পটি ট্রেইনিং এন্ড বেড ওয়েটিং বাল্যরোগ চিকিৎসা মাইলফলক শিশুর যত্ন

শিশুকে পটি ব্যবহারে অভ্যস্ত করার জন্য

শিশুরা শারীরিকভাবে সক্ষম হওয়ার পর এবং যখন তারা পরিষ্কার ও শুকনো থাকা পছন্দ করে তখন থেকে তারা প্রস্রাব-পায়খানা নিয়ন্ত্রন করতে পারে। প্রতিটি শিশুই আলাদা, তাই তাকে অন্য শিশুর সাথে তুলনা করবেন না।

বেশিরভাগ শিশুই প্রস্রাব নিয়ন্ত্রণ করতে পারার আগে পায়খানা নিয়ন্ত্রণ করতে পারে।

দু’বছর বয়সের কাছাকাছি সময় থেকে শিশু দিনেরবেলা বেশিরভাগ সময় শুকনোই থাকবে।

তিন বছর বয়স হয়ে গেলে দশটির মধ্যে নয়টি শিশু দিনের বেলা কাপড় ভেজাবেনা। তবে তখনও তারা মাঝেমধ্যে উত্তেজিত, দুঃখিত, বা অন্য কিছুতে মগ্ন হয়ে পড়লে, নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলতে পারে।

চার বছর বয়স থেকে বেশিরভাগ শিশুর কাপড় ভেজাবে না এটা তার কাছে আশা করা যায়।

রাত্রেবেলাও শুকনো থাকা শিখতে শিশুদের একটু সময় লাগে। যদিও বেশিরভাগ শিশুই ৩ থেকে ৫ বছর ব্যসের মধ্যে এটা শিখে যায়, তবে ধরে নেয়া হয় যে তিন বছর বয়সী শিশুদের মধ্যে প্রতি চার জনে একজন এবং পাঁচ বছর বয়সী শিশুদের মধ্যে প্রতি ছয় জনে একজন রাত্রে বিছানা ভেজায়।

কখন থেকে পটিতে বসা অভ্যেস করানো শুরু করবেন

শিশুকে জোর করে পটি ব্যবহার করাতে পারবেন না এটা মনে রাখলে আপনার সুবিধে হবে। যদি তারা এর জন্য প্রস্তুত না হয় তবে তারা সেটি ব্যবহার করতে পারবে না। তবে একসময় আপনার শিশু এটি ব্যবহার করতে চাইবে; আপনার শিশু ন্যাপি পরে স্কুলে যেতে চাইবে না আর আপনিও সেটি চাইবেন না সে ওভাবে স্কুলে যাক। তবে যতদিন না তেমনটি হচ্ছে ততদিন আপনি একটি কাজই করতে পারেন, তা হচ্ছে আপনি যেরকম আচার-ব্যবহার চান তা করতে তাকে উৎসাহিত করা।

বেশিরভাগ বাবা-মা শিশুর ১৮ থেকে ২৪ মাস বয়সের মধ্যে তাকে পটি ব্যবহার করা শেখানোর কথা ভাবেন, তবে এর জন্য আদর্শ সময় বলে কিছু নেই। এটা গরম কালে শুরু করাই ভাল, কারন তখন কাপড় বা ন্যাপি ধুয়ে দিলে তাড়াতাড়ি শুকোয় এবং প্রয়োজনের সময় অল্প কাপড় খুলতে হয়। এটা শুরু করুন যখন আপনার শিশুর বা আপনাদের পরিবারের রুটিনে বিশেষ কোন পরিবর্তন হওয়ার সম্ভাবনা থাকে না তখন।

আপনার শিশু কখন এর জন্য প্রস্তুত তা বের করার চেষ্টা করতে পারেন। আপনার শিশু প্রস্রাবের চাপ সামলাতে পারার কয়েকটি লক্ষন আছেঃ

তারা ন্যাপি ভেজা না শুকনো তা বুঝতে পারবে।

তারা প্রস্রাব করার সময় বুঝতে পারবে এবং হয়ত করার সময় আপনাকে বলবে।

দু’বার প্রস্রাব করে মধ্যে কমপক্ষে এক ঘণ্টার বিরতি থাকবে (যদি তা না হয় তাহলে তাকে পটি ব্যবহারে অভ্যস্ত করা যাবে না বা তা করা গেলেও আপনার জন্য হয়ত তা খুব কঠিন হবে।)

তারা প্রস্রাব করতে হলে বুঝতে পারবে এবং আপনাকে আগে থেকে বলতে পারবে।

উপরের দেয়া শেষ লক্ষণটি যখন দেখবেন তখন থেকে শিশুকে পটি ব্যবহার করা শেখানো শুরু করলে সবচেয়ে দ্রুত হবে। এর আগে শুরু করলে আপনার শিশু পুরোপুরি শেখার আগ পর্যন্ত অনেক দুর্ঘটনা ঘটতে হতে পারে, তাই তার জন্য প্রস্তুত থাকুন।

পটি ব্যবহার শেখানো শুরু করবেন কীভাবে

এমন জায়গায় একটি পটি রাখুন যেন আপনার শিশু দেখতে পায় এবং এটি কিসের জন্য ব্যবহার করা হয় তা জানতে পারে। যদি আপনার একটু বড় কোন বাচ্চা থাকে এবং আপনার শিশু যদি তাকে পটি ব্যবহার করতে দেখে তাহলে তাতে আপনার সাহায্য হতে পারে। আপনি তাকে কিভাবে টয়লেট ব্যবহার করতে হয় তা শিখিয়ে দিতে পারবেন।

যদি আপনার আপনার শিশুর প্রতিদিন নির্দিষ্ট সময়ে নিয়মিত পায়খানা হয় তাহলে, সেই সময় তাদের ন্যাপি খুলে রাখুন এবং পটিতে গিয়ে বসতে বলুন। যদি আপনার শিশু এতে সামান্যও বিরক্ত হয় তাহলে তাকে আবার ন্যাপি পরিয়ে দিন এবং কয়েক সপ্তাহ পর আবার একইভাবে চেষ্টা করুন।

যখন থেকে দেখবেন যে আপনার শিশু কখন প্রস্রাব করবে তা বুঝতে পারে তখন থেকেই তাকে পটি ব্যবহারে উৎসাহিত করুন। যদি শিশু প্রস্রাব আটকাতে না পারে এবং মেঝে ভিজিয়ে ফেলে তাহলে মেঝে মুছে ফেলুন এবং পরেরবারের জন্য অপেক্ষা করুন। এটিতে অভ্যস্ত হতে একটু সময় লাগবে। যদি তারা এরকম দুর্ঘটনা ঘটিয়ে ফেললে আপনি উত্তেজিত না হন তাহলে তারা দুশ্চিন্তিত হবে না এবং পরের বার ঠিক মত করতে পারবে।

আপনার শিশু যখন ঠিক মত পটি ব্যবহার করতে পারবে তখন সে নিজেই তার সাফল্যে ভীষণ খুশি হবে। আপনি একটু বাহবা দিলে তাতেও অনেক কাজ হবে। বাহবা দেয়া এবং বিরাট কিছু করে ফেলেছে এমন ভাব দেখানো (যেটি আপনি করতে চাইবেন না)-এ দুটির মধ্যে ভারসাম্য বজায় রাখতে আপনাকে কৌশলী হতে হবে। পুরস্কার হিসেবে শিশুকে মিষ্টিজাতীয় কিছু দেবেন না, কারন তাতে আরও বেশি সমস্যা হতে পারে। সময় হলে শিশু নিজেই পটি ব্যবহার করতে চাইবে এবং সেটি ঠিকঠাক করতে পারলে খুশিও হবে।

আরও তথ্যের জন্য

পটি ব্যবহার করা শেখানোর বিভিন্ন সমস্যা ও সমাধান

বিছানায় প্রস্রাব করার সমস্যা

About the author

Maya Expert Team