প্লেয়িং ফর ডেভলোপমেনট মনোসামাজিক সন্তান প্রতিপালনসংক্রান্ত সকল জিজ্ঞাসা সন্তান লালনপালন

খেলার গুরুত্ব

খেলা যে আনন্দের তা সবারই জানা। একই সাথে বাচ্চাদের শেখার জন্য এটাই সবচেয়ে কার্যকর পদ্ধতি। বেড়ে ওঠার জন্য প্রয়োজনীয় সব দক্ষতা শিশু খেলতে খেলতেই শিখে নিতে পারে।

বেড়ে ওঠা ও বিকাশের জন্য শিশুর এমন একজন খেলার সঙ্গী প্রয়োজন যিনি শিশুটির সাথে খুশিমনে খেলতে রাজি থাকবেন। একসময় তারা একা একা খেলে আনন্দ পাওয়াও শিখে যাবে।

যখন কাজে খুব ব্যস্ত থাকবেন, বাচ্চার সাথে খেলায় সময় দেয়াটা কঠিন হতে পারে। এমন হলে আপনার কাজে বাচ্চাকেও কোন ভাবে জড়িয়ে নিন। এমনকি সেটা বাসার কাজও হতে পারে। শিশুরা যা করে এবং তাদের চারপাশে যা হয় তা থেকেই শেখে।

শিশুকেও কাজের সঙ্গী করুন

বাসনকোসন ধোয়ার মতো কাজে শিশুকেও অংশগ্রহণ নিতে বলতে পারেন, তাতে সে মজাই পাবে। যেমন তাকে একটা সসপ্যানের ঢাকনাই না হয় ধুতে দিলেন। রান্নার সময় তাকে দেখতে দিন কী করছেন এবং তার সাথে কথা বলুন।

সময় সময় বাচ্চাকে আপনার কাজে তাকে যুক্ত করলে সে সাহায্য করতে শিখবে, আবার নিজের কাজ নিজে করতেও শিখবে। আপনি যা করছেন তা অনুকরণ করতে গিয়ে সে কিছু কিছু কাজ শিখে যাবে।

সময় ধরে করতে হয় এমন কাজে আপনার শিশুকে যুক্ত করলে তা থেকেও সে শিখবে। তবে, আপনি সামনে থাকলে সময় মানার ব্যাপারে কড়াকড়ি করবেন না, এতে যদি তাল মেলাতে না পারে তাতে হয়তো আনন্দটাই নষ্ট হয়ে যাবে। খেলতে যাবার আগেই যে বাসনকোসন ধুয়ে যেতে হবে এমন তো বাঁধাধরা নিয়ম নেই। বিশেষ করে আপনার বাচ্চা যখন খেলতে যাবার জন্য উদগ্রীব হয়ে আছে, তখন তো তার আর কিছুই করতে ভালো লাগবে না।

যতটুকু সম্ভব নিজের ও বাচ্চার মনোভাবের সাথে মিলিয়ে কাজের সময় ঠিক করে নিন।

খেলার ব্যাপারে পরামর্শ

  • বাচ্চার চোখের সামনে দেখা, ভাবা ও খেলার মত রকমারি উপকরণ রাখুন।
  • আপনার কাজকে বাচ্চার জন্যও আনন্দদায়ক করে তুলতে পারলে বাচ্চাকে শেখানোর পাশাপাশি আপনি আপনার ঘরের অনেক কাজও আগিয়ে ফেলতে পারেন।
  • কিছু কিছু সময় শুধুমাত্র বাচ্চার দিকেই মনোযোগ দিন। যে কোনো কিছু নিয়ে কথা বলুন। ঘরের কোন কাজটি কিভাবে করা যেতে পারে, এমনকি বাজারের তালিকায় কি কি থাকতে পারে সেসব নিয়েও আলোচনায় তাকে রাখুন। তার সাথে যত কথা বলবেন, সে ততই নতুন শব্দ শিখবে।
  • যতটা সম্ভব বাচ্চাকে দৌড়া-ঝাপ করা বা কোন কিছু বেয়ে বেয়ে ওঠার মত খেলার সুযোগ করে দিন। বিশেষ করে, যদি আপনার ঘরে যথেষ্ট খোলা জায়গা না থাকে।
  • যখন একদমই বাচ্চাকে সময় দিতে পারবেন না, তখন অন্য কাউকে তার খেলার সঙ্গী হিসেবে থাকতে বলুন।

About the author

Maya Expert Team