ত্বকের যত্ন মনোসামাজিক সৌন্দর্য চর্চা

ঈদের দিন আকর্ষণীয় চেহারায় থাকুন

ঈদের দিন আকর্ষণীয় চেহারায় থাকুন
ঈদ সবার কাছে একটি বিশেষ দিন। এবং এ দিনে দিনভর আকর্ষণীয় থাকা খুবই প্রয়োজন। আমাদের বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ অনুসারে এই ঈদে আপনার চেহারা কী রকম রাখবেন তা বেছে নিন। সকাল, বিকাল ও রাতের জন্য ভিন্ন ধরণের তিনটি চেহারা পেতে চান? তাহলে দেখা যাক কীভাবে তা পেতে পারেন।


ঈদের সকালের সাজ
ঈদের দিন ভোরবেলা ঘুম থেকে উঠে গোসল করতে হয়। সারাদিন সতেজ অনুভবের জন্য দীর্ঘ সময় নিয়ে গোসল করুন। দিনের বেলা ত্বকে আপনি একটি প্রাকৃতিক উজ্জ্বলতা পেতে চান, এবং তা অবশ্যই একটু মেকআপ সহ।

গোসলের পর, তুলা দ্বারা হালকা টোনার মুখে লাগান এবং এরপর গোলাপজল ছিটিয়ে দিন। তারপর ৫ মিনিট অপেক্ষা করে নিয়মিত ব্যবহৃত ময়েশ্চারাইজার প্রয়োগ করুন।

চোখের নিচে কালো দাগ ও মুখের দাগ ঢেকে রাখার জন্য বি বি ক্রীম অথবা একটি দাগ মোচনকারী দিয়ে মেকআপ শুরু করুন। ২৫০ টাকা- ৩৫০ টাকা দিয়ে স্থানীয় মার্কেট থেকে পন্ডস বি বি ক্রীম অথবা গার্নিয়ার বি বি ক্রীম কিনে নিতে পারেন। তরল ফাউন্ডেশনের পরিবর্তে গুঁড়োকৃত ফাউন্ডেশন অথবা সম্পূর্ণ পাউডার ব্যবহার করুন কেননা পানিযুক্ত অথবা ক্রীমজাতীয় ফাউন্ডেশন সকালবেলা তেল চিটচিটে, ম্লান চেহারা উপহার দিবে।

মুখে ফাউন্ডেশন ভালোভাবে লাগিয়ে নিতে পশমযুক্ত ব্রাশ দিয়ে কমপ্যাক্ট পাউডার ছড়িয়ে দিন। পীচ-গোলাপী রঙের ব্লাশ নিন এবং গালে লাগান।

বর্ণহীন অথবা গোলাপী আভাযুক্ত লিপস্টিক বেছে নিন। ঠোঁটকে আরো আকর্ষণীয় ও সুন্দর করে তোলার জন্য অনুজ্জ্বল গ্লস ব্যবহার করুন।

চোখে উজ্জ্বল রং ব্যবহার করবেন না। হালকা রং, যেমন শিশুতোষ গোলাপি, হালকা সবুজ, বাদামি, পীচ, রোদ্রজ্জ্বল হলুদ কিংবা বেগুণি রং ব্যবহার করুন, কারণ এগুলোতে চোখের পাতা স্পষ্ট হবে। চোখকে তুলে ধরতে কালো অথবা বাদামি পেন্সিল লাইনার ব্যবহার করুন। নাটকীয় সৌন্দর্য সৃষ্টি করতে ঘন মাশকারা বেছে নিন। চোখের উপর ও নিচ পাপড়িতে মাশকারা দিন।


দিনের মধ্যবেলার সাজ
সকালের মেকআপ দিনের মধ্যভাগে নিঃশেষ হয়ে যাওয়াই স্বাভাবিক। তাই সকালে ব্যবহৃত মেকআপকে এ বেলাতে একটু হালকা উন্নত করা প্রয়োজন।

তুলার টুকরাতে মেকআপ  রিমুভার নিয়ে  সকালে প্রয়োগকৃত ঠোঁটের রং মুছে ফেলুন এবং ম্যাট অথবা কোমল রং ব্যবহার করুন।

মুখে হালকাভাবে কিছু কমপ্যাক্ট লাগান এবং গালে আবার ব্লাশ প্রয়োগ করুন।

এখন, হালকা সাদা আভাযুক্ত হাইলাইটার গালের উপরিভাগে হালকাভাবে ঘষে নিন। হালকা উজ্জ্বল সাদা আভাযুক্ত আই শ্যাডো একই কাজ করবে।

কালো পেন্সিল অথবা পানিযুক্ত লাইনার দিয়ে আবার চোখ এঁকে নিন এবং চোখের নিচের অংশের ভিতর দিয়ে আঁকার জন্য কাজল ব্যবহার করুন।

প্রবল, রোদ্দ্রৌজ্জ্বল অথবা রাস্পবেরি লিপ কালার ব্যবহার করুন যা আজকালকার দিনে পাওয়া কঠিন নয়। যেহেতু ঈদের দিনের মধ্যভাগে দুপুরে খাবার খাবেন, তাই ঠোঁটে দীর্ঘক্ষণ থাকার জন্য হালকা লিপ কালার বেছে নিন।

সূর্যের মত উজ্জ্বলতা পেতে গালে, নাক এবং কপালে ব্রোঞ্জার ছিটিয়ে নিন।


সন্ধ্যা ও রাতের বেলা সজ্জা
সন্ধ্যা ও রাতের সজ্জার জন্য নতুন করে শুরু করা উচিত তাই মেকআপ রিমুভার ব্যবহার করে দিনের সব মেকআপ তুলে ফেলুন।

সিটিএম (পরিষ্কার, টোনিং, ময়েশ্চারাইজিং) নিয়ম অনুসরণ করুন এবং প্রাথমিক মেকআপ প্রাইমার দিয়ে শুরু করুন। মুখের মেকআপ দীর্ঘক্ষণ রাখার জন্য প্রাইমার ব্যবহার করা হয়। আলমাস ও প্রিয় থেকে প্রায় ৭০০ টাকা দিয়ে ‘প্রেস্টিজ প্রাইমড এন্ড রেডি ফেস প্রাইমার’ কিনে নিতে পারেন। তেলমুক্ত তরল ফাউন্ডেশন ব্যবহার করুন। গাঢ় যাতে না দেখায় তাই ফাউন্ডেশনটি হালকাভাবে ব্যবহার করুন। ফাউন্ডেশন মিশিয়ে দেওয়ার জন্য পাতলা স্পঞ্জ অথবা ব্রাশ ব্যবহার করুন। সাধারণ ময়েশ্চারাইজারের সাথে তরল ফাউন্ডেশন মিশাতে পারেন এবং তা মুখ ও গলায় লাগিয়ে নিন। মুখে কোনো দাগ থাকলে তা লুকানোর জন্য ত্বকের বর্ণ থেকে একটু হালকা দাগ মোচনকারী ব্যবহার করুন।

এখন একটি নরম স্পঞ্জ দিয়ে কমপ্যাক্ট পাউডার ধীরে ধীরে মুখে লাগিয়ে নিন। বেশি পরিমানে লাগাবেন না কারণ তা আপনার চেহারাকে হালকা ও নিরস করে তুলবে।

চোখ সাজানোর জন্য চোখে প্রাইমার দিয়ে শুরু করুন। আকর্ষণীয় স্মোকি লুকের জন্য অধিকতর গাঢ়, যেমন গাঢ় ধূসর, কালো, গাঢ় বাদামি, চকোলেট কিংবা গাঢ় বেগুনি রং পছন্দ করুন যা চোখের বাহ্যিক কোণে লাগাতে পারেন। ধূয়াশাময় অথবা হালকা উজ্জ্বল আই শ্যাডো, যেমন বরফি নীল, আর্দ্র সবুজ কিংবা শীতল সোনালি বর্ণ চোখের ভিতরের কোণে লাগাতে পারেন।

চোখ ছোট হলে, সাদা পেন্সিল লাইনার অথবা চোখের পাতার নিচে ছোট লাইন এঁকে চোখ বড় দেখাতে পারেন। নেভি ব্লু, পানিযুক্ত কালো লাইনার এবং কাজল দিয়ে চোখ এঁকে দিতে পারেন। আরো সৌন্দর্যময় করে তুলতে, পানিযুক্ত কালো অথবা জেল লাইনার দিয়ে গাঢ়ভাবে চোখে লাইনিং করতে পারেন। কাঁপানো হাতে সোজা করে লাইনিং দেয়া কঠিন হতে পারে। পরিষ্কারভাবে করার জন্য চোখের পাতায় আইলাইনার ব্রাশ দিয়ে ছোট ছোট বিন্দু দিয়ে দিন এবং পরে বিন্দুগুলো লাইন টেনে যুক্ত করে ফেলুন।

চোখের পাতা কোঁকড়া করে নিতে ভুলবেন না। কোঁকড়া চোখের পাতা চোখকে উন্মুক্ত রাখতে সাহায্য করে এবং আরো কোঁকড়া পাতা তৈরি করে। কোঁকড়া করার পূর্বে, ব্লো ড্রাইয়ার দিয়ে কোঁকড়া করার যন্ত্রকে গরম করে তুলুন। উষ্ণ যন্ত্র দীর্ঘস্থায়ী ও সুন্দর চোখের পাতা করে তুলতে সহায়ক। নকল চোখের পাতার জন্যও এ পদ্ধতি কার্যকর। মাশকারা প্রয়োগের মাধ্যমে চোখের মেকআপ শেষ করুন।

হালকা লিপ কালার দিন। প্রবাল এর মত, হালকা গোলাপী অথবা রাস্পবেরি রং বেছে নিন। প্রাকৃতিক অথবা গোলাপী আভার গ্লস উপরের ও নীচের ঠোঁটে দিতে পারেন।

পশমযুক্ত ব্লাশের ব্রাশ দিয়ে গালে গোলাপী সদৃশ, পিচ অথবা লালের মত ব্লাশ দিতে পারেন। গালের উপরিভাগ উজ্জ্বল বা হাইলাইট করতে হালকা সাদা আভাযুক্ত হাইলাইটার কোমলভাবে ঘষে নিন।

About the author

Maya Expert Team