ট্রমা পরবর্তী সমস্যাজনিত লক্ষণ মনোসামাজিক মানসিক স্বাস্থ্য

দুর্ঘটনা পরবর্তী মানসিক চাপ জনিত সমস্যার আত্ম-নির্ভর চিকিৎসা

দুর্ঘটনা পরবর্তী মানসিক চাপ (PTSD) জনিত সমস্যার আত্ম-নির্ভর চিকিৎসা

প্রথম যে পদক্ষেপটি একজন PTSD তে আক্রান্ত ব্যক্তি নিতে পারেন তা হলো তার অবস্থার উন্নতি ঘটানোর জন্য অন্যের সাহায্য খোঁজা। যেহেতু, দুর্ঘটনার অভিজ্ঞতা সম্পর্কে কথা বলাটা PTSD-এর কিছু কিছু বিষয়কে ঠিক করতে পারে, তাই কোন ঘনিষ্ঠ বন্ধু বা আত্মীয়ের কাছ থেকে এই ধরণের সাহায্য নেওয়া যেতে পারে। যাইহোক,সম্পূর্ণ সুস্থতা নিশ্চিত করার জন্য মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ে পেশাদার কোন ব্যক্তির কাছ থেকে সাহায্য নেওয়াটা বাঞ্ছনীয়।

বাংলাদেশে মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যায় যারা ভুগে থাকেন তাদের জন্য এটি সাধারনত সামাজিক ভাবে লজ্জাজনক একটি বিষয় হিসেবে বিবেচিত হয়, তারপরও এখানে দুইটি নামকরা প্রতিষ্ঠান রয়েছে যেখানে রোগীরা PTSD-এর হাত থেকে সম্পূর্ণ নিষ্কৃতি পাওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় সব ধরণের চিকিৎসা সেবা পেতে পারেন।

১) জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (NIMH&R)– এটি স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যান মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ একটি সরকারি প্রতিষ্ঠান। NIMH&R একটি তিন স্তরবিশিষ্ট হাসপাতাল যা মানসিক স্বাস্থ্য সংক্রান্ত সমস্যা প্রতিকারের জন্য বিশেষায়িত। চিকিৎসক ও নার্সদের পাশাপাশি এই হাসপাতালটিতে ৮২ জন কগনিটিভ স্বাস্থ্যসেবা প্রদানকারী (Cognitive Health Care Provider- CHCP) রয়েছেন যারা PTSDএর মতো সমস্যার চিকিৎসায় বিশেষজ্ঞ।

ঠিকানাঃ শের-ই-বাংলা নগর, ঢাকা-১২০৭,বাংলাদেশ।

২) সাজেদা ফাউন্ডেশন – এই প্রতিষ্ঠানটি তাদের সুসজ্জিত ও সুপরিকল্পিত পরামর্শ সহায়তা কেন্দ্র এবং অত্যন্ত দক্ষ ও সুপ্রশিক্ষিত পরামর্শদাতাদের মাধ্যমে পরামর্শ সেবা প্রদান করে থাকে। এটি নিকেতন হাউজিং সোসাইটি, ঢাকা্য় অবস্থিত। এই প্রতিষ্ঠানটি ব্যক্তিগত পরামর্শ,দম্পতির সাথে পরামর্শ, বন্ধু বা সহকর্মীর সাথে পরামর্শ, পরিবারের সাথে পরামর্শ এবং দলগত পরামর্শ – এইসব সেবা প্রদান করে থাকে।

এই ফাউন্ডেশনটি বিভিন্ন উদ্যোগের মাধ্যমে সাভার রানা প্লাজায় ক্ষতিগ্রস্থ ব্যক্তিদেরকেও পরামর্শ সেবা প্রদান করেছে।এই কেন্দ্রের পরামর্শকরা অধর চন্দ্র হাই স্কুল প্রাঙ্গন এবং অন্যান্য যেসব জায়গায় মৃ্ত,‌ আহত ও নিখোঁজ ব্যক্তিদের আত্মীয় স্বজন ও শুভাকাঙ্খীরা জড়ো হয়েছিলেন সেখানে পরামর্শ সেবা প্রদান করেছেন এবং অন্যন্য সময়ে বেঁচে যাওয়া লোকদেরও পরামর্শ দিয়েছেন। PTSD তে ভোগা ব্যক্তিদের চিকিৎসার জন্য ফাউন্ডেশনটি কতটা প্রস্তুত এটি তার একটি স্পষ্ট উদাহরণ যেহেতু রানা প্লাজা ধ্বসের হাত থেকে বেঁচে যাওয়া ব্যক্তিদের অধিকাংশই PTSDএর ছিলো শিকার।

ঠিকানাঃ বাড়ি নং-২৮,রোড নং-৭,ব্লক-C
নিকেতন হাউজিং সোসাইটি,
গুলশান ১,ঢাকা ১২১২
বাংলাদেশ।

About the author

Maya Expert Team