প্রিয় গ্রাহক,আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। গ্রাহক আমি অনুভব করতে পাড়ছি ডিপ্রেশনের কারনে আপনি কোন কাজে ঠিকমতো মনোযোগ দিতে পারছেনা, ফলে আপনি কেমন অনুভব করছেন তাকি আমার সাথে শেয়ার করা যায়? ব্যক্তিগত, পারিবারিক ও সামাজিক চাপ ডিপ্রেশনের অন্যতম কারন। আপনি কি এমন কোন সমস্যা মধ্যে আছেন থাকলে তাকি আমার সাথে শেয়ার করা যায়? আর ডিপ্রেশন কাটিয়ে স্বাভাবিক জীবন জাপনের জন্য নিচের টিপস ব্যবহার করে দেখতে পারেন। ডিপ্রেশনের জন্য নিজের কষ্ট হলে কষ্টের জায়গাটি বিশ্বস্ত বন্ধুর সাথে শেয়ার করতে পারেন। অনেক সময় মনের চাপা কথা কউকে বলতে না পারার কারনে মন ভারসাম্যহীন হয়ে পড়ে তখন কাজে মনোযোগ দেওয়া কঠিন হয়ে পড়ে। তাই মনের কথাগুল খুলে বললে মনটা হাল্কা হয়ে থাকে। নিয়োমিত হাল্কা ব্যাম করা মানুষিক স্বাস্থ্যকে ভালো রাখতে সাহায্য করে থাকে ফলে মানুষিক অবস্থা ইতিবাচক থাকে। পরিবার, আত্নীয় বা বন্ধুদের সাথে কিছু সময় পছন্দসই কথাও ঘুরে আসতে পারেন এতে করে আপনার ডিপ্রেশন কমতে আসতে পারে। একটা রুটিন তৈরি করতে পারেন যে সারা দিন কি কি করবেন মানে ডেইলি রুটিন ।লাইফ টা কে একটু নিয়মের মধ্যে নিয়ে আসা। কি কি করবেন সেটা আগেই টিক করে নেয়া মানে গোল সেট করা । প্রতিদিন এক্সারসাইস করতে পারেন যার ফলে মন শরীর ২ টাই ভাল থাকবে। পুষ্টি কর খাবার খেতে পারেন ।টিক মত এবং পরিমান মত খাবার খাওয়া ।অবশ্যই খাওয়ার সময় খাবার টা কে ফীল করে খাবেন ,যেমন কি খাচ্ছেন তা দেখা,ঘ্রান নেয়া,সাদ নেয়া,টেস্ট অনুভব করে খাওয়া । টিক মত ঘুমানো । রেস্পন্সিবিলিটি নেয়া,যেমন যে কাজটা করবেন সেটার রেস্পন্সিবিলিটি নিয়ে করবেন।এটা আপনাকে ডিপ্রেশন থেকে বের হতে সাহাজ্য করবে। যখন কোন নেগেটিভ চিন্তা আসবে তখন ভেবে দেখতে পারেন ওই চিন্তার অল্টারনেটিভ কি চিন্তা করতে পারেন । নতুন কোন কাজ করতে পাড়েন যা আপনাকে আনন্দ দিবে। পছন্দের মানুষের সাথে সময় কাটাতে পারেন ,মজার মজার কাজ করতে পারেন । আর কোন প্রশ্ন থাকলে মায়াকে করুন মায়া আছে আপনার পাশে সব সময়।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও