প্রশ্ন সমূহ
আর্টিকেল
মায়া শপ

মায়া প্রশ্নের বিস্তারিত


আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। আপনার বয়স কত?জ্বর আছে? ঢোঁক গিলতে অসুবিধা হয় ? আপনার কি টনসিলের সমস্যা আছে? বিভিন্ন কারনে হঠাৎ করে শুরু হয়ে যেতে পারে গলা ব্যথা। গলা ব্যথা এত তীব্র হতে পারে যে খাওয়া-দাওয়া পর্যন্ত বন্ধ করে দিতে হয় অনেক সময়। এই গলাব্যথার জন্য সবার প্রথমে ঠান্ডা পানীয় এবং খাবার পরিহার করুন ।এছাড়া কিছু ঘরোয়া উপায়ে এই গলা ব্যথা কমানো যায় । ঘরোয়া উপায়গুলোঃ ১। লবণ পানি আদিকাল থেকে গলা ব্যথার উপশম হিসেবে লবণ পানির ব্যবহার হয়ে আসছে। ১ কাপ গরম পানির মধ্যে ১/৪ চা চামচ লবণ মিশিয়ে নিন। দিনে ৩-৪ বার এই পানি দিয়ে কুলকুচা করলে গলার ফারিংগাল অঞ্চলের রক্ত চলাচল স্বাভাবিক হয়। এর ফলে ভেতরে জমে থাকা ঠান্ডা কফ বের হয়ে এসে গলা পরিস্কার করে ফেলে। এছাড়া গলার ইনফেকশন অবস্থারও উন্নতি করে। ফলে গলা ব্যথা কিছুক্ষণের মধ্যেই নির্মূল হয়ে যায়। ২। গলা ব্যথা দূর করতে লেবুপানি: গলা ব্যথা দূর করতে লেবুপানি অনেক বেশি কার্যকরী। ১ কাপ পানির মধ্যে ১ চা চামচ লেবুর রস মিশিয়ে নিন। এবার এটি দিয়ে কয়েকবার কুলকুচা করুন। এটি গলার ভাইরাস এবং ব্যাকটেরিয়া দূর করে গলা ব্যথা কমিয়ে দেয়। ৩। গলা ব্যথা দূর করতে হলুদপানি হলুদে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান থাকে যা ব্যথা উপশম করে থাকে। ১ কাপ গরম পানিতে, ১/২ চাচমচ হুলুদ গুঁড়া এবং ১/২ চাচমচ লবণ মিশিয়ে নিন। এরপর এটি দিয়ে কয়েকবার কুলকুচা করুন। কিছুক্ষণের মধ্যে গলা ব্যথা কমে যাবে। ৪। গলা ব্যথা দূর করতে লবঙ্গ চা ১ থেকে ৩ চামচ লবঙ্গের গুঁড়া পানির মধ্যে মিশিয়ে নিন। এরপর এটি দিয়ে গলায় কুলকুচা করুন। এতে অ্যান্টিব্যক্টিরিয়াল এবং অ্যান্টি ইনফ্লামাটরি উপাদান থাকে যা গলা ব্যথা কমিয়ে দেয়। ৫। গলা ব্যথা দূর করতে আদা, মধু লেবু পানি ১ চাচামচ আদা পাউডার/কুচি, মধু, ১/২ কাপ গরম পানি, ২ টেবিল চামচ লেবুর রস মিশিয়ে নিন। প্রথমে আদাপানি দিয়ে কুলকুচা করুন তারপর লেবুর রস, মধু, দিয়ে কিছুক্ষণ কলকুচি করে নিন। এটি আপনার গলা ব্যথা কমানোর সাথে সাথে আপনার গলা পরিষ্কার করে দেবে। ৬। এ ছাড়া এ সময়ে তরল খাবার বেশি করে খান এবং ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবার খান। পাশাপাশি গরম পানিতে মধু ও লেবু মিশিয়ে খেতে পারেন। এসব ঘরোয়া উপাদানের মাধ্যমে যদি সমস্যা না কমে তবে দেরি না করে অবশ্যই নাক কান গলা রোগ বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের শরণাপন্ন হোন।


প্রশ্ন করুন আপনিও