প্রিয় গ্রাহক আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। আপনার মাথায় সবসময় নাস্তিক্যবাদী চিন্তা আসছে। যা আপনাকে আতঙ্কগ্রস্ত করে তুলছে। বুঝতে পারছি বিষয়টা নিয়ে আপনি চিন্তিত। আপনি যে আপনার এই ইস্যুতে নিয়ে আমাদের কাছে প্রশ্ন করেছেন তা আপনার সচেতনতাই পরিচয় দেন। গ্রাহক আমি কি আপনাকে কিছু প্রশ্ন করতে পারি? আপনার বয়স কত? কবে থেকে আপনার মধ্যে এই ধরনের চিন্তা আসছে? আপনার মনে কি কি চিন্তা এসে থাকে তার কি কিছু আমাদের সাথে শেয়ার করা যায়? কোন পরিস্থিতিতে ও কোন সময় গুলোতে চিন্তা গুলো বেশি আসে?এমন কি কোন ঘটনা ঘটেছে বা করো সাথে কি কোন কথা হোয়েছিল এসব নিয়ে যার পর থেকে এরকম চিন্তা আসছে? গ্রাহক এই উত্তরগুলো দিয়ে সহায়তা করুন।গ্রাহক আপনার কি বিষয়ে বা কোন পরিস্থিতিতে এই চিন্তাগুলো হচ্ছে তা লিখে ফেলতে পারেন।বিষয়গুলো থেকে আপনার কি নেগেটিভ চিন্তা হচ্ছে তাও লিখে ফেলতে পারেন।চিন্তাগুলো থেকে কি ধরণের অনুভূতি হচ্ছে তাও লিখে ফেলতে পারেন।এবার চিন্তাগুলো কতটা বাস্তবিক বা অবাস্তবিক তা ভেবে দেখতে পারেন।যদি অবাস্তবিক হয় তবে এর বাস্তবিক চিন্তা কি তাও ভেবে দেখতে পারেন। গ্রাহক একটু যদি ভেবে দেখেন যে আপনার মনে কোন পরিস্থিতিতে যে নেগেটিভ অনুভূতি হচ্ছে তার বেশির ভাগ গুলোই আসছে আপনার মনের নেগেটিভ চিন্তা গুলো থেকে। কিন্তু বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই আমরা সেই চিন্তাগুলোর দিকে মনোযোগ না দিয়ে অনুভূতি গুলোর দিকে মনোযোগ। অথচ চিন্তা গুলোর দিকে মনোযোগ দিয়ে তাকে যদি ইতিবাচকভাবে পরিবর্তন করে ফেলা যায় তখন কিন্তু আমাদের অনুভূতি ও পরিবর্তিত হবে ও আমরা ভালো অনুভব করব। সেই সাথে নেতিবাচক ব্যাক্তিদের এড়িয়ে চলার চেষ্টা করতে পারেন।এছাড়াও আপনি রিলাক্সেশান টেকনিক ব্যবহার করতে পারেন।অতিরিক্ত চিন্তার সময় নিজেকে relax রাখার জন্য relaxation বা deep breathing করতে পারেন। মেডিটেশন বা Relaxation হল এমন একটি প্রক্রিয়া যার মাধ্যমে শরীরকে শিথিল করা যায়। মানসিক ভাবে প্রাশান্তি লাভ করা যায়। দুচিন্তা,রাগ, আবেগ, হতাশা থেকে কিছুটা মুক্তি পাওয়া যায়। এর মাধ্যমে দীর্ঘ নিঃশ্বাস নেওয়ার ফলে মস্তিস্কে বিশুদ্ধ অক্সিজেন প্রবেশ করে মস্তিস্ককে অনেক শিথিল করে যার ফলে পরবর্তীতে আর ও ভাল ভাবে সমস্যা নিয়ে চিন্তা করা যায়।নিম্নের ভিডিও লিঙ্ক টি দেখলে আপনি মেডিটেশন বা relaxation সম্পর্কে আরও ভাল করে জানতে পারবেন। https://www.youtube.com/watch?v=JEg5t0WCILQ&feature=share আর প্রয়োজন হলে আপনি একজন প্রফেশনাল সাইকোলজিস্ট এর কাছ থেকে কাউন্সেলিং সেবা নিতে পারেন। আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি। আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন, রয়েছে পাশে সবসময়, মায়া আপা ।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও