সম্মানিত গ্রাহক,আপনার উত্তরের জন্য ধন্যবাদ। সবচেয়ে ইতিবাচক বিষয় হল আপনি খুব অল্প সময়ের মধ্যেই বিষয়টা নিয়ে সিরিয়াস হয়ে ডাক্তারের কাছে গিয়েছেন। ডাক্তার যখন দেখে বলেছেন যে তার শারীরিক কোন সমস্যা নাই তার অর্থ বিষয়টি মানসিক, তাই নয় কি? আপনি যত দ্রুত সম্ভব একজন সাইকোলজিস্ট যার বাচ্চাদের নিয়ে কাজ করার প্রশিক্ষন আছে তার নিকট নিয়ে যান। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪ তলায় নাসিরুল্লাহ সাইকোথেরাপি ইউনিটে অভিজ্ঞতা সম্পূর্ণ ক্লিনিক্যাল সাইকোলজিস্টরা স্বল্প মূল্যে সেবা প্রদান করে থাকেন। গ্রাহক, আমার ব্যাক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকে বলছি এই ধরনের সমস্যার যত দ্রুত চিকিৎসা করা হয়, বাচ্চার রিকভারি হওয়ার সম্ভাবনাও ততটাই বেশি। দেরী হয়ে গেলে পরবর্তীতে এই সমস্যা থেকে বের হওয়া দুষ্কর হয়। আশা করি আপনাকে বিষয়টি বোঝাতে পেরেছি। পাশে সব সময় আছে, মায়া। 

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও