প্রিয় গ্রাহক,আপনার প্রশ্নের জন্য ধন্যবাদ।গ্রাহক, ১৪ মাসে বাচ্চারা  একটু বড় হয় তাই এই সমইয়ে অদের খাবার চাহিদা একটু কমে যায়, এই বয়সে খাবার খাওয়ানো টা একটু কষ্টকর। এই সময়ে শুধু মাত্র পুষ্টিকর খাবার ই খাওয়ানো উচিত। যেমনঃ১। পূর্ন শস্য ঃ ব্রাউন ব্রেড, হোল গ্রেইন আটার রুটি, লাল চালের ভাত ইত্তাদি তে প্রচুর পরিমানে পূষ্টিগুন থাকে, যা বাচ্চার গ্রোথ এর জন্য খুব উপকারি।বাচ্চাদেরকে প্রতিদিন শস্য জাত পন্যের ১/৪ খাওয়ালেই চলবে। ২। দুধ ও দুগ্ধজাত পন্যঃ দিনে অবশ্যই দুই গ্লাস দুধ মিনিমাম খাওয়াবেন , যা হাড় ও দাত কে মজবুত করবে, এবং অবশ্যই পূর্ন ননী-যুক্ত দুধ খাওয়াবেন। কারন দুধে থাকা ফ্যাট ও কোলেস্টেরল ব্রেইন এর বিকাশে সাহাজ্য করে। দুগ্ধজাত পন্যের মদ্ধে পনির ও দই নিয়ম করে খাওয়াতে পারেন, দই বাচ্চাদের অন্ত্রের জন্য ও ভালো কাজ করে। ৩। এই বয়সী বাচ্চাদের ১ কাপ সবজি ও ১ কাপ ফল ডেইলি দরকার।৪। প্রতিদিন দুপুর ও রাতের খাবারে মাছ অথবা মাংস অল্টারনেটিভ করে রাখতে পারেন। ৫। স্পিনাচ বা পালং শাকঃ বাচ্চাদের গ্রথ এর জনয অনেক উপকারি। আশা করি আপনাকে সাহায্য করতে পেরেছি।আর কোন প্রশ্ন থাকলে, মায়া আপাকে জানাবেন,রয়েছে পাশে সবসময়,মায়া আপা ।

আপনার কোনো প্রশ্ন আছে?

মায়া অ্যাপ থেকে পরিচয় গোপন রেখে নিঃসংকোচে শারীরিক, মানসিক এবং জীবনধারা বিষয়ক যেকোনো প্রশ্ন করুন, বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।


মায়া অ্যাপ ডাউনলোড করুন

প্রশ্ন করুন আপনিও