প্রিয় গ্রাহক, আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ।গ্রাহক আপনি চিন্তামুক্ত থাকার উপায় জানতে চাচ্ছেন।জীবনে চলতে কিছুটা চিন্তা থাকাটা দরকার নয়ত আমরা কোন কাজ করার তাগিদ অনুভব করতাম না।কিন্তু চিন্তার পরিমাণ যদি অনেক হয় যা আমাদের শারীরিক ও মানসিকভাবে ভালো থাকতে দিচ্ছে না তবে তা কমানো প্রয়োজন।গ্রাহক আপনার কি নিয়ে চিন্তা হচ্ছে তা কি বলা যায়?চিন্তাগুলো আপনাকে কি বলছে?কোন বিষয়গুলো আপনার মনে চিন্তার উদ্রেগ করছে ও চিন্তাগুলো কি বলছে তা লিখে ফেলতে পারেন।তারপর সেগুলো যৌক্তিকভাবে ভেবে দেখতে পারেন যে চিন্তাগুলো আসলে কতটা বাস্তব বা অবাস্তব।যদি অবাস্তব হয় তবে তার বাস্তব চিন্তাগুলো কি তাও ভেবে দেখতে পারেন।চিন্তার বিষয়গুলো নিয়ে আপন কারো সাথে আলোচনা করতে পারেন।সবসময় ইতিবাচক চিন্তা করতে পারেন ও আপনার জীবনের ইতিবাচক মানুষগুলোর সান্নিধ্যে থাকার চেষ্টা করতে পারেন।জীবনের এতগুলো দিন যেমন আপনি নিজের চেষ্টা বলে সব সমস্যা পার করে আসতে পেরেছেন ভবিষ্যতেও পারবেন এই বিশ্বাস রাখতে পারেন।সেই সাথে নিয়মিত রিলাক্সেশান করতে পারেন।রিলাক্সেশানের একটি হল ডিপ ব্রিদিং।নাক দিয়ে লম্বা শ্বাস নিবেন।কিছু সময় ধরে রাখবেন।তারপর মুখ দিয়ে আস্তে আস্তে ছেড়ে দিবেন।এভাবে ৫-১০ মিনিট করতে পারেন। আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি। আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন, রয়েছে পাশে সবসময়, মায়া আপা ।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও