প্রশ্ন সমূহ
আর্টিকেল
মায়া ফার্মেসী

মায়া প্রশ্নের বিস্তারিত


প্রিয় গ্রাহক, আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ। গ্রাহক, আপনি ছেলে না মেয়ে? কতদিন ধরে আপনার এই সমস্যা হচ্ছে ? আমাদের জানান।  আপনার খাদ্য এবং ত্বক ও শরীরের সামগ্রিক যত্নের সাথে ব্রন সম্পর্কিত ।আপনার যদি অনেক ব্রন হয় তাহলে নীচের বিষয়গুলো মেনে চলুন :- -তেল- চর্বিযুক্ত খাদ্য এবং দুগ্ধ পণ্য খাওয়া এড়াতে হবে। - এছাড়াও চকলেট না খাওয়া ভাল। - নিয়মিত অনেক পানি পান করুন(৮ গ্লাস প্রত্যেকের জন্য নূন্যতম প্রয়োজন হয়)এবং -সম্ভব হলে ডাবের পানি খাবেন। একটি তুলো ডাবের পানি তে ভিজিয়ে আপনার মুখ টা মুছে নিন, প্রতিদিন সকালে বা গোসল এর আগে। এটি প্রাকৃতিকভাবে ব্রন সম্পর্কিত দাগ দূর করতে সাহায্য করে। -যদি সম্ভব হয়, নিম পাতা এবং তাজা কাঁচা হলুদ এবং কালো জিরা মিশিয়ে প্রতিদিন সকালে খুব অল্প পরিমান এ খাবেন । -এছাড়াও constipation ও হজমের সমস্যার ফলে ব্রন হতে পারে। নিম, কাঁচা হলুদ ও কালো জিরা আপনার পেট এর জন্য খুব ভাল এবং আপনার পরিপাকতন্ত্র কে পরিষ্কার রাখবে । - নিয়মিত ব্যায়াম করলে আপনার ত্বক এর ছিদ্র গুলো খুলে যাবে এবং আপনার রক্তচলাচল বেরে যাবে। তবে ঘেমে গেলে আবার ত্বক এ ময়লা জমতে পারে তাই এক্সারসাইজ এর পর গোসল করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। - গ্রাহক আপনার কি পর্যাপ্ত ঘুম হয়? ঘুম ঠিক মত না হলে ব্রন দেখা দিতে পারে। রাতে কমপক্ষে ৭-৮ঘন্টা ভালভাবে ঘুমান - সপ্তাহে অন্তত ১ বার আপনার তোয়ালে, বিছানা চাদর, বালিশের কভার, চিরুনি, মেকাপ ব্রাশ- এধরণের জিনিসগুলো ধুয়ে দিন - অবশ্যই নিয়মিত ত্বক এবং মাথার ত্বক পরিষ্কার করবেন। মাথার ত্বক ময়লা থাকলেও ব্রণ হয় ।সপ্তাহে ২-৩ বার চুল শ্যাম্পু করুন এবং দিনে অন্তত ২ বার মুখ ধুবেন । -  যদি কিছু নিয়ে দুশ্চিন্তায় থাকেন তবে সেটা কমানোর চেষ্টা করুন তবে জেনে রাখা ভাল যে ঔষধ স্বল্পমেয়াদী সাহায্য করতে পারে,তবে যদি একটি দীর্ঘমেয়াদী সমাধান চান তাহলে আপনার জীবনধারা পরিবর্তনের চেষ্টা করুন. আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি। আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন, রয়েছে পাশে সবসময়, মায়া আপা ।



প্রশ্ন করুন আপনিও