প্রিয় গ্রাহক, আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। আপনার বয়স কত ? কতদিন ধরে আপনার এই সমস্যা হয়েছে? যৌন মিলনের সময় আপনার যদি তাড়াতাড়ি বীর্যপাত হয়ে যায় তাহলে এই সমস্যা টা কে বলা হয় premature ejaculation. এটি একটি সাধারণ যৌনগত সমস্যা। এক্ষেত্রে কিছু বিষয় জানার প্রয়োজন থাকে, যেমন- কতদিন ধরে এই সমস্যা হচ্ছে, অন্য কোন শারীরিক সমস্যা বা মানসিক দুশ্চিন্তা আছে কিনা, দ্রুত বীর্যপাতের পাশাপাশি লিংগ উত্থানজনিত সমস্যাও হয় কিনা। কিছু lifestyle পরিবর্তনের মাধ্যমে আপনি উপকৃত হতে পারেন যেমন- -নিয়মিত ব্যায়াম করা -পর্যাপ্ত পরিমানে ঘুম ও বিশ্রাম নেয়া। -নিয়মিত পুষ্টিকর খাদ্য খাওয়া। -সেক্স করার আগে বেশি করে foreplay করা। -আপনার smoking বা alcohol এর অভ্যাস থাকলে তা পরিহার করুন। -আপনি relaxation technique চেষ্টা করে দেখতে পারেন। - যৌন মিলনের সময় মাইন্ড কে একটু distract করার চেষ্টা করে দেখতে পারেন। -anxiety বা depression এ ভুগলেও এমন টা হতে পারে।কোন কিছু নিয়ে বেশি দুশ্চিন্তা করবেন না। গ্রাহক,সেক্স এর সময় nervousness এর কারণে বীর্যপাত আগে আগে হয়ে যেতে পারে।তাই এই বিষয়ে আপনার পার্টনার এর সাথে খোলাখুলি কথা বলে নিবেন। সেক্স করার সময় যদি মানসিক ভাবে আপনারা একে অপরের কাছাকাছি আসতে পারেন তাহলে এই সমস্যা গুলো আর হবেনা। সেক্স এর সময় কনডম ব্যবহার করলেও এই সমস্যাটি হবেনা। এতেও কাজ না হলে শারীরিক কোন বিষয় সম্পর্কিত আছে কিনা তা দেখা প্রয়োজন। হরমোনের অস্বাভাবিক মাত্রা, বীর্যস্খলন ব্যবস্থার অস্বাভাবিক ক্রিয়া, থাইরয়েড গ্রন্থির সমস্যা, প্রোস্টেট অথবা মূত্রনালীর প্রদাহ এবং সংক্রমণসহ কিছু কারন সম্পর্কিত থাকতে পারে, তাই সেক্ষেত্রে আপনি একজন ডাক্তার দেখিয়ে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে নিতে হবে। এরজন্য,  আপনি একজন Urology specialist এর কাছে যেতে পারেন। গ্রাহক, স্বপ্নদোষ তাকে বলা হয় যখন আপনি ঘুমের মধ্যে যৌনভাবে জাগ্রত বোধ করেন এবং ফলে আপনার শরীর থেকে বীর্য নির্গত হয় বা আপনি ইজাকুলেট(ejaculate) করেন। এটা জানা জরুরী যে একজন পুরুষের জন্য স্বপ্নদোষ খুব স্বাভাবিক ব্যাপার । বিশেষত যখন তারা টিনেজ থাকে। অনেক পুরুষের প্রতি রাতেই স্বপ্নদোষ হতে পারে আবার অনেকের হয়তোবা বছরে একবার কি দুইবার । দুটোই স্বাভাবিক । স্বপ্নদোষ এর পর আপনি নিশ্চিত করবেন— আপনার অন্ডকোষ (testicle) এবং পুরুষাঙ্গ (penis) ভালভাবে ধুবেন।  এছাড়াও স্বপ্নদোষ হতে নানা কারণে পারে, যেমনঃ - বয়ঃসন্ধিকালে যৌন হরমোনের আধিক্যের জন্য - স্বাভাবিকের চেয়ে অতিরিক্ত যৌন বিষয়ক চিন্তা করা - পর্ণগ্রাফি বা নীল ছবিতে আসক্ত হওয়া - যৌন উদ্দীপক বই পড়া - শয়নকালের পূর্বে যৌন বিষয়ক চিন্তা করা বা দেখা বয়ঃসন্ধিকালে কারো কারো স্বপ্নদোষ নাও হতে পারে , এতে এটা প্রমাণ করে না যে তার সমস্যা আছে। আবার নিয়মিত হস্থমৈথুনের প্রভাবে স্বপ্নদোষের পরিমাণ হ্রাস পায়। স্বপ্নদোষের সাথে সবসময় স্বপ্ন দেখার সম্পর্ক নাও থাকতে পারে। যেহেতু স্বাভাবিক নিয়মিত স্বপ্নদোষ কোন সমস্যা নয়, তাই এর কোন চিকিৎসা নেই। তবে অস্বাভাবিক বা অতিরিক্ত স্বপ্নদোষের ব্যাপারে চিকিৎসকগণ বিভিন্ন পরামর্শ দিয়ে থাকেন। যদি আপনি মনে করেন আপনার অনেক বেশী স্বপ্নদোষ হচ্ছে, সেক্ষেত্রে আপনি নীচের বিষয়গুলো চেষ্টা করবেন— * বিছানায় যাওয়ার আগে উষ্ণ পানি দিয়ে গোসল করবেন, *কোন পর্নগ্রাফী দেখবেন না শোয়ার আগে, *ঢিলাঢালা রাতের পোশাক পরবেন, *নিয়মিত ব্যায়াম করবেন, *দুঃশ্চিন্তা কমাবেন এবং মেডিটেশন করবেন। আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি। আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন, রয়েছে পাশে সবসময়, মায়া আপা ।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও