জন্মসংক্রান্ত জটিলতা নারী স্বাস্থ্য- গর্ভাবস্থা

অনিদ্রা ও ক্লান্তি

অনিদ্রা ও ক্লান্তি
গর্ভাবস্থার শেষের দিকে আরাম করে ঘুমানো খুব কঠিন হয়ে যায়। আপনি হয়তো কোনোভাবেই শুয়ে আরাম পান না, আবার যখন একটু আরাম বোধ হয় তখনি হয়তো বাথরুমে যাবার দরকার হয়। গর্ভের শিশু ও তার জন্ম নিয়ে অনেক নারীই অদ্ভুত স্বপ্ন বা দুঃস্বপ্ন দেখেন। এসব নিয়ে কথা বললে আপনার উপকার হতে পারে। আপনি একটা কিছু স্বপ্ন দেখছেন মানেই যে তা সত্যিই ঘটবে এমন নয়। শিথিলায়ন এবং শ্বাস-প্রশ্বাস নেয়ার কৌশলও এক্ষেত্রে সহায়ক হতে পারে।


যদি আরাম করে ঘুমাতে না পারেন –

  • সেটা নিয়ে চিন্তিত হবেন না বা ভাববেন না যে এতে আপনার বাচ্চার ক্ষতি হবে – সেরকম কিছু হবে না।
  • একপাশে কাত হয়ে শুলে আরাম পেতে পারেন। সেক্ষেত্রে পেটের নিচে আর দুই হাঁটুর মাঝখানে বালিশও দিয়ে রাখতে পারেন।
  • শিথিলায়ন কৌশল অনুসরণ করতে পারেন। লাইব্রেরি থেকে শিথিলায়নের টেপ বা সিডি/ ডিভিডি নিয়ে আসতে পারেন, কিংবা ইন্টারনেটে খুঁজতে পারেন।
  • ব্যায়াম করলে আপনার ক্লান্তিবোধ কমতে পারে। সুতরাং দিনের বেলায় যদি ক্লান্তও লাগে, কিছু সময়ের জন্য শরীর চর্চা করুন। যেমন দুপুরের খাবারের পর অল্প একটু হাঁটতে পারেন।
  • আপনার সঙ্গী, বন্ধু বা ডাক্তারের সাথে কথা বলুন।
  • দিনের বেলা ব্যায়ামের অভ্যাস তৈরি করা, আর রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে চা-কফি, মদ বা সিগারেট খাওয়ার অভ্যাস পাল্টানোর পাশাপাশি অনিদ্রা দূর করার আরো উপায় বের করুন। সকল দুশ্চিন্তা ঝেড়ে ফেলে গর্ভাবস্থাকে উপভোগ করুন।

অন্য কোনো উপসর্গ, যেমন হতাশাবোধ কিংবা ভালো লাগে এমন কোনো বিষয়ের ওপর আগ্রহ হারিয়ে ফেলার কারণে যদি মাঝে মাঝে আপনার ঘুম না হয় তাহলে সেটা বিষণ্ণতার লক্ষণ হতে পারে। বিষন্নতার অন্য কোনো লক্ষণ যদি আপনার থেকে থাকে, তাহলে ডাক্তারের সাথে কথা বলুন। আপনার পরস্থিতির জন্য সহায়ক চিকিৎসা আছে।

 

About the author

Maya Apa Expert Team