প্রোডাক্ট রিভিউ মনোসামাজিক সৌন্দর্য চর্চা

নিউট্রোজেনা আল্ট্রা শিয়ার ড্রাই-টাচ সানস্ক্রিন এসপিএফ ৫৫ রিভিউ

নিউট্রোজেনা আল্ট্রা শিয়ার ড্রাই-টাচ সানস্ক্রিন এসপিএফ ৫৫ রিভিউ
নিউট্রোজেনা এসপিএফ ৩০ থেকে এসপিএফ ১০০ পর্যন্ত বিভিন্ন রেঞ্জের সানব্লক ও সানস্ক্রিন লোশন বের করেছে। এগুলোর বেশির ভাগই বাংলাদেশের বিভিন্ন সুপারশপ ও প্রসাধনীর দোকানে পাওয়া যায়। এছাড়া নিউট্রোজেনা এই একই মোড়কে আল্ট্রা-শিয়ার ড্রাই টাচ সানব্লকও বের করেছে। এটি সম্পর্কে জানতে দেখুন।

মূল্য ও পরিমানঃ ২৯ মিলি প্যাকেটের দাম পড়বে ৪৮০ টাকা।

পণ্যটি যা দাবী করেঃ

  • এই লোশনটি ডার্মাটোলজিস্ট-পরীক্ষিত যাতে ব্যবহার করা হয়েছে হেলিওপ্লেক্স প্রযুক্তি।
  • এটি ক্ষতিকর ইউভিএ রশ্মিকে আপনার ত্বকের ভিতরে যেতে বাধা দেয়। ড্রাই-টাচ প্রযুক্তি ত্বকের উপর হালকা ও পরিষ্কার প্রলেপ ফেলবে যা চকচক করবে না।
  • এর হেলিওপ্লেক্স স্টাবিলাইজড সানস্ক্রিন প্রযুক্তি দেয় সূর্য থেকে দীর্ঘস্থায়ী সুরক্ষা।
  • ব্রড স্পেকট্রাম ইউভিএ/ইউভিবি
  • পানিরোধক (৮০ মিনিট পর্যন্ত)
  • লোমকূপ বন্ধ করবে না
  • তেলবিহীন
  • প্যারা এমাইনো-বেনজয়িক এসিড মুক্ত

উপাদানঃ

সক্রিয় উপাদানঃ এভোবেনজোন ৩%, হোমোসালাট ১০%, অক্টিসালাট ৫%, অক্টোক্রাইলিন ২.৮%, অক্সিবেনজোন ৬%।

নিস্ক্রীয় উপাদানঃ বেহেনাইল এলকোহল, বিএইচটি, বিউটাইলোক্টাইল স্যালিকাইলেট, ক্যাপরিলাইল মেথিকোন, ডাইথাইহেক্সিল ২, ৬-ন্যাপথালেট, ডাইমেথিকোন, ডাইসোডিয়াম ইডিটিএ, ইথাইলহেক্সিল স্টিয়ারেট, ইথিলহেক্সিগ্লিসারিন, ইথাইলপ্যারাবেন, সুগন্ধি, গ্লিসারিল স্টিয়ারেট, আয়োডোপ্রোপানিল, বিউটাইলকার্বামেট, মিথাইলপ্যারাবেন, পিইজি-১০০ স্টিয়ারেট, ফেনোক্সিইথানল, প্রোপাইল্প্যারাবেন, সিলিকা, সোডিয়ম পলিক্রাইলেট, স্টাইরিন/এক্রিলেট কোপলিমার, ট্রাইডিকেথ-৬, ট্রাইমিথাইলসিলোক্সিসিলিকেট, ভিপি/হেক্সাডিসিন কোপলিমার, পানি, জ্যানথান গাম।


হেলিওপ্লেক্স প্রযুক্তি কি?
এই সানস্ক্রিনে কি এমন আছে যার জন্য এটি ব্যবহার করে দেখা যায়? অন্য সানস্ক্রিন লোশনগুলোর চেয়ে এর ভিন্নতা হল এতে ব্যবহার করা হয়েছে হেলিওপ্লেক্স প্রযুক্তি। নিউট্রোজেনার ওয়েবসাইট থেকে এই প্রযুক্তি সম্পর্কে নিচে সংক্ষেপে তুলে ধরা হল।

এফডিএ দ্বারা অনুমোদিত এভোবেনজোন অন্যতম কার্যকর সানস্ক্রিন উপাদান, কিন্তু সরাসরি সূর্যরশ্মিতে এটি খুবই আনস্টেবল হয়ে যায়। যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে নিউট্রোজেনা ছিল অন্যতম প্রথম ব্র্যান্ড যারা এমন একটি সান প্রটেকশন বের করেছিল যাতে এভোবেনজোনকে কার্যকরভাবে স্ট্যাবিলাইজ করা হয় অক্সিবেনজোন ও ডিইএইচএন দিয়ে। ফলে এটি ক্ষতিকর অতি বেগুনী রশ্মি থেকে আরও ভাল ও দীর্ঘস্থায়ী সুরক্ষা দেয়। এই নতুন প্রযুক্তিকেই বলা হয় হেলিওপ্লেক্স।

সময়ের সাথে বিজ্ঞান যত এগিয়েছে, হেলিওপ্লেক্সের যাতে যুক্ত হয়েছে সহায়ক প্রযুক্তি ও উপাদান যা একই রকম স্ট্যাবিলাইজড সুরক্ষা দিয়ে চলেছে।

বর্তমানে হেলিওপ্লেক্স অনেকগুলো স্ট্যাবিলাইজড সানস্ক্রিন প্রযুক্তির সমষ্টির প্রতিনিধিত্ব করে যা সূর্য থেকে দারুন সুরক্ষা প্রদান করে। আপনি যখন হেলিওলেক্স প্রযুক্তি সম্বলিত কোনো সানস্ক্রিন ক্রয় করেন তখন নিশ্চিত থাকতে পারেন যে এমন একটি পণ্য ব্যবহার করছেন যা সুনির্দিষ্টভাবে তৈরি করা হয়েছে ক্ষতিকারক রশ্মি থেকে সুরক্ষার জন্য।

ব্যবহার পদ্ধতিঃ

  • সরাসরি সূর্যে যাওয়ার ১৫ মিনিট আগে
  • ঘামানোর বা সাঁতার কাটার ৮০ মিনিট পর
  • তোয়ালে দিয়ে মোছার পরপর
  • অন্তত প্রতি ২ ঘন্টা পরপর


যেভাবে সূর্য থেকে সুরক্ষিত থাকবেনঃ

সূর্যের নিচে বেশিক্ষণ থাকলে তা ত্বকের ক্যনাসারের ও স্কিন এজিং এর ঝুঁকি বাড়ায়। এই ঝুঁকি কমাতে নিয়মিত একটি সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন যার আছে ব্রড স্পেক্ট্রাম এসপিএফ মান ১৫ বা তার বেশি। এছাড়াও যা করতে পারেন তা হলঃ সকাল ১০টা থেকে দুপুর ২টা- এই সময়ে রোদে কম থাকার চেষ্টা করুন, এমন কাপড় পরুন যাতে হাত-পা যথাসম্ভব ঢেকে থাকে, মাথা ঢেকে রাখুন ও চোখে সানগ্লাস ব্যবহার করুন। ছয় মাসের কম বয়সী বাচ্চাদের জন্য আপনার ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

প্যাকেজিং ও টেক্সচারঃ

এই সানস্ক্রিনটি একটি টিউবের মত প্যাকেজে পাওয়া যায়। তবে এটি কিন্তু লোশন নয়, হালকা সানস্ক্রিন ক্রিম।

আমাদের এক্সপার্ট যা বলেনঃ

  • যদিও নিউট্রোজেনা দাবি করে এটি সব ধরনের ত্বকের জন্য উপযোগী কিন্তু এটি তৈলাক্ত ও ব্রণ হয় এমন ত্বকের জন্য উপযোগী নয়। এর ময়েশ্চারাইজিং উপাদান তৈলাক্ত ত্বককে আরও তৈলাক্ত করবে। এটি মূলত স্বাভাবিক, শুষ্ক ও মিশ্র ত্বকের জন্য উপযোগী।
  • আপনি যদি ডে ক্রিম ব্যবহার করেন তাহলে সানস্ক্রিন ডে ক্রিমের উপর লাগাবেন, এতে ভাল ফল পাবেন।
  • এই সানস্ক্রিনে নির্দিষ্টভাবে বলা নেই যে এটি মুখের জন্য নাকি শরীরের জন্য। তবে এটি আপনি মুখে, গলায়, হাত ও পায়ে ব্যবহার করতে পারবেন।
  • সরাসরি রোদে থাকলে আপনাকে প্রতি ২-৩ ঘন্টা অন্তর আবার সানস্ক্রিন ব্যবহার করতে হবে।
  • সানস্ক্রিন লাগানোর পর উপরে কিছুটা পাউডার ছিটিয়ে দিন। এতে সানস্ক্রিনের চকচকে ভাব কমে যাবে।


সুবিধাঃ

  • খুবই হালকা ফর্মুলা
  • এসপিএফ ৫৫ সূর্য থেকে শক্তিশালী সুরক্ষা দেয়
  • আল্ট্রা ভায়োলেট এ এবং বি- উভয় রশ্মি থেকেই রক্ষা করে
  • ত্বকে সহজেই মিশে যায়
  • স্বাস্থ্যসম্মত ও বহনযোগ্য প্যাকেজিং
  • সহজলভ্য এবং পৃথিবীজুড়ে সুনাম আছে
  • হেলিওপ্লেক্স প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে ভাল সুরক্ষার জন্য
  • সংবেদনশীল ত্বকের জন্য উপযোগী কারন এতে আলাদা সুগন্ধী নেই
  • প্যারা এমাইনোবেনজোয়িক এসিড মুক্ত যা থাকলে এলার্জি ঘটাতে পারে

অসুবিধাঃ

  • তৈলাক্ত ও ব্রণ আছে এমন ত্বকের উপযোগী নয়
  • দাম বেশি
  • ঘামরোধক নয়

রেটিং : ৪/৫

আমাদের এক্সপার্টের মতামতঃ

বাংলাদেশের মত দেশে সূর্য থেকে সুরক্ষার জন্য এটি একটি ভাল পণ্য। এর ব্রড স্পেকট্রাম এসপিএফ ৫৫ এবং হেলিওপ্লেক্স প্রযুক্তি সূর্যের ক্ষতিকারক আল্ট্রা ভায়োলেট এ ও বি থেকে সুরক্ষা প্রদান করে। এছাড়াও এটি কার্যকরভাবে সূর্যালোকে ত্বক পুড়ে যাওয়া কমায়। অন্যান্য অসুবিধা সত্ত্বেও এই পণ্যটি বারবার ব্যবহার করা যায়।

About the author

Maya Expert Team