষধ এবং কিছু ব্যায়াম শিখে নেবেন। প্রয়োজনে X-ray of the Lumber spine টেস্ট টি করিয়ে রিপোর্ট আমাদের ছবি তুলে পাঠিয়ে দিতে পারেন। আশা করি কিছুটা হলেও আপনার উপকারে আসতে পেরেছি। আরও কোনো প্রশ্ন থাকলে অবশ্যই জানাবেন। যেকোনো স্বাস্থ্য তথ্য ও পরামর্শের জন্য পাশে আছি সবসময়, মায়া।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও