মনোসামাজিক মেকআপ টিপস সৌন্দর্য চর্চা

ফাউন্ডেশনের সঠিক রং কীভাবে বেছে নিবেন?

ফাউন্ডেশনের সঠিক রং কীভাবে বেছে নিবেন?
ত্বকের বর্ণ অনুসারে সঠিক ফাউন্ডেশনের সঠিক রং বেছে নেয়া একটি কঠিন কাজ। অধিকাংশ নারী তাদের ত্বকের আসল বর্ণ থেকে হালকা ফাউন্ডেশন পছন্দ করেন। কখনো কখনো অনেকে ওয়ার্ম আন্ডারটোন থাকা সত্ত্বেও শীতল ও লাল ধরনের রং বেছে নেন। এই সাধারণ ভুলগুলোর কারণে উজ্জ্বল ত্বক ধোঁয়াটে, নির্জীব এবং কখনো কখনো অপরিস্কার হয়ে পড়ে।

ফাউন্ডেশনের সঠিক রং নির্বাচনে এখানে কয়েকটি সহজ পন্থা তুলে ধরা হলোঃ

১. ট্রায়াল বা পরীক্ষা করার আগে আপনার ত্বক পরিষ্কার ও যেকোন ধরণের মেকআপমুক্ত করে নিন।

২. ত্বকের স্বাভাবিক বর্ণের সাথে মানায় বা কাছাকাছি হয়, এমন কয়েকটি রং বেছে নিন। ফাউন্ডেশনের রং সম্পর্কে জানতে এখানের প্রবন্ধটি পড়ুন।

৩. ফাউন্ডেশন প্রয়োগের সময়, বিক্রেতা আপনার হাতের কব্জির নিচে তা লাগানোর কথা বুঝাতে পারে। কিন্তু কব্জির নিচের অংশের বর্ণ ত্বকের আসল বর্ণ  থেকে হাল্কা হয়। ত্বক উজ্জ্বল না হলে কব্জির নিচে ফাউন্ডেশন প্রয়োগ করে কিনবেন না।

৪. প্রত্যেকটি রং একবার করে মুখের চোয়ালের অংশে ঘষে একটি দাগ দিন। যে রং টি দ্রুত ত্বকে অদৃশ্য হয়ে পড়ে এবং গলার রং এর সাথে মিলে যায় ঐ রং টি আপনার ত্বকের জন্য সঠিক ফাউন্ডেশনের রং।

৫. আয়নায় ভালভাবে দীর্ঘ সময় নিয়ে দেখুন। সম্ভব হলে একটি হাতের আয়না নিয়ে বাইরে এসে প্রত্যেকটি রং ভালোভাবে পরীক্ষা করুন। অধিকাংশ সময় দোকানের রঙিন, উজ্জ্বল বর্ণের আলোর জন্য নারীরা ভুল রং বেছে নেন।

৬. মাঝে মধ্যে সঠিক রং খুঁজে পেতে বিভিন্ন রঙের ফাউন্ডেশন কিনে কিছু টাকা খরচ করুন।


বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ

বাংলাদেশী ও ভারতীয় ত্বকের জন্য যথার্থ ফাউন্ডেশন রং বেছে নেয়া খুবই দুষ্কর। কখনো কখনো দুইটি রঙ মিলিয়ে একটি তৈরি করে সঠিক ও নিখুঁত রং তৈরি করতে হয়। ফাউন্ডেশনের রং খুঁজতে তুলনামূলকভাবে সহজ একটি নির্দেশনা এখানে দেয়া হলোঃ

বিভিন্ন অনলাইন শপে ব্র্যান্ড ও নন-ব্র্যান্ডের দাগ মোচনকারী ও ফাউন্ডেশন প্যালেট পাওয়া যায়। এগুলোর কোনো একটি কিনে নিন।

দামী ব্র্যান্ডের প্যালেটের মধ্যে ববি ব্রাউন বিবিইউ প্যালেট একটি সংরহে রাখার মত কাজের বিনিয়োগ। এই প্যালেটে আছে উজ্জ্বল থেকে শ্যামলা ও শ্যামলা থেকে গাঢ় বিভিন্ন ধরণের রং। এ প্যালেটটি বিভিন্ন কাজে ব্যবহার করা যায়। দাগ মোচনকারী ও ফাউন্ডেশন উভয় ক্ষেত্রেই এটি ব্যবহার করা যায়। এ প্যালেটে আপনি অনেকগুলো রং পাবেন। তাই আপনার প্রত্যাশিত শেড বা রং এই প্যালেটেই পেয়ে যাওয়ার একটি ভালো সুযোগ রয়েছে। শেড খুঁজে পেতে বিএইচ ১০ কালার কনসিলার প্যালেটও ব্যবহার করে দেখতে পারেন।

নন-ব্রান্ডের জন্য চাইনিজ কনসিলার প্যালেট কিনতে পারেন। এ প্যালেটগুলো বিকল্প হিসেবে সস্তা এবং ১০-১৫টি শেড বা রং থাকে।

এই প্যালেটগুলোতে ক্রীম ফাউন্ডেশন বিভিন্ন রং এ উপস্থিত থাকে। যদি সামঞ্জস্য আছে এমন লিকুইড ফাউন্ডেশন কিনতে চান, তাহলে প্যালেটটি নিয়ে দোকানে যান এবং লিকুইড ফাউন্ডেশনের রংয়ের সাথে প্যালেটের রং মিল আছে কী না তা নিরীক্ষণ করে দেখুন। প্যালেটের রংয়ের সাথে হুবুহু অথবা কাছাকাছি মিলে এমন রংয়ের লিকুইড ফাউন্ডেশন কিনুন।

 

About the author

Maya Expert Team