সম্মানিত গ্রাহক সন্তানের প্রতি সচেতনতার জন্য ধন্যবাদ। আর আমি অনুভব করতে আপছি সন্তানের লেখাপড়ায় তেমন মনোযোগ নেই তাই আপনি অনেকটা চিন্তিত তাইনা? গ্রাহক আপনার সন্তানের কি কোন শারীরিক সমস্যা রয়েছে? আপনি কি তাকে লেখাপড়ার জন্য খুবি চাপ দিয়ে থাকেন? সন্তানকে কি পড়াশোনার জন্য শারীরিকভাবে আঘাত ও মানসিক চাপ প্রয়োগ করা হয়? যদি এসব কাজ করে থাকেন তাহলে এগুলো থেকে দ্রুত বেরিয়ে আসতে হবে। অভিভাবক হিসাবে আপনি যা করতে পারেন তা হলো,  পাড়াশোনার জন্য সন্তানকে খুব বেশি চাপ প্রয়োগ করা থেকে বিরত থাকুন। অধিক চাপের কারনে অনেক সময় সন্তান পড়াকে বোঝা মনে করে পড়ায় উৎসাহ হারিয়ে ফেলে। শারীরিক ও মানসিক  আঘাত থেকে বিরত থেকে স্নেহ ভালবাসা দিয়ে তাকে উৎসাহীত করুন। পড়াশোনায় সন্তানের প্রতিটা প্রচেষ্টাকে মূল্যায়ন করুন ও উৎসাহীত করুন তাহলে সে পড়ায় উৎসাহ দেখাবে। আর সে কেনো গানের ক্লাস ও ড্রয়িং ক্লাসে আগ্রহ হারিয়ে ফেলছে সেই জন্য তার কথাশোনা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। গান ও ড্রয়িং ক্লাসের প্রতি তার অযৌক্তিক ধারণা থাকলে, তা যুক্তি দিয়ে বুঝানো চেস্টা করুন। আর সন্তানেকে কার সাথে তুলনা করবেননা। সন্তানকে সময় দিন ও নিয়মিত খেলাধুলা করতে উৎসাহীত করুন তাহলে সে শারীরিক ও মানসিক ভাবে সুস্থ হবে। আশা করি আপনাকে সাহায্য করেতে পেরেছি। মায়া আপনার পাশে রয়েছে সবসময়।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও