প্রিয় গ্রাহক,আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ।আপনি মেয়েদের সাথে কথা বলার সময় খুব নারভাস হয়ে পড়েন, তাই কি ? গ্রাহক, আমি কি কিছু প্রশ্ন করতে পারি ? যখন আপনি কোনো মেয়ের সাথে কথা বলে থাকেন তখন কি কি চিন্তা করেন ? আপনার ভেতর কি কি অনুভূতি আসে একটু বলা যাবে কি ?যখন কারো সাথে কথা বলতে হয় তখন আমাদের সবচে বেশি প্রয়োজন আত্মবিশ্বাস এবং মনের সাহস। মনের সাহস বাড়ানোর জন্য কিছু জিনিস প্রতিদিন প্রাকটিস করতে হয় এবং এটি বাড়ানোর জন্য কিছু সময় লাগবে, একদিন এ এটি করা সম্ভব না। নিচের কিছু জিনিস প্র্যাক্টিস করতে পারেন আপনার মনের সাহস বৃদ্ধি করার জন্য: ১. নিজেকে আপনি নিজের মনের মতো করে দেখার চেষ্টা করবেন। আমরা যখন কম আত্মবিশ্বাসের সাথে লড়াই করি তখন আমাদের নিজের সম্পর্কে একটি খারাপ ধারণা হয়ে থাকে তাই নিজেকে নিজের মনের মতো করে দেখা জরুরি। ২. নিজেই নিজের প্রশংসা করবেন এবং নিজের সম্পর্কে ভালো কথা বলবেন। যেমন, "আমি যোগ্য। ", "আমি এটা করতে পারবো", ইত্যাদি।৩. নিজেকে criticize না করে অথবা কঠোর মন্তব্য না দিয়ে, নিজেকে প্রশংসা করুন।৪.নিজের উপর বিশ্বাস রাখুন।৫. নিজের মনের সাহস বাড়ানোর জন্য বডি ল্যাঙ্গুয়েজ -ও মেইনটেইন করতে পারেন যেটাই আপনার মনের সাহস বৃদ্ধি পাবে। এটির জন্য আপনি এই ভিডিও দেখতে পারেন: https://www.youtube.com/watch?v=NRp1ePrFkng৬. অন্যেরা কী ভাবছে তা মাথা থেকে ঝেড়ে ফেলুন। আমাদের স্বভাব নিজের আত্মবিশ্বাসকে গুরুত্ব না দিয়ে অন্যরা কী ভাবছে তা নিয়ে ভাবা। তাইতো জীবনে ভালো কিছু চর্চা এবং সফলতার পথে হাঁটা প্রায় অসম্ভব হয়ে পড়ে। মনে রাখবেন, সফলতার সর্বোচ্চ শিখরে পৌছার জন্য আত্মবিশ্বাস অত্যন্ত জরুরী। অন্যরা আপনাকে নিয়ে, আপনার কাজ নিয়ে কী ভাবছে তা ভুলে যান। অন্যরা আপনার জীবনে খুব গুরুত্বপূর্ণ নয়।গ্রাহক, তার পাশাপাশি নিজের শক্তি ও দুর্বলতার জায়গাগুলো খুঁজে বের করুন। মানুষ নিজেই নিজের খবরাখবর, ত্রুটি-বিচ্যুতি সবচেয়ে ভালো করে জানে। আপনার নিজের দুর্বলতার জায়গাগুলো খুঁজে বের করুন এবং শক্তির জায়গাগুলো খুঁজে বের করুন। আপনার যেসব দুর্বল দিক আছে তা ধীরে ধীরে কাটিয়ে উঠুন এবং শক্তির দিকগুলোকে যথাযথ ব্যবহার করুন। অন্যের নেতিবাচক কথা মনে না রেখে ইতিবাচক কথাগুলো মনে রাখুন।নিজেকে সর্বদা প্রফুল্ল রাখুন।কথা বলার সময় চোখে চোখ রেখে কথা বলুন।বলার চেয়ে অন্যের কথা মনোযোগ দিয়ে শুনুন। এতে তার কাছে আপনার গ্রহণযোগ্যতা বৃদ্ধি পাবে। প্রচুর জ্ঞান অর্জনের মধ্যে দিয়ে আত্মবিশ্বাসী হওয়া যায়। তুন কিছু শেখা, প্রতিনিয়ত বই পড়া, সফল মানুষের জীবনী পড়ার মাধ্যমে আপনি আত্মবিশ্বাস অর্জন করতে পারবেন।আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি।ধন্যবাদ।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও