প্রিয় গ্রাহক, আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। আপনি যে একজন সচেতন মানুষ তা আপনার কথা থেকেই বুঝতে পারছি। আসলে ছোটরা অনেক বেশি অনুকরণ প্রিয় তাই তারা সাধারণত বড়দের দেখেই শিখে। তাই তাদের সামনে আমাদের ব্যবহার গুলো বুঝে শুনে করা উচিত। শিশুদের সব সময় আদর ও খেলার ছলে শিখাতে হয় তাহলে তারা সেই বিষয় গুলো আগ্রহের সাথে করতে পারে বা নিতে পারে। কোন ভাল কাজ করলে তার প্রশংসা করা বা তার মনের মতন কিছু করতে দেয়া। আর যখন খারাপ আচরণ করবে তখন সেগুলো তে নজর না দেখা।নজর দিলে তারা ঐ বিষয় গুলো আরো বেশি করে থাকে। শিশুকে বুঝান সে আপনার কাছে কতটা মূল্যবাদ। তাহলে সে ভাল অনুভব করবেন।শিশুদের যখন কারো সাথে তুলনা করা হয় তখন তারা নিজেদের ছোট মনে করে এবং তাদের আত্মবিশ্বাস কমে যায়।তাদের ইমোশনকে বুঝার চেষ্টা করা। সে অনেক ছোট বিষয় নিয়ে মন খারাপ করতে পারে কিন্তু ঐ জিনিসটাই হয়তো সবচেয়ে মূল্যবান। তাই সব ইমোশনকে বুঝে মূল্যায়ন করার চেষ্টা করা।ভয় দেখানো থেকে দূরে থাকুন। অনেক সময় আমরা বলি ওটা ধরো না ভূত আসবে এতে তারা ভয় পায় এবং ধীরে ধীরে অবিশ্বাস তাদের মাঝে সৃষ্টি হয়। সঠিক তথ্য দেয়ার চেষ্টা করা। নেতিবাচক কথা না বলে পজিটিভ কথা বলা। আশা করি এই বিষয় গুলো একটা বাচ্চার উন্নয়নের জন্য অনেক প্রভাব ফেলতে পারবেন। আর  কোন প্রশ্ন থাকলে মায়াকে জানাবেন। আপনার প্রয়োজনে রয়েছে পাশে সব সময় মায়া।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও