নারী স্বাস্থ্য ও দেহতত্ত্ব মাসিক

মাসিক না হওয়ার রোগনির্ণয়

মাসিক না হওয়ার রোগনির্ণয়
যদি আপনার মাসিকের সমস্যা নিয়ে চিন্তিত থাকেন, তাহলে আপনার ডাক্তারের সাথে তা নিয়ে কথা বলুন, কেননা ডাক্তার সমস্যা হওয়ার কারণ সনাক্ত করতে পারবেন ।

ডাক্তার প্রথমত আপনাকে গর্ভাবস্থা (প্রেগনেন্সি) পরীক্ষা করানোর পরামর্শ দিবেন, কারণ মাসিক বন্ধ হওয়ার অন্যতম প্রধান কারণ গর্ভবতী হওয়া । যে গর্ভনিরোধক পদ্ধতিটি আপনি ব্যবহার করছেন, আপনার অজান্তেই তা কাজ করতে ব্যর্থ হতে পারে এবং ফলশ্রুতিতে অনিচ্ছা সত্ত্বেও গর্ভাবস্থার সৃষ্টি হতে পারে।

এর সাথে সাথে ডাক্তার আপনার রোগ ও চিকিৎসার ইতিহাস, পরিবারের সদস্যদের চিকিৎসার ইতিহাস, আপনার যৌন স্বাস্থ্যের ইতিহাস, আবেগজনিত বিষয়সমূহ যা আপনি অনুভব করছেন এবং আপনার ওজনে কোনো পরিবর্তন হয়েছে কিনা, ইত্যাদি বিষয়ে আলোচনা করবেন ।

সেই সাথে বয়ঃসন্ধিকালের শারীরিক পরিবর্তনের ধাপগুলোর মধ্য দিয়ে সেরকম যাওয়া উচিৎ সেরকম আপনি যাচ্ছেন কী না, ডাক্তার তাও মূল্যায়ন করবেন।

মাসিক না হওয়ার সম্ভাব্য কারণের উপর নির্ভর করে ডাক্তার আপনাকে একজন গাইনোকোলোজিস্ট (স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ) বা একজন এন্ডোক্রাইনোলোজিস্টের (হরমোন চিকিৎসার বিশেষজ্ঞ) পরামর্শ নেয়ার কথা বলবেন, যাতে উক্ত সমস্যার প্রকৃত কারণ নির্ণয় করা যায় এবং তা নিরাময়ের জন্য প্রয়োজনীয় চিকিৎসার ব্যবস্থা করা যায়।

গাইনোকোলোজিস্ট আপনাকে গাইনোলোজিক্যাল (প্রজননগত) পরীক্ষার পাশাপাশি আরো কয়েকটি পরীক্ষা করানোর কথা বলতে পারেন, পরীক্ষাগুলো হতে পারেঃ

প্রোল্যাকটিন, থাইরয়েডকে উদ্দীপ্তকারী হরমোন, ফলিকলকে উদ্দীপ্তকারী হরমোন অথবা লুটেইনিজিং হরমোন রক্তে অস্বাভাবিক পরিমাণে বৃদ্ধি পেয়েছে কী না, তা দেখার জন্য রক্ত পরীক্ষা ।

আল্ট্রাসাউন্ড পরীক্ষা, কম্পিউটারাইজড ট্রমোগ্রাফি (সিটি) পরীক্ষা অথবা ম্যাগনেটিক রিসোনেন্স ইমেজিং (এম আর আই) পরীক্ষা করানোর কথা বলা হতে পারে । এসব পরীক্ষার ফলাফলে আপনার শরীরের আভ্যন্তরীণ অংশের ছবি সূক্ষ্ম ও পরিষ্কার ভাবে ফুটে ওঠে এবং আপনার প্রজনন তন্ত্র অথবা মস্তিষ্কের পিটুইটারি গ্ল্যান্ডে কোনো সমস্যা থেকে থাকলে তাও প্রকাশিত করে ।

আপনার ওজন কম অর্থাৎ বডি মাস ইনডেক্স ১৮.৫ এর নিচে হলে অথবা ওজন অতিরিক্ত ( বডি মাস ইনডেক্স ৩০ বা তার অধিক ) হলে একজন পুষ্টিবিদের পরামর্শ নেয়ার কথা বলে হতে পারে । সেই সাথে আপনার খাদ্য গ্রহণে অস্বাভাবিকতা সন্দেহ হলে ডাক্তার একজন মনোরোগবিশেষজ্ঞ বা সাইকোলোজিস্টের পরামর্শ নেয়ার কথাও আপনাকে বলতে পারেন।

About the author

Maya Expert Team