হতাশায় জর্জরিত জীবন আমার!!  আব্বু অসুস্থ তার মাঝে ফ্যামিলির ভবিষ্যৎ নিয়ে চিন্তিত আমি ঘুম ও আসে না বলতে পারেন!!🙄🙄 আব্বুর বয়স হইছে আম্মুও গার্মেন্টস কর্মী আর কয়দিন বলেন? এইভাবে?? সবাই আমার উপর ভরসা করে আছে!!  একদিন দুঃখ ঘুচবে আমার দ্বারাই!!  আল্লাহর রহমতে প্রস্তুতি ভালো নিয়েছিলাম কিন্তু পরীক্ষা টাও হতে পারলো না কভিড-১৯ এর জন্য!!  যদি কভিড ১৯ এ ১ বছর পিছাইতে হয় সব তাহলে আমার লেখা পড়া ও পিছিয়ে যাবে আমিও পিছিয়ে যাবো পিছিয়ে যাবে আমার ফ্যামিলি ও!!  বড় বোন আছে এইবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এ ভর্তি হলো ক্লাস ও করতে পারছে না!! মাস্টার্স শেষ করতেও তো মিনিমাম ৬ বছর এক বছর পিছালে ত ৭ বছর!!  আমার কাছে তো এই ৬ বছর আমার আর আমার বোনের জন্য এক জীবন ই মনে হচ্ছে!!!  কারণ এটা অনেক সময় আমাদের কোনো ব্যাংক ব্যালেন্স নেই না আছে কোনো সম্পত্তি আব্বু কাজ করতে পারে না ঠিকঠাক মতো খুব সিক উনি এমন সময় উনার কিছু একটা হয়ে গেলে এতো দূর লেখা পড়স করেও থেমে যেতে হবে!!  আমি SSC থেকেই নিজে টিউশনি করি নিজের খরচ চালাই ফ্যামিলি কে সাপোর্ট দেই আবার পড়াশোনাও চালাইতেছি!!  আর আল্লাহর রহমতে সবার সাথে হাসি খুশি ভাবেই চলি বুঝতে দেই না কাউকে কিন্তু রাত হলে শুতে গেলে বা একা থাকলে আমি যে সম্পূর্ণ অস্থির হয়ে পরি কি করবো কিছুই বুঝি না!!!  একটা ফুল টাইম জব তো এখন করা সম্ভব না তাহলে পড়ালেখা করা হবে না আর!!  আমি অনেক বড় হতে চাই পদার্থ বিজ্ঞান এর প্রফেসর হওয়ার স্বপ্ন দেখি!!  এখন ধোয়াশা লাগে সব ই!!!  আমি জানি না কবে শেষ হবে এই struggle!!  বাংলাদেশ এর চাকরীর বাজার ও সবার জানা ই আমার কোনো মামা চাচা কাকা নেই যার হাত ধরে কোনো জব পেয়ে যাবো কিংবা ব্যাংক ব্যালেন্স তো নাই যে ঘুষ দিতে পারবো!!  এতো কষ্টের পড়াশোনা এতো দূর পরেও যদি ৭-৮ বছর পর বেকার ই থাকি তাহলে কেনো লড়াই করছি এতো বইয়ের বোঝার সাথে??😔!!!! সভ্য সমাজের সাথে হাসি মুখে খালি পেটে চলতে খুব ই কষ্ট হয়ে যাচ্ছে আমার!!!  😔 হাসাতে পারি সবাইকে নিজে হাসির কারণ পাই না।।।  নামাজ পড়ে রোজ আল্লাহ কে বলি জানি একদিন সূর্যের আলো আসবে আমার অন্ধকার রুমে 😇 জ্বি নিজেকে স্বান্তনা দেয়ার মতো এর বেশি কিছুই নেই আমার তবে এখনো জানি না কবে শেষ হবে এই অন্ধকার আসলেই মুমূর্ষু আমি😔  বন্ধু বান্ধব ও ত্যাগ করে দিয়েছি almost আব্বু বলছে আমার লেভেল বা তার নীচের কারো সাথে ফ্রেন্ডশিপ করতে তা না হলে মন খারাপ হবে লেভেল না মিললে আশা করি বুঝতে পারছেন আমার কথা কি বলতে চাচ্ছি🙄 তবে অবাক করা বিষয় ওদের সাথে তো আমার মিলেই না ওরা ঈদে ঘুরতে যাবে ফ্রেন্ডস এর আড্ডা হবে যেখানে ফাংশনাল বিভিন্ন প্রগ্রাম করবে এঞ্জয় করবে কিন্তু আমি মানাইতে পারি না নিজেকে ওদের কারো সাথেই এক্টা গেঞ্জি দিয়েই এক মাস কাটিয়ে দেয়া আমি কিভাবে ১০০০ টাকার জুতা পায়ে দেয়া কারো সাথে ফ্রেন্ডশিপ করতে পারি? 😔 বুঝতে পারছেন তো??🙄 হুম এইভাবে বেচে আছি!!  আমি ওদের মুখাপেক্ষী নই ওরা ই লেখা পড়ার বিষয়ে হেল্প চাইতে আমার কুড়েঘরে আসে মাঝে মাঝে ওদের রাজপ্রাসাদ ছেড়ে আমার কাছে আসলে বন্ধু মহলে যে নিজেকে খুব ই তুচ্ছ মনে হয় আমাকে😔😔 আশা করি বুঝতে পারছেন কথা গুলো??😔 এরকম ধ্বংসাত্মক সিচুয়েশনে আমার জীবনে একটা মেয়ে আসলো বুঝালাম ওকে আমাদের সিচুয়েশন আমার কাছে ডিএসএলআর নেই বাইক নেই বাবার টাকা নেই  চেহারা ভালো না তুমি অন্য রাস্তা দেখো কিন্তু না ও মানলো না অবাক করা বিষয় আমাকে তবুও পাগলের মতো ভালোবাসে ওরা অনেক বড়লোক নিজেকে যে ওর কাছে গেলেই ছোট মনে হয়!!!  কিন্তু ওরে তো না ও করতে পারি না আর সবচেয়ে বড় কথা এখন তো ওরেও আমি অনেক ভালো বেসে ফেলেছি ওকে আমার চাই ই এখন এবং ও আমার জন্য wait  ও করতে পারবে যেহেতু ওদের টাকার সমস্যা নেই আবার শিক্ষিত পরিবার তাই আমার জন্য ও অপেক্ষা করতে পারবে তা ঠিক!!!  কিন্তু আমার সিচুয়েশন  তো পুরাটা শুনলেন এখন আমি ওকে আমার করতে হলে অবশ্যই জব লাগবে ভালো কারণ আমার ভাঙা ফেমিলি কে আগে উঠাতে হবে বাবা মায়ের মুখে হাসি ফিরাতে হবে  😔 আমি এই লেখা গুলো লিখতে লিখতে খুব ই আবেগী হয়ে পড়েছি কারণ আমার আব্বু কে অনেক বছর হইছে আমি হাসতেই দেখি না!! হাসি মশকরা করেও হাসাতে পারি না😔😔😔 তার মাঝে ওই মেয়ে কে আমার করতে হলে আর পরিবার টিকে হাসি খুশি ফিরিয়ে দিতে হলে অবশ্য অতি সত্তর ভালো জব লাগবে যেখানে রেগুলার লাইনে মাস্টার্স কম্পলিট করতেই আমার ৭ বছর লাগছে🙄🙄 তার মাঝে আব্বু যে অসুস্থ তা তো বল্লাম ই এখন আমি কি করবো কিছুই বুঝি না!!!  😔 এই গেইমের ফাইনাল রাউন্ডে পৌছাতে কি আমি একাই লড়ছি নাকি আমার মতো আরো আছে 😞😞😞 আল্লাহ সবাইকে পথ দেখান আমিন!!!😔😔 যদি কেউ সম্পূর্ণ টা পড়ে থাকেন মতামত দিয়ে আমাকে যদি এক্টু সাহায্য করেন উপকৃত হবো ধন্যবাদ 😘

প্রিয় গ্রাহক, আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। আপনি আপনার মনের কথা ও সমস্যাগুলো অত্যন্ত সুন্দর ভাবে গুছিয়ে বলেছেন যা সত্যিই খুব প্রশংসনার দাবিদার । আমি বুঝতি পারছি পারিবারিক, সামাজিক,ব্যক্তিগত ও পারিপার্শ্বিক নানবিধ বিষয় নিয়ে আপনি মানসিক ভাবে বেশ অস্থিরতার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছেন।আমি অনুভব করতে পারছি আপনি কেমন বোধ করছেন। প্রিয় গ্রাহক কোন কষ্টই কিন্তু চিরস্থায়ী নয়।বর্তমানে যে সাময়িক পরিস্থিতি চলছে তাতে কম বেশি আমরা সবাই বেশ আতংকিত ও টেনশনের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছি। তবে এ সময়ে ধৈর্য্য ধরে থাকা এবং নিজের সর্বোচ্চটা দিয়ে সে পরিস্থিতি মোকাবেলা করাটাই শ্রেয়। আপনি আপনার জায়গা থেকে নিজেকে তৈরি করার জন্য সর্বোচ্চ প্রস্তুতি নিন।নিজেকে প্রফেসর বানানোর জন্য যে স্বপ্নটা আপনি লালন করছেন তার জন্য নিজেকে গড়ে তুলন,আরো দ্বিগুণ উদ্যোমে কাজ করুন। তাছাড়া আপনি কিংবা আপনার বোন কেউই কোন পিছিয়ে নেই বা পিছিয়ে যান নি।বর্তমানে আমরা সবাই একটা জায়গায় থমকে আছি, এবং নিশ্চয়ই অচিরেই আমরা এ জায়গাটা থেকে সরে আসবো এবং সবাই যার যার নিজ গতিতে এগিয়ে চলবে। আপনি এসব ভেবে মোটেও নিজেকে বিষন্ন করে তুলবেন না। আর জেনে ভালো লাগলো যে ব্যক্তিগত জীবনে আপনার এমন একজন আছে যাকে আপনি ভালোবাসেন এবং সে ও সবকিছু নির্বিশেষে আপনাকে প্রচন্ড ভালোবাসে। আপনার তো আরো ভালো লাগা দরকার যে সে আপনাকে আপনার সবকিছু জেনে শুনে, মেনে নিয়ে নিশর্ত ভাবে আপনাকে ভালোবাসে,আপনার জন্য অপেক্ষা করতে প্রস্তুত। আপনি কেন শুধু শুধু নিজেকে নিয়ে হীনমন্যতায় ভুগছেন।নিশ্চয়ই যখন সময় আসবে আপনি সুন্দর করে আপনাকে ও আপনার পরিবারকে নিয়ে অনেক দূর আগিয়ে যাবেন।এবং আপনার মধ্যে সেই পোটেনশিয়ালিটি আছে।আপনার প্রশ্ন পড়েই বোঝা যাচ্ছে আপনি যথেষ্ট সচেতন ও অপটিমেসটিক একজন মানুষ। শত প্রতিকূলতার মাঝে ও আপনি হাসি মুখে সব কিছু মানিয়ে নিয়ে চলেছেন যা হয়তো আপনার মতো অনেকেই পারে না। যেটা সত্যিই খুব প্রশংসনীয়। টাকা পয়সা,জামা কাপড়,বাড়ি গাড়ি,বাইক এ সব কিছুই কিন্তু আপেক্ষিক। একটা সময় অবশ্যই অাসবে যখন আপনি নিজেই এসব কিছুর উর্ধে থাকবেন এবং বুঝতে পারবেন।ভবিষ্যতে নিয়ে চিন্তা করা ভালো,তবে ভবিষ্যতে নিয়ে অতিরিক্ত চিন্তা করে বর্তমানটাকে নষ্ট করবেন না।বরং বর্তমানটাকে কাজে লাগিয়ে ভবিষ্যতকে গড়ে তুলুন। নিজের উপর আত্নবিশ্বাস ও মনোবল অটুট রেখে সামনে এগিয়ে চলুন।আমার বিশ্বাস আপনি পারবেন।অবশ্যই জয়ী হবেন। শুভকামনা আপনার জন্য। ধন্যবাদ। মায়া।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও