গর্ভনিরোধ এবং পরিবার পরিকল্পনা

কন্ট্রাসেপ্টিভ প্যাচ

Written by Maya Expert Team

কন্ট্রাসেপ্টিভ প্যাচ
রাসায়নিক উপকরনঃ
ইস্ট্রোজেন এবং প্রোজেস্টেরোন।

ব্যবহার পদ্ধতিঃ প্রথম প্যাচ মাসিকের প্রথম দিন দেয়া হয়। এরপর প্রতি সাত দিন অন্তর অন্তর ৩ সপ্তাহ পর্যন্ত একটি একটি করে প্রদান করা হয়। প্যাচের ব্যবহার ৪ নাম্বার সপ্তাহে বন্ধ করা হয় এবং এরপর মাসিকের মত রক্তপাত হয়। ৪ সপ্তাহ পর পর নতুন করে ৪ সপ্তাহের জন্য শুরু করা হয় এবং চালিয়ে যাওয়া হয়।

জন্মনিয়ন্ত্রন পদ্ধতিঃ হরমোনাল।

সহজলভ্যতাঃ শুধু প্রেসক্রিপশানে পাওয়া যায়।

কার্যকারিতাঃ >৯৯%

যাদের জন্য এই পদ্ধতি অনুপযোগী

  • বুকের দুধ খাওয়াচ্ছেন এমন মায়েরা
  • যেসকল মহিলাদের ধূমপানের অভ্যাস আছে।
  • যাদের ওজন বেশি।
  • যদি আপনার থ্রম্বোসিস, হার্টের দুর্বলতা, মাইগ্রেন, স্তন ক্যান্সার, লিভার ডিজিস এবং গল ব্লাডারে সমস্যা থেকে থাকে কিংবা ডায়াবেটিসের জটিলতা বা ২০ বছরের বেশি ডায়াবেটিসের ইতিহাস থেকে থাকে। উপরের কোন সমস্যা পূর্বে থেকে থাকলে বা বর্তমানে থাকলে এই পদ্ধতি ব্যবহার করা যাবে না।

উপকারিতাঃ

  • সহজ ব্যবহারবিধি। শুধু আপনাকে প্রতি সপ্তাহে এটি পরিবর্তনের কথা মনে রাখতে হবে।
  • বমি বা ডায়রিয়া হলেও এটি কাজ করে।
  • মাসিককে নিয়মিত, ব্যথাহীন করে।
  • প্রি মেন্সট্রুয়াল উপসর্গে সাহায্য করে।
  • জরায়ু ক্যান্সার, ওভারির ক্যান্সার এবং কোলন ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়।

অপকারিতাঃ

  • দেখা যায়।
  • যৌন বাহিত রোগ থেকে সুরক্ষা দেয় না।
  • সাময়িক পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে। যেমন – স্তন নরম হয়ে যাওয়া, মাথা ব্যথা, বমি ভাব, মন মেজাজে পরিবর্তন। কয়েক মাস পর এটি ঠিক হয়ে যায়।
  • প্রথম কয়েক সপ্তাহে রক্তপাত হতে পারে।
  • রক্তচাপ বাড়তে পারে।

About the author

Maya Expert Team

Leave a Comment