প্রিয় গ্রাহক আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ।আপনি প্যানিক এ্যাটাক হলে করণীয় কী জানতে চেয়েছেন।গ্রাহক আমাকে কি বলা যায় যে আপনার এই প্রশ্নের কারণ কি। আগাম কোনও সতর্কবার্তা দিয়ে প্যানিক অ্যাটাক হয় না। যেকোনও সময় হঠাৎই এই ধরনের সমস্যা দেখা দিতে পারে। এ সময়ে অনেকেই মনে করেন তিনি মারা যাবেন বা তাঁর হার্ট অ্যাটাক হয়েছে। প্যানিক অ্যাটাক হলে যা করা যেতে পারে- নিরিবিলি বাছুন অকারণ উদ্বেগ অনুভব করলে ভিড়ভাট্টা থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়ে নিরিবিলি পরিবেশে চলে যান। আলো কম করে কিছুক্ষণ জোরে জোরে শ্বাস প্রশ্বাস নিন যতক্ষণ না আপনি মানসিকভাবে স্থির হতে পারছেন। কারও সাহায্য নিন সেই মুহূর্তে আপনার সঙ্গে যাঁরা রয়েছেন তাঁদের সঙ্গে কথা বলুন। আপনার সমস্যার কথা জানান, হাসুন, ভাগ করে নিন আপনার সমস্যাগুলো। দেখবেন হালকা লাগবে অনেকটাই। ভেষজ চা খান ক্যমোমাইল (Chamomile) চা খান। এই ভেষজ চায়ে রয়েছে এমন কিছু গুন, যা আপনার শরীর এবং মনকে হালকা হতে সাহায্য করবে। পূর্ববর্তী গবেষণা অনুযায়ী এই চা উদ্বেগ কমাতেও সাহয্য করে। পেশীকে আরাম দিন যখন মনে করছেন আপনার প্যানিক অ্যাটাক হচ্ছে ফ্রি হ্যান্ড করুন। এমন কোনও স্থান বেছে নিয়ে আপনার পেশী এবং শরীরকে কিছুক্ষণের জন্য আরাম দিন। এতে অনেকটা লাঘব হবেন আপনি। ব্যায়ামে শারীরিক শিথিলতার সঙ্গে মানসিক শান্তিও মেলে, একথা বিশেষজ্ঞরাই বলেন। এই টোটকায় ফল পাবেন হাতেনাতেই। ব্যায়াম করুন এ তো গেল প্যানিক অ্যাটাক থেকে মুক্তি পাওয়ার তৎক্ষনাৎ কৌশল। তবে রোজ সকালে হালকা ব্যায়ামের জন্য সময় বের করে নিন। অন্তত ১০ মিনিট সময় ফ্রি হ্যান্ড করুন। সমস্যার সমাধান পাবেন হাতেনাতেই।এছাড়াও আপনি রিলাক্সেশান টেকনিক ব্যবহার করতে পারেন।অতিরিক্ত চিন্তার সময় নিজেকে relax রাখার জন্য relaxation বা deep breathing করতে পারেন। মেডিটেশন বা Relaxation হল এমন একটি প্রক্রিয়া যার মাধ্যমে শরীরকে শিথিল করা যায়। মানসিক ভাবে প্রাশান্তি লাভ করা যায়। দুচিন্তা,রাগ, আবেগ, হতাশা থেকে কিছুটা মুক্তি পাওয়া যায়। এর মাধ্যমে দীর্ঘ নিঃশ্বাস নেওয়ার ফলে মস্তিস্কে বিশুদ্ধ অক্সিজেন প্রবেশ করে মস্তিস্ককে অনেক শিথিল করে যার ফলে পরবর্তীতে আর ও ভাল ভাবে সমস্যা নিয়ে চিন্তা করা যায়।নিম্নের ভিডিও লিঙ্ক টি দেখলে আপনি মেডিটেশন বা relaxation সম্পর্কে আরও ভাল করে জানতে পারবেন। https://www.youtube.com/watch?v=JEg5t0WCILQ&feature=share

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও