গ্রাহক ধন্যবাদ প্রশ্নের জন্য।আপনার বয়স কত?আপনি কি প্রেগনেন্ট?আপনার কত মাস চলছে?গ্রাহক প্রেগনেন্সিতে আলাদা করে ত্মেওন কোন নিয়ম নেই।স্বাভাবিক ভাবে সবাই যে নিয়ম গুলো মানচে সেগুলোই মানতে হবে।তবে এই সময় বেশি সাবধান থাকা উচিত কারন শরিরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম থাকে।বেশ কিছু নিয়ম মেনে চললে এবং নিজে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন থাকলে এটি থেকে দূরে থাকা যায়ঃ১। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া জনসমাগম পরিহার করা, বাহিরে বের হলে গনপরিবহন ব্যাবহার এড়িয়ে চলা ।পরস্পর থেকে কমপক্ষে ৩ ফিট দূরত্ত বজায় রাখা।২। বাহিরে বের হলে মাস্ক পরিধান করা ,মানুষের সাথে করমর্দন ,আলিঙ্গন , চুম্বন বন্ধ রাখুন ।হাতে গ্লাভস ব্যাবহার করুন।৩। বারবার হাত মুখ ধৌত করা সাবান বা স্যানিটাইজার ব্যাবহার করে,যে কোন সবান দিয়ে ২০ সেকেন্ড করে ভালো ভাবে হাত ধুতে হবে।৪।হাত না ধুয়ে চোখ , মুখ , নাক স্পর্শ না করা ৫। অসুস্থ পশুপাখির সংস্পর্শে না আসা৬। প্রচুর পানি পান করা এবং ভিটামিন সি যুক্ত ফলমূল , শাকসবজি , বেশি খাওয়া। কুসুম গরম পানিতে লবণ মিশিয়ে গড়গড়া করুন দিনে ৩-৪ বার। কুসুম গরম পানি, আদা চা, মধু ইত্যাদি খেতে পারেন। ঠান্ডা খাবার ও পানীয় পরিহার করবেন।                 ৭।হাঁচি কাশি দেয়ার পরে , রোগীর সেবা দেয়ার পরে , মলত্যাগের পরে , খাবার খাওয়ার আগে এবং রান্নার আগে হাত ধুয়ে নেয়া। হাঁচি, কাশি দিতে টিস্যু ব্যবহার করুন। ব্যবহৃত টিস্যু এয়ার টাইট বাস্কেটে ফেলুন৷ কোনো শ্বাসকষ্ট দেখা দিলে, জ্বর ১০০°F এর বেশি হলে, কোনো প্রবাসী বা করোনা ভাইরাস আক্রান্ত রোগীর সংস্পর্শে এসে থাকলে সরকার নির্ধারিত হটলাইনে যোগাযোগ করুন।  গ্রাহক, সরাসরি ডাক্তারের সাথে ফোনে কথা বলে ঔষধ ও পরামর্শ পেতে মায়ার বিভিন্ন সাবস্ক্রিপসন প্যাকেজ হতে যেটি আপনার জন্য উপযুক্ত তা সাবস্ক্রাইব করে প্রশ্ন করতে পারেন। প্যাকেজে খুব দ্রুতই ঔষধ সংক্রান্ত পরামর্শ পেতে পারেন। মায়া এপ্প এর নিচে মায়া প্লাস ে ক্লিক করলেই বিস্তারিত তথ্য পেয়ে যাবেন।                                  আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি। আর কোন প্রশ্ন থাকলে জানাবেন, রয়েছে পাশে সবসময়, মায়া

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও