গ্রাহক, আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। আপনি যা অনুভব করছেন তা স্বাভাবিক।  আপনি  জানার চেষ্টা করেছেন যে কি হয়েছে যার জন্য তিনি এমন আচরণ করছেন এবং আপনাকে ইগনোর করছেন কিন্তু তিনি কিছু বলছে না, তাই না?আপনি আপনার স্থান থেকে যা করার তা চেষ্টা করেছেন এখন অপর পক্ষ যদি কিছু শেয়ার না করতে চায় তাহলে আপনি জোর করতে পাতবেন না, তাই না। সেজন্য সময় দেওয়া উনাকে এবং নিজেকে।  তিনি স্থির হয়ে নিজ থেকেই হয়তো জানাতে মনের কথা এবং সে পর্যন্ত আপনি নিজের প্রতি যত্ন নিতে পারেন যেন হতাশ অনুভূতি কমে আসে। কোনকিছু স্থায়ী নয় সব ক্ষনস্থায়ী তাই সমস্যা যেমন হয় তেমনি সমাধানও করা যায়। প্রয়োজন নিজেকে স্থির রেখে চিন্তা করা এবং উপায় বের করা যেন আপনি সঠিক পথ খুঁজে পেতে পারেন। ধন্যবাদ আপনাকে। 

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও