ধন্যবাদ গ্রাহক। আমি কি জানতে পারি আপনার বয়স কত? আপনি কি কোন ওষুধ খান? বমি কি খাওয়ার সাথে সম্পর্কিত? আপনার কি শারীরিক কোন সমস্যা আছে? আপনি কি কোন পরীক্ষা করিয়েছেন? বমির সাথে কি পেট ব্যাথা, মাথা ব্যাথা, মাথা ঘুরানো, ঝাপসা দেখা বা অন্য কোন সমস্যা কি আছে? আমাদের বিস্তারিত জানালে আপনাকে সাহায্য করা সহজ হত। গ্রাহক, অনেক কারনে বমি হতে পারে যেমন, পেটের সমস্যা, পিত্তথলিতে পাথর, মাইগ্রেন, এসিডিটি বা গ্যাসের সমস্যা। তাই সঠিক কারন জানতে আপনাকে কিছু পরীক্ষা করাতে হবে। যেহেতু আমরা বিস্তারিত কিছু জানতে পারছি না এবং কোন টেস্ট করেও দেখতে পাচ্ছি না তাই আপনি একজন মেডিসিন বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।বমি ভাব দূর করতে সবচেয়ে কার্যকরী ভেষজ ওষুধ আদা। আদা কুচি করে কেটে মুখে নিয়ে চিবুতে পারেন। এতে করে আপনার বমি ভাবটি দূর হয়ে যাবে। যারা আদার ঝাঁজ সহ্য করতে পারেন না, তারা একটু গরমপানিতে আদা সিদ্ধ রসটি মুখে নিয়ে কুলি করলে মুখ থেকে বমির বিচ্ছিরি গন্ধও দূর হয়ে যাবে।* যখনই বমি ভাব দেখবেন তখনি মুখে এক টুকরা লবঙ্গ রেখে দিন। ধীরে ধীরে চিবুতে থাকুন দেখবেন আপনার মুখ থেকে বমিভাবটি চলে গিয়েছে।* পুদিনাপাতা বমিভাব দূর করতে দারুন কার্যকর। পুদিনার রস গ্যাস্ট্রিকজনিত বমিভাব দূর করতে বেশি কার্যকরী। তাই গ্যাস্ট্রিকজনিত বমিভাবে পুদিনা পাতা মুখে দিয়ে চিবুতে থাকুন।* অনেকেই দারুচিনি চিবুতে পছন্দ করেন। দারুচিনি ভারী খাবারের পর খেলে হজমে খুব সাহায্য করে। তাই হজমের সমস্যাজনিত কারণে বমিভাব হলে খেতে পারেন এক টুকরা দারুচিনি।* টক জাতীয় খাবারের ফলে শরীরের বমিভাব দূর হয়। লেবুর রসে রয়েছে সাইট্রিক এসিড যা বমিভাব দূর করতে বেশ কার্যকরী। কিন্তু গ্যাস্ট্রিকজনিত বমির ভাব হলে লেবু না খাওয়াই ভালো। তাছাড়া বমি ভাব হলে লেবুপাতার গন্ধ উপকারে আসতে পারে। কারণ লেবুর পাতা শুকলে বমি বমি ভাব দূর হয়আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি। আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন, রয়েছে পাশে সবসময়, মায়া আপা । আশা করি উত্তর পেয়েছেন।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও