মনোসামাজিক মেকআপ টিপস সৌন্দর্য চর্চা

সঠিক ফাউন্ডেশন নির্বাচন

সঠিক ফাউন্ডেশন নির্বাচন
ফাউন্ডেশন বিভিন্ন ধরণের প্রণালিতে প্রস্তুত ও ভিন্ন ভিন্ন রংয়ের পাওয়া যায়। নিখুঁত সাজের জন্য ত্বকের ধরণ অনুযায়ী সঠিক ফাউন্ডেশন নির্বাচন করা প্রয়োজন। যদি আপনার ত্বকের ধরণ সম্পর্কে নিশ্চিত না হন, তাহলে ধরণ বুঝতে এখানের টিপস অনুসরণ করুন। ত্বকের প্রকৃতি অনুসারে সঠিক ফাউন্ডেশন বেছে নিতে নিম্নে কয়েকটি সহজ টিপস দেয়া হলো।

১. ত্বক তৈলাক্ত বা মিশ্র তৈলাক্ত হলে, এমন ফাউন্ডেশন নিন যার গায়ে “অয়েল ফ্রি”, “অয়েল কন্ট্রোল” অথবা ম্যাটিফাইং উল্লেখ থাকে। তেলমুক্ত লিকুইড অথবা পাউডার ফাউন্ডেশন তৈলাক্ত ত্বকের জন্য বেশি উপযুক্ত। ত্বককে উজ্জ্বল ও তেল চিটচিটে মুক্ত রাখতে সিলিকার মতো তেল শোষণকারী উপাদান আছে কী না দেখুন। ফাউন্ডেশন প্রয়োগের আগে ম্যাটিফাইং প্রাইমার ব্যবহার করলে তা মুখকে দীর্ঘক্ষণ তেলমুক্ত রাখতে সহায়তা করে।

২. ব্রণপ্রবণ ত্বকের জন্য, “অয়েল ফ্রি”, “ম্যাট”, “পোর মিনিমাইজিং” অথবা “অ্যাকনে-প্রণ স্কিন” প্রভৃতি বিষয়গুলো উল্লিখিত আছে কী না দেখুন। লোমকূপ পরিষ্কারক উপাদান। যেমন স্যালিসাইলিক এসিড আছে কী না দেখুন।

৩. সংবেদনশীল ত্বকের জন্য খনিজ (মিনারেল) অথবা ভেষজ মেকআপ ব্যবহার করুন কেননা এগুলোতে অল্পসংখ্যক প্রিজারভেটিভ ও রং উপস্থিত থাকে।

৪. বয়স্ক ত্বকের জন্য, ক্রীমজাতীয় যেমন ক্রীম ফাউন্ডেশন, মিশ্র অথবা মুয (Mousse) ফাউন্ডেশন বেছে নিন।

৫. শুষ্ক ত্বকের ক্ষেত্রে, বেছে নেয়া ফাউন্ডেশনে ময়েশ্চারাইজার থাকা উচিত। “শুষ্ক ত্বকের জন্য”, “হাইড্রেটিং বা পানিযুক্ত” অথবা “ময়েশ্চারযুক্ত” এমন বিষয় উল্লেখ আছে সেসব ফাউন্ডেশন নির্বাচন করুন। তেলযুক্ত লিকুইড ফাউন্ডেশন, স্টিক ফাউন্ডেশন, মিশ্রিত অথবা ক্রীম ফাউন্ডেশন শুষ্ক ত্বকের জন্য সবচেয়ে উপযোগী।

৬. ব্যপ্তির উপর নির্ভর করে স্বাভাবিক ত্বকে সব ধরণের ফাউন্ডেশন ব্যবহার করা যায়। তবে, সাধারণত পানিভিওিক লিকুইড ফাউন্ডেশন ও ক্রীম-টু-পাউডার ফাউন্ডেশন স্বাভাবিক ত্বকের সাথে ভালো মানায়।

৭. মিশ্র ত্বকের জন্য পাউডার ভিওিক ফাউন্ডেশন ভালো কেননা মুখের তৈলাক্ত অংশের জন্য পাউডার উপযোগী। ক্রীম-টু-পাউডার ফাউন্ডেশন মিশ্র ত্বকের জন্য সবচেয়ে ভালো কারন এটি খুব তৈলাক্ত বা খুব শুষ্ক নয়। তবে, মিশ্র ত্বকের জন্য মুয অথবা তেলমুক্ত লিকুইড ফাউন্ডেশনও ব্যবহার করা যায়।

About the author

Maya Expert Team