প্লেয়িং ফর ডেভলোপমেনট মনোসামাজিক সন্তান প্রতিপালনসংক্রান্ত সকল জিজ্ঞাসা সন্তান লালনপালন

প্রতিদিনের প্রয়োজনীয় বিষয়সমূহ শেখানো

শিশুরা খেলাধুলা করার সময় তাদের আগ্রহের বিষয়গুলো শিখে। আপনি যে বিষয়গুলো তাদের শেখাতে চান, সে বিষয়সমূহও প্রায়ই এর অন্তর্গত থাকে।

যদিও, কখনো কখনো আপনার কাছ থেকে কিছু অতিরিক্ত সাহায্য তাদের প্রয়োজন হতে পারে। যেমন, তারা যখন পটি ব্যবহার করতে, নিজেকে পরিষ্কার করতে এবং নিজে নিজে কাপড় পরতে শিখে কিংবা কি স্পর্শ করা উচিত নয় এবং কোথায় দৌড়ানো নিরাপদ নয় প্রভৃতি বিষয় জানতে আপনার সাহায্য প্রয়োজন হবে।

নিচের পরামর্শ শিশু ও অভিভাবক উভয়ের জীবনকে সহজ করে তুলতে পারেঃ

  • যতক্ষণ পর্যন্ত শিশু প্রস্তুত না হচ্ছে ততক্ষণ পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। যদি খুব দ্রুত তাদের কিছু শেখানোর চেষ্টা করেন, তাহলে তা উভয়ের জন্য হতাশা বয়ে আনবে। যদি কিছু শেখাতে ব্যর্থ হন, তাহলে কয়েক সপ্তাহ বিরতি নিয়ে আবার চেষ্টা করুন।
  • কোনো কিছু শেখার বিষয়কে অতিরঞ্জিত করে তুলবেন না। শিশু খুব দ্রুত চামচ দিয়ে খাবার খাওয়া শিখে ফেলতে পারে তবে ক্লান্ত অবস্থায় তাদেরকে খাইয়ে দিতে হতে পারে। তারা কয়েকবার পটি ব্যবহারের পর আবার ডায়াপার ব্যবহারে ফিরে যেতে চাইতে পারে। এসব বিষয় দুশ্চিন্তা করবেন না এবং মনে করবেন না আপনি ব্যর্থ হয়েছেন। বড় হওয়া ও স্বনির্ভর হওয়ার জন্য শিখতে হবে এ বিষয়টি বুঝে উঠতে তাদের বেশি সময় লাগবে না।
  • শিশুদের নিরাপদ রাখুন। ৩ বছরের কম বয়সী শিশু বুঝতে পারে না কেন বৈদ্যুতিক জিনিসপত্র বা ভঙ্গুর জিনিস স্পর্শ করা উচিত নয়। যেসব জিনিস শিশুদের সংস্পর্শে রাখতে না চান, সেসব জিনিস তাদের নাগালের বাইরে রাখা উচিৎ।
  • অনুপ্রেরণা দিন। আপনার শিশু আপনাকে খুশি রাখতে চায়। যখন তারা ভালো কিছু করে থাকে, তখন বিরাট একটি হাসি, আদর অথবা প্রশংসা করলে ঐ রকম কাজ পুনরায় করতে শিশুরা উৎসাহী হয়। ভুল কিছু করা থেকে বিরত থাকার কথা বলার চেয়ে উৎসাহ প্রদানের এ পদ্ধতি অনেক বেশি কার্যকর।
  • বাস্তববাদী হোন। পরিপূর্ণতা বা তাৎক্ষণিক ফলাফল আশা করবেন না। আপনার ধারণা থেকেও আরো দীর্ঘ সময় লেগে যাবে বলে যদি ভেবে থাকেন, তাহলে সময়ের পূর্বে ফলাফল দেখতে পেয়ে অভিভূত হবেন।
  • দৃষ্টান্ত স্থাপন করুন। আপনার শিশু আপনার মতোই হতে চায় বা আপনার মতো কাজ করতে চায়। আপনি কিভাবে ধোয়ার কাজ, দাঁত মাজা এবং বাথরুম ব্যবহার করেন, তা তাদের দেখান।
  • কোমলমতী হোন। শিশুরা কোমল, ধৈর্যপূর্ণ পথ নির্দেশনা চায়। একটি সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর তাতে অটল থাকুন। উদাহরণস্বরূপ, যদি পটি ব্যবহার শেখানো শুরু করেন কিন্তু মনে করেন শিশু এর জন্য এখনো প্রস্তুত নয়, তাহলে শেখানোতে বিরতি আনতে পারেন এবং কয়েক সপ্তাহ পর আবার শেখানোর চেষ্টা শুরু করতে পারেন। কিন্তু কোনো শিশুকে আজ ডায়াপার ব্যবহার করিয়ে পরবর্তীতে তা বন্ধ করে দিয়ে আবার তার পরদিন ডায়াপার ব্যবহার করালে শিশুকে তা বিভ্রান্ত করে তুলতে বাধ্য।

    শিশুর জন্য, আপনার জন্য এবং আপনার জীবন পদ্ধতির জন্য যা সঠিক সেটিই করুন। প্রতিবেশীর শিশু কি করতে পারে এবং কি করতে পারে না তা নিয়ে দুশ্চিন্তা করবেন না কারণ এটি কোনো প্রতিযোগিতা নয়।

 

About the author

Maya Expert Team