বাচ্চার ৬ বছরের একটা মেয়ে..  ছোট বেলা হতে এলার্জি এর সমস্যা যার কারনে সর্দি,কাশি,জ্বর,শ্বাসকষ্ট লেগে থাকে,, অনেক অনেক ডাঃ দেখিয়েছি,, alcet tab, roxyzen syp,ইত্যাদি খাইয়ে ও কাজ হয় না, ১ টা জিনিস খাইলে কাজ হয় সেটি হলোprednesolone syrup, এখন এই সিরাপ টা নাকি বেশি দিন খাওয়ানো যায় না,তো আমি অলরেডি ৩/৪ মাস খাওয়ায় ফেলছি,  বাট এখন বাদ দিতে চাচ্ছি, কিন্তু বাচ্চার এলার্জি থাকায়  বার বার এলার্জি জনিত সমস্যা দেখা দিচ্ছে এখন  prednesolone surup টা খাওয়াতে চাচ্ছি না তবে অন্য ঔষধ খাওয়াতে যাচ্ছি তাতে ও কাজ হচ্ছে না,, প্রশ্নঃ-১--- এমত অবস্থায় আমার করনীয় কি? প্রশ্নঃ-২---prednesolonen syrup কি আমি বেশি দিন খাওয়াতে পারবো? প্রশ্নঃ-৩---  যেহেতু অন্যান্য সব ডাক্তার দেখিয়েও prednesolone syrup ছাড়া অন্য কোন মেডিসিনে কাজ হচ্ছে না সে ক্ষেত্রে আমি কি হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা নিব? আমি আগেও বলেছি অনেক বড় বড় বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের চিকিৎসা নিয়ে কোন ওষুধে কাজ হচ্ছে না শুধু prednesolone syrup কাজ হচ্ছে এজন্য আপনারা ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া নিজেদের পরামর্শ অনুযায়ী আমার সমস্যাটার সমাধান বলে দিবেন, ইনশা-আল্লাহ আপনারা সঠিক সমাধান দেওয়ার চেষ্টা করবেন এটুকু বিশ্বাস রাখছি।।

আসসালামু আলাইকুম, প্রিয় গ্রাহক, আপনার বাচ্চা মেয়ে আসলে যেরকম এলার্জিক সমস্যায় ভুগছে আর এজন্য আপনি প্রেডনিসোলন ছাড়া যে ধরনের ঔষধ ব্যবহার করেছেন ইতোপূর্বে, এতে করে বুঝাই যাচ্ছে যে আপনার মেয়ের এলার্জি শুধুমাত্র সাধারণ অ্যালার্জেন যেমন ধুলোবালি, পোল্যান বা খাদ্যের মধ্যেই সীমাবদ্ধ নয়। এছাড়াও সম্ভবত আপনার মেয়ে আরও অনেক ধরনের জিনিসের প্রতি এলার্জিক। অতিরিক্ত অ্যালার্জিক রিঅ্যাকশন এর কারণেই ছোটবেলা থেকে আপনার মেয়ের সর্দি কাশি শ্বাসকষ্ট লেগেই রয়েছে। এবং আপনি যা শুনেছেন যে, প্রেডনিসোলন সিরাপ টি বেশিদিন খাওয়ানো যায় না, এটিই সত্য। এলার্জিক রিএকশন আসলে তখনই হয় যখন স্বাভাবিক কিছু পদার্থের প্রতি শরীর অতিরিক্ত প্রতিক্রিয়া প্রদর্শন করে, স্টেরয়েড গ্রুপের ঔষধ রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমিয়ে আনার মাধ্যমেই এই অতিরিক্ত প্রতিক্রিয়া নিয়ন্ত্রণে রেখে আপনার মেয়েকে এলার্জিক রিএকশন থেকে ভালো রাখছে। প্রেডনিসোলন একটি স্টেরয়েড গ্রুপের ড্রাগ হওয়ায়, তা ধীরে ধীরে আপনার বাচ্চার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমিয়ে আনতে পারে।এক্ষেত্রে আপনি যেটি চাচ্ছেন অর্থাৎ প্রেডনিসোলন সিরাপটি না খাওয়াতে, সেটিই সঠিক সিদ্ধান্ত। সেক্ষেত্রে ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী ধীরে ধীরে প্রেডনিসোলন সিরাপটি কমিয়ে আনতে আনতে বন্ধ করে ফেলাটাই উত্তম হবে। আর যেহেতু রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমিয়ে আনে তাই দীর্ঘদিন প্রেডনিসোলন ওষুধ খাওয়ানোর ফলে পরবর্তীতে নানান ধরনের রোগে আক্রান্ত হবার আশঙ্কা থেকে যায়। তাই বেশি দিন প্রেডনিসোলন ঔষধ খাওয়ানো কোনোভাবে যৌক্তিক নয়। ধারণা করছি আপনার মেয়ে আসলে অনেকগুলো অ্যালার্জেনের প্রতি এরকম রিএকশন দেখাচ্ছে। এক্ষেত্রে আপনি অন্তত দুইটি টেস্ট করবেন। #Serum IgE level এবং #Skin prick test. আমার ধারণা পূর্বে আপনার প্রথম টেস্টটি হয়তো করা আছে, কিন্তু পরবর্তীতে যে টেস্টটি দিলাম, এর মাধ্যমে অন্তত 50 ধরনের সাবস্টেন্স বা পদার্থ অত্যন্ত অল্প অল্প করে চামড়ায় দিয়ে দেখা হয় যে, আসলেই ঠিক কোন কোন জিনিস গুলোর প্রতি একজন অ্যালার্জিক রি-অ্যাকশন প্রদর্শন করে। এর মাধ্যমে আপনি উক্ত জিনিসগুলো থেকে যদি আপনার মেয়েকে সতর্ক রাখতে পারেন তাহলে আশা করি এরকম অতিরিক্ত অ্যালার্জিক রিঅ্যাকশন থেকে আপনার মেয়েকে মুক্ত রাখতে পারবেন। এবং প্রথম দিকের যে ওষুধগুলো দেওয়া হয়েছিল সেগুলোও পরবর্তীতে কাজ করবে। প্রিয় গ্রাহক, আসলে আপনি বারবার ডাক্তার পরিবর্তন করার কারণে স্বাভাবিকভাবেই ডাক্তাররা অতিরিক্ত অ্যালার্জিক রিঅ্যাকশন নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য স্টেরয়েড দিয়ে দিচ্ছেন। এজন্য আপনি একজন নির্দিষ্ট স্পেশালিস্ট এর কাছে বারবার দেখালে তিনি বিষয়টি সম্পর্কে আপনাকে আরো ভালো চিকিৎসা দিতে পারবেন। এবং প্রেডনিসোলনের ডোজ ও ধীরে ধীরে কমিয়ে আনতে পারবেন। আর আমাদের জ্ঞান যেহেতু এলোপ্যাথিক মেডিসিন নিয়ে, তাই হোমিওপ্যাথি সম্পর্কে ভালো বা খারাপ কোনোটা বলাই আদর্শ নয়। তবে আপনাকে আমি দ্বিতীয় যে টেস্ট টি দিয়েছি এর মাধ্যমে কোন কোন পদার্থ গুলোর প্রতি আপনার মেয়ে অতিরিক্ত সেনসিটিভিটি প্রদর্শন করছে তা সনাক্ত করা সম্ভব হবে, এবং একজন মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ধীরে ধীরে অ্যালার্জেন ইমিউনোথেরাপির মাধ্যমে, অর্থাৎ সহজ ভাষায় ডিসেনসিটাইজেশন এর মাধ্যমে এর চিকিৎসা করে প্রেডনিসোলন ছাড়াই সমস্যাটিকে নিয়ন্ত্রণে আনতে পারবেন ইনশাআল্লাহ। আমি আমার সাধ্যমত আপনাকে সঠিক সমাধান দেওয়ার চেষ্টাই করলাম। আশা করি আপনি আমাদের উপর যে বিশ্বাস রেখেছেন সেই অনুযায়ী তার পরামর্শ দিতে পেরেছি, এবং এতে কিছুটা হলেও উপকৃত হবেন। আপনার সন্তানের সার্বিক সুস্বাস্থ্য কামনা করছি। আরও কোনো প্রশ্ন থাকলে অবশ্যই জানাবেন। যেকোনো স্বাস্থ্য তথ্য ও পরামর্শের জন্য পাশে আছি সবসময়, মায়া।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও