না গ্রাহক এটি জ্বর নয়, ৩৭.৬ এর উপড়ে গেলে জ্বর ধরা হয়করোনাভাইরাস এর সুনির্দিষ্ট লক্ষন বেশি কিছু নেই। সাধারনত ভাইরাস এ আক্রান্ত হওয়ার ২-১৪ দিনের মধ্যে কিছু সাধারন লক্ষন দেখা যায়। যেমনঃ১। সর্দি-কাশি, গলা ব্যথা এবং জ্বর।২। করোনাভাইরাস এ আক্রান্ত হলে শ্বাসকষ্টও দেখা দিতে পারে, যা সাধারন ভাইরাসজনিত সর্দি-কাশিতে দেখা যায়না।৩। কিছু মানুষের জন্য এই ভাইরাসের সংক্রমণ মারাত্মক হতে পারে। এর ফলে নিউমোনিয়া এবং অর্গান বিপর্যয়ের মতো ঘটনাও ঘটতে পারে। তবে খুব কম ক্ষেত্রেই এই রোগ মারাত্মক হয়।৪। ৫ থেকে ৬ তম দিনে ঘ্রাণ শক্তি চলে যেতে পারে। করোনাভাইরাস এ আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে যারা বয়ষ্ক অথবা আগে থেকেও কোন জটিল অসুখ এ ভুগে থাকে তাদের ক্ষেত্রে এই ভাইরাস মারাত্মক আকারে ধারন করতে পারে । তাদের ক্ষেত্রে হাসপাতালে ভর্তির প্রয়োজন হতে পারে। কিন্তু বেশিরভাগ রোগীর ক্ষেত্রেই হাসপাতালে ভর্তির প্রয়োজন হবেনা।ভাইরাসজনিত অসুখ হওয়ার কারনে এটার কোন সুনির্দিষ্ট চিকিৎসা নেই। লক্ষন অনুযায়ী চিকিৎসা দেওয়া হয়। তবে এই ভাইরাস এর বিরুদ্ধে ভ্যাক্সিন বানানোর চেষ্টা করা হচ্ছে।। 

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও