গ্রাহক, আপনার বয়স কত? কেন জানতে চাইছেন এই বিষয়ে? এটি একটি নেশাজাত দ্রব্য। যে পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া দেখা যায় তা হলো চোখ ও হাতের সমন্বয়ের দুর্বলতা, যার ফলে গাড়ি চালানো, মেশিনের কাজ ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়ে।শারীরিক অনেক সমস্যা, ফুসফুসের সমস্যা, শ্বাসনালী, হার্টের সমস্যা, স্নায়বিক,  মানসিক বৈকল্য ও অবসাদগ্রস্ততাও দেখা দেয়। আপনার কি গাজা সেবন করার আসক্তি তৈরি হয়েছে? এই ধরনের নেশাজাত বিষয় থেকে বের হয়ে আসার প্রথম ধাপ হচ্ছে নেশা ছেড়ে দেয়ার জন্য পর্যাপ্ত মোটিভেশন। গাজা সেবনের মাধ্যমে আপনার কি কি ক্ষতি হয়েছে এবং হচ্ছে তা একটি কাগজে লিখে ফেলুন। কি কি ঘটলে আপনি গাজা সেবন করেন তা খুজে বের করুন যেমনঃ নির্দিষ্ট কিছু বন্ধুদের আড্ডা, গাজা সেবন করার স্থানের আশে পাশ দিয়ে যাওয়া, কাছে সেবন করার মত টাকা থাকা। এ বিষয়গুলো খুজে বের করে প্রত্যেকটা কারণের জন্য প্লান করে আপনাকে এখান থেকে বের হয়ে আসতে হবে৷ একা একা এই পদ্ধতি অবলম্বন করতে সমস্যা হলে আপনি একজন ক্লিনিক্যাল সাইকোলজিস্ট বা কাউন্সেলরের শরনাপন্ন হতে পারেন। আর কোন প্রশ্ন থাকলে মায়াকে জানানা। আপনার পাশে সব সময় আছে, মায়া।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও