প্রায় দুই মাসের ও বেশি সময় ধরে ঘুমের সমস্যায় ভুগছি,এর পর থেকে ঘুম হবে না এই ভয় কাজ করে ভয়ের কারণে ঘুম আসলেই হয় না,ঘুমের সময় সারাদিনের চিন্তা,ভাবনা গুলো বিক্ষিপ্ত ভাবে চোখের সামনে চলে আসে,,দুপুরবেলায়ও প্রচুর ঘুম আসে একই কারণে ভয়,বিক্ষিপ্ত ভাবনার কারণে ঘুম হয়ে ওঠেনা,তাই অস্থিরতা,আতংক,দুঃশ্চিন্তা, আজেবাজে চিন্তাভাবনা মাথায় ভর করেছে অস্বাভাবিক লাগা আরম্ভ হয়েছে বুক ধরফড় করে মনে হয় সকাল বেলা ঘুম পর্যাপ্ত হওয়ার আগে ভেংগে যায়, মেজাজ সামান্য খিটখিটে হয়ে থাকে তাই ১মাসেরও বেশি সময় ধরে ঘুমের ঔষধ নরমাল খেয়ে রাতে ঘুমায়,ঘুমের সমস্যার কারণে সারাক্ষণ শুধু ঘুম ঘুম ভাব থাকে কাজকর্ম ভারি লাগে ঘুমের চিন্তাটাই মাথায় ঘুরে, তাছাড়া কোনো বিষয় যেভাবে নেওয়া উচিত তার চেয়ে বেশি সিরিয়াস হওয়া এবং বেশি চিন্তিত হওয়া পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুমানোর জন্য,মানসিক সুস্থতার জন্য, চিন্তাভাবনার মধ্যে ভারসাম্য আনার জন্যে পরামর্শ চাই।

সম্মানিত গ্রাহক,আপনার প্রশ্নের জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। একজন সাইকোলজিস্ট হিসেবে ঘুম নিয়ে অতিরিক্ত চিন্তার কারণে ঘুম না হওয়ার সমস্যাটি প্রায়ই দেখতে পাই। আপনি যে ঘুমের চিন্তার কারণে ঘুম না হওয়ার বিষয়টি বুঝতে পেরেছেন সেটি খুবই প্রশংসনীয়। গ্রাহক, ঘুম একটি স্বাভাবিক প্রক্রিয়া, বায়োলজিকাল নিড। সুতরাং শরীর অটোমেটিকালি ঘুমাবে। এ বিষয় নিয়ে অতিরিক্ত চিন্তা করার কিছু নেই। কিন্তু ঘুমের সমস্যাটি অনেক দিন ধরে হওয়ার কারণে আপনাকে আবার একটি রুটিনে ফিরতে হবে সে জন্য আপনি যা করতে পারেনঃ প্রয়োজনীয় ঘুমের জন্য আপনি প্রতিদিন একটি নির্দিষ্ট সময়ে ঘুমানো এবং ঘুম থেকে ওঠার চেষ্টা করতে পারেন। এছাড়া রাতে ঘুমাতে যাওয়ার অন্তত ২-৩ ঘণ্টা আগে থেকে চা/কফি খাওয়া বন্ধ করুন, খুব ভারি খাবার খেতে হলে সেটাও ঘুমানোর অন্তত ২-৩ ঘণ্টা আগেই সেরে ফেলুন। ক্ষুধা পেটে নিয়েও আবার ঘুমাতে যাবেন না, হালকা কিছু খেয়ে নিতে পারেন। ঘুমাতে যাওয়ার অন্তত ৩-৪ ঘণ্টা আগে থেকে ফোন, ল্যাপটপ এসবের স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে থাকা বন্ধ করুন। নিয়মিত ব্যায়াম করুন। আপনার বিছানা শুধু আপনার ঘুমানোর কাজেই ব্যাবহার করুন। পড়াশুনা বা অন্য কোন কাজে বিছানা ব্যাবহার করা থেকে বিরত থাকুন। ঘুমানোর বেশ কিছুক্ষণ আগে থেকে নিজের কাজের গতি, ঘরের লাইট কমিয়ে দিন। আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি আর কোন প্রশ্ন থাকলে মায়া কে জানাবেন। মায়া আপনার পাশে সবসময় আছে।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও