ইউরোলজি মূত্রনালির সংক্রমণ

মূত্রথলিতে সংক্রমণের কারণ

মূত্রথলিতে সংক্রমণের কারণ

কারণসমূহ

মূত্রথলির সংক্রমণ বা সিস্টাইটিসের সবচেয়ে প্রচলিত কারণ হচ্ছে ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ, যদি ব্যাকটেরিয়া মুত্রথলিতে পৌঁছে যায় তাহলে সেখানে বংশবৃদ্ধি ঘটায় এবং মুত্রাশয়ের আবরনে যন্ত্রণার সৃষ্টি করে এবং সিস্টাইটিসের উপসর্গের দিকে এগিয়ে যায়।

মুত্রনালীর চারপাশে ক্ষত ও আঘাতের ফলেও সিস্টাইটিস হতে পারে।

ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ

এই রোগ তখনই বিস্তার লাভ করে যখন ব্যাকটেরিয়া মুত্রথলিতে পৌছায় এবং বংশবৃদ্ধি করে। এটি ঘটতে পারে যদি মুত্রথলি সঠিকভাবে খালি করা না হয়। তাই ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণকে প্রতিহত করার জন্য প্রতিবার প্রস্রাব করার সময় মুত্রথলি সম্পুর্ণরূপে খালি করার চেষ্টা করুন।

আপনি আপনার মুত্রথলি পুরোপুরি খালি করতে পারবেন না যদিঃ

  • আপনার মুত্রাশয়ের মধ্যে কোথাও প্রতিবন্ধকতা থাকে – এটি টিউমার বা পুরুষদের মধ্যে বর্ধিত প্রস্টেট (পুরুষাঙ্গ ও মুত্রাশয়ের মধ্যে অবস্থিত গ্রন্থি) এর কারণে হতে পারে।
  • আপনি গর্ভবতী হলে- গর্ভাবস্থা শ্রোণী অঞ্চল ও মুত্রাশয়ে চাপ সৃষ্টি করে।
  • মলদ্বারে সৃষ্ট ব্যকটেরিয়া মুত্রনালীতে স্থানান্তরের মাধ্যমেও ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ ঘটতে পারে। এটি পুরুষের চেয়ে মহিলাদের মধ্যে বেশি প্রচলিত যেহেতু মহিলাদের মুত্রনালী মলদ্বারের অপেক্ষাকৃত কাছাকাছি হয়।

মহিলাদের মধ্যে বিভিন্নভাবে ব্যাকটেরিয়ার স্থানান্তর ঘটতে পারে যেমনঃ

  • যৌনমিলনের সময়,
  • টয়লেটে যাওয়ার পর পরিষ্কার করার সময় (এই সময় ব্যাকটেরিয়া স্থানান্তরের সম্ভাবনা কমানো যায় যদি আপনি সামনে থেকে পেছনের দিকে পরিষ্কার করেন),
  • কোন তুলার পট্টি ঢুকালে,
  • জন্মনিয়ন্ত্রণের জন্য গর্ভনিরোধক ব্যবহার করলে,
  • যেসব নারীরা মেনোপেজের মধ্য দিয়ে গিয়েছেন বা যাচ্ছেন ইস্ট্রোজেন হরমোনের অভাবে তাদের মূত্রনালী ও মূত্রথলির আবরন অপেক্ষাকৃত পাতলা হয়ে যায়। এই পাতলা আবরনের সংক্রমিত হওয়ার বা ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে।
  • মেনোপেজের পর মহিলাদের যোনি থেকে অল্প পরিমানে ক্ষরণ হয় এর মানে ব্যাকটেরিয়ার বংশবৃদ্ধির সম্ভাবনা বেশি থাকে।

কোষের ক্ষতি হওয়া বা অস্বস্তিঃ

নারী ও পুরুষ উভয়ের ক্ষেত্রে মুত্রনালীর চারপাশের এলাকায় জ্বালাবোধ বা কোষের প্রদাহ থেকেও সিস্টাইটিস হতে পারে।

মূত্রনালী হচ্ছে এক ধরণের নালী যা মূত্রথলি থেকে প্রস্রাব শরীরের বাইরে বের করে নিয়ে যায়। পুরুষের ক্ষেত্রে, মুত্রনালীর মুখ (যেখানে প্রস্রাব শরীর থেকে বেরিয়ে যায়) পুরুষাঙ্গের মাথায় থাকে। নারীদের ক্ষেত্রে, এটি ভঙ্গাঙ্কুরের ঠিক নিচেই থাকে।

এই ধরণের ক্ষতি বা কোষের প্রদাহ যেসব কারণে হতে পারে সেগুলো হলোঃ

  • যৌনমিলন,
  • রাসায়নিক উত্তেজক পদার্থ – যেমনঃ সুগন্ধি সাবান বা ট্যালকম পাউডারের মধ্যে থাকা পদার্থ,
  • মুত্রাশয় বা কিডনীর অন্যান্য সমস্যার কারণে যেমন কিডনীর সংক্রমণ বা প্রোস্টাটাইটিস,
  • ডায়াবেটিস,
  • ক্যাথেটার দ্বারা আঘাত পাওয়া (catheter- এক ধরণের নল যা প্রস্রাবকে একটি নিষ্কাশন ব্যাগের মধ্যে প্রবাহিত করার জন্য মুত্রনালীতে ঢোকানো হয়, সাধারনত অস্ত্রপচার এর পর এধরণের নল প্রায়ই ব্যবহার করা হয়)।

About the author

Maya Expert Team